আজ বুধবার,২৪শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং,৯ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ১:০২
  • মহালছড়ি জোনে মৃত্যুঞ্জয়ী পঁচিশ’র ৪৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী
  • খাগড়াছড়িতে বৌদ্ধ বিহার ও মুর্তি ভাংচুর, প্রতিবাদে বিক্ষোভ
  • বাকেরগঞ্জে সাংবাদিকের ওপর জেলেদের হামলা
  • পূর্নতা পেতে যাচ্ছে ঠাকুরগাঁওয়ের স্মৃতি সৌধটি
  • ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন পার্লামেন্টে অভিবাসন সংক্রান্ত কনফারেন্সে বাংলাদেশীদের অংশগ্রহন
  • ঠাকুরগাঁওয়ে প্রেমের ফাঁদে ফেলে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ: আটক ১
  • ঠাকুরগাঁওয়ে কলেজছাত্রীকে মারপিটের অভিযোগ

এনার্জি ড্রিংক আমদানি বন্ধে এবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে চিঠি

নিজস্ব প্রতিবেদক : এনার্জি ড্রিংক নামে যে কোনো ধরণের পানীয় (ড্রিংক/বেভারেজ) আমদানি বন্ধ করতে এবার চিঠি পাঠানো হয়েছে কাস্টমস, এনবিআর এবং বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে। বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ থেকে এ চিঠি পাঠানো হয়।

এর আগে গত ২৪ সেপ্টেম্বর এনার্জি ড্রিংকসের নিয়মবহির্ভূত উৎপাদন, আমদানি এবং বাজারজাতকরণ বন্ধের এবং জাতীয় মান প্রণয়ন না করার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস এন্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন (বিএসটিআই)।

বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের সচিব মো. মোকাম্মেল হক স্বাক্ষরিত আজকের চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘ কার্বোনেটেড বেভারেজ আমদানির ক্ষেত্রে বাংলাদেশ জাতীয় মান বিডিএস ১১২৩:২০১৩ অনুসরণ বাধ্যতামূলক। উক্ত মান বহির্ভূত কার্বোনেটেড বেভারেজ বিশেষত: যে সকল কার্বোনেটেড বেভারেজে ‘ক্যাফেইন’-এর মাত্রা ১৪৫ মি.গ্রা./লিটার-এর বেশী সেগুলো কোনক্রমেই আমদানি ও বিক্রয় করা যাবে না। এছাড়াও কার্বোনেটেড বেভারেজের মোড়কে ‘এনার্জি ড্রিংক’ ঘোষনা দেয়া বিভ্রান্তিকর বিধায় লেবেলে ‘এনার্জি ড্রিংক’ মুদ্রিত কোন কার্বোনেটেড বেভারেজ আমদানি বন্ধ করা প্রয়োজন।’

চিঠিতে কার্বোনেটেড বেভারেজ/ ড্রিংকসের লেবেলে বা মোড়কে ‘এনার্জি ড্রিংক’ ঘোষনা থাকা এবং ‘ক্যাফেইন’-এর মাত্রা ১৪৫ মি.গ্রা./লিটার-এর অধিক রয়েছে এমন কার্বোনেটেড বেভারেজ/ ড্রিংকসের আমদানি এবং বন্দর থেকে খালাস বন্ধের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশক্রমে কাস্টম হাউজের সকল কমিশনারকে অনুরোধ করা হয়েছে।

চিঠির কপি দেওয়া হয় জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব, খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিএসটিআই-এর মহাপরিচালক এবং ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে।

গত বছর বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ বাজার থেকে সাতটি কোম্পানির উৎপাদিত এনার্জি ড্রিংকস সংগ্রহ করে রাজধানীর তিনটি সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ল্যাবরেটরিতে পরীক্ষার জন্য পাঠায়। পরীক্ষায় সাতটি কোম্পানির পানীয়তে মাত্রাতিরিক্ত ক্যাফেইনের উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

উল্লেখ্য, বিএসটিআই দেশে এনার্জি ড্রিংকসের নামে কোনও পানীয় বাজারজাতকরণের অনুমোদন দেয় না। উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলো কার্বোনেটেড বেভারেজেস হিসেবে অনুমোদন নিয়ে এসব পণ্য বাজারজাত করে আসছে।

বিভিন্ন স্বাস্থ্য সাময়িকীতে উল্লেখ রয়েছে, এনার্জি ড্রিংকসের অতিরিক্ত ক্যাফেইন লিভারে চর্বি জমায়। হৃদপিণ্ডের রক্ত সরবরাহকারী ধমনীতে রক্ত চলাচল ধীর করে দেয়। এছাড়া বুক ধরফরানি, অনিয়মিত হৃদস্পন্দন, উচ্চরক্তচাপ, ঘুমের ব্যঘাত, শরীরে অ্যাড্রেনালিন নামক হরমোনের মাত্রা বৃদ্ধি করে উত্তেজনা বৃদ্ধি ও কর্মক্ষমতা হ্রাস করে।

দিনের পর দিন অতিরিক্ত ক্যাফেইন শরীরে প্রবেশের ফলে অসুখ সারাতে ব্যবহৃত ওষুধও কাজ করে না। মাত্রাতিরিক্ত ক্যাফেইনমিশ্রিত বিভিন্ন ধরনের এনার্জি ড্রিংক নেশার জগতে নীরব সংযোজন বলেও অনেক সমাজবিজ্ঞানী ও বিশেষজ্ঞ মনে করছেন।

image_print

Leave a Reply

samakalnews24.com এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

অর্থনীতি-ব্যবসা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ