আজ সোমবার,২৩শে জুলাই, ২০১৮ ইং,৮ই শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ১২:০৬
  • সোনাগাজীতে জনপ্রিয়তার শীর্ষে ইউপি চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন মিলন
  • খুলনার আলোচিত ইউপি চেয়ারম্যান মিহিরের বিরুদ্ধে বাড়ি দখল ও মারধরের অভিযোগে আদালতে মামলা
  • জনসেবাই আমার একমাত্র উদ্দেশ্য: ২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদপ্রার্থী এডভোকেট এ.কে.এম মুরতাজা আবেদীন
  • হারানো বিজ্ঞপ্তি
  • ১২০ নারীকে ধর্ষণ-ভিডিও ধারণ, মন্দিরের পুরোহিত গ্রেফতার
  • আসন্ন বিসিসি নির্বাচনে মেয়র, কাউন্সিলর প্রার্থীদের চলছে সর্বোচ্চ প্রচারনা
  • মরণ নেশা ইয়াবার ছোবলে বাকেরগঞ্জে ঘরে ঘরে অসান্তি

ট্রাম্পকে ক্ষমা চাইতেই হবে

trump

trump

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ আফ্রিকার দেশগুলো ‘অত্যন্ত নোংরা জায়গা’ মন্তব্যের জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ক্ষমা চাইতে বলেছে আফ্রিকান ইউনিয়ন।
আফ্রিকার দেশগুলোর প্রতিনিধিত্বকারী ওই সংস্থাটির ওয়াশিংটন ডিসি মিশন ট্রাম্পের এ মন্তব্যে ‘মর্মাহত, অপমানিত ও উদ্বিগ্ন’ বলে জানিয়েছে। খবর বিবিসির।

হোয়াইট হাউসের ওভাল দফতরে বৃহস্পতিবার অভিবাসন নিয়ে এক বৈঠকে ট্রাম্প ওই মন্তব্যটি করেন বলে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রতিবেদনে বলা হয়। তবে ওই ভাষা ব্যবহার করেননি বলে দাবি করেছেন ট্রাম্প।

ওই বৈঠকে উপস্থিত দুই রিপাবলিকান সিনেটরও ট্রাম্পের দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন। কিন্তু ওই বৈঠকে উপস্থিত ডেমোক্র্যাটিক সিনেটর ডিক ডারবিন জানিয়েছেন, বৈঠকে বেশ কয়েকবার আফ্রিকার দেশগুলোকে ‘নোংরা জায়গা’ বলে মন্তব্য করে ‘বর্ণবাদী’ ভাষা ব্যবহার করেছেন ট্রাম্প।

শুক্রবার এক টুইটে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, অভিবাসন আইন ‘কঠোর’ করা নিয়ে আইনপ্রণেতাদের সঙ্গে ওই গোপনীয় বৈঠকটি করছিলেন তিনি। কিন্তু তিনি বলছেন বলে যেসব শব্দ উল্লেখ করা হচ্ছে ‘সেগুলো ব্যবহার করা হয়নি’।

অপরদিকে আফ্রিকান ইউনিয়ন বলেছে, এই মন্তব্য সুপ্রতিষ্ঠিত মার্কিন ভাবমূর্তি এবং বৈচিত্র্য ও মর্যাদার প্রতি শ্রদ্ধাকে অসম্মান করেছে।

‘এই মন্তব্যে আমরা আহত, অপমানিত ও উদ্বিগ্ন হয়েছি’। আফ্রিকা মহাদেশ ও এর অধিবাসীদের বিষয়ে বর্তমান (মার্কিন) প্রশাসনের ব্যাপক ভুল বুঝাবুঝি রয়েছে বলে গভীরভাবে বিশ্বাস করে আফ্রিকান ইউনিয়ন।

‘এই বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসন ও আফ্রিকার দেশগুলোর মধ্যে জরুরিভিত্তিতে সংলাপ হওয়া দরকার।’

ট্রাম্পের এই মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় বোতসওয়ানায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে তলব করে কৈফিয়ত চেয়েছে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট এমন মন্তব্য করেছেন নিশ্চিত হলে তা ‘অতিশয় বেদনাদায়ক ও লজ্জাজনক’ হবে বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক মুখপাত্র রুপার্ট কোলভিল।


samakalnews24.com এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ