আজ বুধবার,২৪শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং,১১ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ৭:৩২
  • চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩৫ করার দাবিতে ৫৪ জেলায় কর্মসূচি
  • ‘আল্লাহর বিচার আছে, এবার খালেদা জিয়াও জেলে যাবেন’
  • ‘খালেদাকেও কারাগারের ফ্লোরে কম্বল, বালিশ নিয়ে থাকতে হবে’
  • রাউজানে খেলার মাঠ উন্মুক্ত করলেন ইউএনও
  • বরগুনায় এক গৃহবধুকে মুখ বেধে ধর্ষন
  • জ্বাল নোট সহ জৈন্তাপুরে ১ জন আটক
  • বানারীপাড়ায় সাংবাদিক জুয়েল শ্রেষ্ঠ স্কাউট শিক্ষক নির্বাচিত

ধ্বংস করা হচ্ছে গোয়াইনঘাটের জুগিরকান্দি মায়াবন পর্যটনকেন্দ্র


নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সিলেটের সীমান্ত জনপদ গোয়াইনঘাট উপজেলার আলীরগাঁও ইউনিয়নে অবস্থিত (মায়াবন) জুগিরকান্দি হাওর, সেখান থেকে গত ২/৩ দিন থেকে প্রতিনিয়ত অবাধে কেটে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে চাইল্যাবন, হিজল, করচ গাছের ঢালপালা। উজাড় করা হচ্ছে ঘন সবুজ বন। বিশাল হাওরের জলারাশির চারদিকে হিজল-করচ নলখাগড়া, চালিয়াবন সহ বিভিন্ন জাতের গাছ গাছালী সমৃদ্ধ অতিথি পাখিদের অভয়াশ্রম রয়েছে এই হাওরে ।
পার্শবর্তী রাষ্ট্র ভারতের কূলঘেষা সবুজের সমারোহে বেষ্টিত অপার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যে ভরপুর, জুগিরকান্দি হাওর (মায়াবন)র’  জীব বৈচিত্র্য এখন অনেকটাই তার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য হারানোর পাশাপাশি জীব বৈচিত্র্য ক্রমশ হুমকির মুখে পড়ছে।
ফলে বিপন্ন হচ্ছে হাওর, বিপন্ন হচ্ছে জুগিরকান্দি হাওর মায়াবন’র পরিবেশ। এলাকার এক শ্রেণীর বনখেকো চক্রের কবলে বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে মায়াবনের হিজল করচ সহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছগাছালি ।
জুগিরকান্দি হাওর (মায়াবন) সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য অনুসন্ধান করে জানা গেছে,  জুগিরকান্দি হাওর মায়াবনে গত ২/৩ দিন আগে ও হাজার হাজার হিজল করচ গাছ, নলখাগড়া, ঝাউবন চাইল্যাবন, বরুণ সহ নানা প্রজাতির গাছ ও বন ছিল।
হাওরের সুবিশাল জলরাশির বুকে ও চার পাশ জুড়ে ছিল বিভিন্ন প্রজাতির পাখি, বিভিন্ন প্রজাতির মাছ, ভিবিন্ন প্রজাতির উভচর প্রাণী, বিভিন্ন প্রজাতির  গিরিগিটি, সাপ, ও ভিবিন্ন প্রজাতির জলজ ও জলপদ্ম জাতীয় উদ্ভিদ। কিন্তু বর্তমানে বদলে যাচ্ছে জুগিরকান্দি  হাওরের দৃশ্যপট। অবৈধ ভাবে হিজল করচ গাছ কাটা অব্যাহত থাকায় প্রায় পাখি শূন্য হতে যাচ্ছে হাওরটি।
সম্প্রতি সরেজমিনে জুগিরকান্দি হাওর (মায়াবন) ঘুরে দেখা যায়, হাওরপারের জনগণ  চাইল্ল্যাবন, হিজল, করচ গাছের ডালপালা নৌকা বোঝাই করে কেটে নিয়ে বিক্রি করছে নির্বিঘ্নে। নৌকা বুজাই করে গাছ নিতে আসা দুইজন নৌকার মাঝি কে জিজ্ঞাসা করলে তারা জানায় এলাকার লোকজন গাছ গুলো তাদের কাছে বিক্রি করেছে ।  এগুলো কোথায় যাবে?? এমন প্রশ্নের জবাবে নৌকার মাঝিরা প্রতিবেদক কে জানায় সিলেটের সুনামগঞ্জে যাবে । কি করা হবে গাছের ডালপালা দিয়ে? উত্তরে জানায় বিলে কাটা দেয়া হবে।
এসময় বনের ভিতর থেকে অসংখ্য পাখি উড়তে দেখা যায়, হাওর জলাভূমিকে অতিথি পাখির অভয়াশ্রম বলা হলেও বর্তমানে তুলনামূলক ভাবে পাখি না আসা, এবং এসে চলে যাওয়া, অনেকটা ধরে নেয়া হচ্ছে হয়ত অতিথি পাখিরাই ঘোষণা দিয়ে বিদায় জানাচ্ছে জুগিরকান্দি হাওর (মায়াবন) তাদের জন্য এখন আর নিরাপদ নয়।
আর এ অবস্থার জন্য পরিবেশবিদরা এলাকার বনদস্যুদের কে দায়ী করে জানিয়েছেন, যেভাবে গাছ কেটে ফেলা হচ্ছে, এভাবে যদি আরো কিছুদিন চলতে থাকে তাহলে, সে দিন হয়ত আর বেশী দূরে নয় যেদিন জুগিরকান্দি হাওর (মায়াবন) জীব বৈচিত্র্য ও প্রাকৃতিক সম্পদ রক্ষা করা অসম্ভব হয়ে যাবে। এবং আশংকা করা হচ্ছে এ অবস্থা চলতে থাকলে বিপন্ন হতে পারে হাওরের পরিবেশ, হাওর পাড়ের জনবসতি গুলোতে পরিবেশ বিপর্যয়ের বিরূপ প্রভাব পড়তে পারে।
হাওর পাড়ের কিছু লোক নাম উল্লেখ না করার শর্তে  জানিয়েছেন, জুগিরকান্দি হাওর (মায়াবনে) এক সময় সবুজের সমারোহ থাকলেও ইদানিং গাছগাছালির খুব একটা দেখা পাওয়া যাচ্ছেনা না। বনখেকো চক্রের হাতে যুগিরকান্দি হাওর এখন প্রায় গাছ শূন্য হতে চলেছে।
জুগিরকান্দি হাওর মায়াবনে বেপরোয়া ভাবে গাছ নিধনের কারণে নষ্ট হচ্ছে হাওরের পরিবেশ, বিপন্ন হচ্ছে অতিথি পাখির অভয়ারণ্য, নষ্ট হচ্ছে মাছের আবাসস্থল।
এবিষয়ে তারা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
গোয়াইনঘাট উপজেলার আলীরগাঁও ইউনিয়নের জুবায়ের হুসেন নামে একজন কলেজ ছাত্র বলেন, গত দুই তিনদিন ধরে মায়াবনে গাছকাটা চলছে।  একই এলাকার আরেকজন আহমেদ আল মাসুদ বলেন, এখন হাওরে গাছপালা আগের মত নেই। প্রশাসন এই ঐতিহ্যবাহী বনের দিকে দ্রুত নজর দিয়ে পরিবেশকে রক্ষা করবে এমনটাই দাবী সচেতন মহলের ।


samakalnews24.com এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পর্যটন বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ