আজ শুক্রবার,১৯শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং,৪ঠা কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ৬:০২
  • এবার তাহেরপুরে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের দুর্গাপূজার উৎপত্তিস্থলে মানুষের ঢল
  • কঠোর নিরাপত্তার মধ্যদিয়ে টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ২৩৭ মন্ডপে শারদীয়া দূর্গা পূজার উৎসব।
  • বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুর প্রহর গুনছেন সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী
  • গোদাগাড়ীতে মাচায় তরমুজ চাষ,পাওয়া যাচ্ছে বারমাস
  • উদ্ধার হওয়া সালামের সাথে দেখা করলেন আ’লীগের নেতৃবৃন্দ
  • জিজ্ঞাসাবাদের সময় মারা যান খাশোগি
  • প্রকাশ্যে পিস্তল হাতে এমপিপুত্রের কাণ্ড!

শ্রীকৃষ্ণের জন্ম সনদ দেখতে চেয়ে মামলা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: জৈনেন্দ্র কুমার নামে এক ভারতীয় নাগরিক শ্রীকৃষ্ণের জন্ম ও ঈশ্বর সত্ত্বার প্রশংসাপত্র চেয়ে হইচই ফেলে দিয়েছেন। দেশটির ছত্তিশগড়ের এই বাসিন্দা ‘রাইট টু ইনফরমেশন’ আইনের সাহায্যে মামলা করে মথুরা জেলা কর্তৃপক্ষের দ্বারস্থ হয়েছেন।

জানা গেছে, হিন্দু ধর্মবলম্বীদের ঈশ্বর শ্রীকৃষ্ণের জন্ম ১৪ আগস্ট। তবে ৩ সেপ্টেম্বর তার জন্মাষ্ঠমী পালন করা হয়। তিনি যে ঈশ্বর এবং তার জন্ম তারিখ সঠিক কি না এ নিয়ে মামলা করেছেন জৈনেন্দ্র কুমার। তিনি শ্রীকৃষ্ণের জন্ম তারিখের প্রমাণ ও প্রমাণপত্র চেয়েছেন মথুরা জেলা কর্তৃপক্ষের কাছে।

মথুরা জেলা কর্তৃপক্ষের উদ্দেশে জৈনেন্দ্র কুমার বলেন, ‘দেশে সবাই কৃষ্ণ জন্মাষ্টমী পালন করে ৩ সেপ্টেম্বর। আপনারা দয়া করে ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্ম প্রশংসাপত্র দেখান, যার দ্বারা প্রমাণ হবে তিনি ওইদিনে জন্মেছিলেন। একই সঙ্গে তিনি যে সত্যিই ভগবান ছিলেন তার প্রমাণও চেয়েছেন জৈনেন্দ্র।’

এ প্রসঙ্গে মথুরা জেলা কর্তৃপক্ষের জনসংযোগকারী কর্মকর্তা রমেশ চন্দ্র বলেন, ‘এটা বিশ্বাসের ব্যাপার। যে ধরনের প্রমাণ উনি চাইছেন, তা দেওয়া সম্ভব নয়।’

এদিকে সস্তা জনপ্রিয়তা পাওয়ার জন্য জৈনেন্দ্র এমন কাজ করছেন বলে মন্তব্য করেছেন মথুরার এক পুরোহিত। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, শ্রীকৃষ্ণের জন্মের বার্থ সার্টিফিকেট দেওয়া সম্ভব নয়। কারণ দ্বাপর যুগে এ রকম কোনো ব্যবস্থা ছিল না। তিনি বলেন, ‘জৈনেন্দ্র যা করছেন এতে অন্যের ভাবাবেগে আঘাত লাগে।’

ভারতীয় হিন্দু পূরাণ অনুযায়ী, ছত্তিশগড়ের মথুরায় জন্ম নিয়েছিলেন ঈশ্বর শ্রীকৃষ্ণ। দ্বাপর যুগে জন্ম নিয়েছিলেন তিনি। বসুদেব ও দেবকীর অষ্টম পুত্র শ্রীকৃষ্ণ রাজপরিবারের সন্তান ছিলেন। তিনি বেড়ে ওঠেন গোকুলে। তিনি ছিলেন বৃন্দাবনের গোপালক সম্প্রদায়ের প্রধান।

প্রতি বছর ভাদ্রমাসের কৃষ্ণপক্ষের অষ্টমী (জন্মাষ্টমী) তিথিতে শ্রীকৃষ্ণের জন্মোৎসব পালন করা হয়। জন্মাষ্টমীকে কৃষ্ণাষ্টমী, শ্রীকৃষ্ণজয়ন্তী, গোকুলাষ্টমী, অষ্টমী রোহিণী প্রভৃতি নামেও ডাকা হয়। সূত্র: এনডিটিভি


Leave a Reply

samakalnews24.com এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ