২৬শে মে, ২০২০ ইং ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
সমকালনিউজ২৪.কম’র নির্বাহী সম্পাদকের পক্ষ থেকে...  মির্জাপুরে পুলিশ সুপারের সহায়তায় কর্মহীনদের মাঝে... দুর্গাপুরে এতিমদের মাঝে বস্ত্র বিতরণ বরগুনায় ইউপি চেয়ারম্যানসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে মা’মলা দেশের ৯০ গ্রামে উদযাপিত হচ্ছে ঈদ

অগ্নিকাণ্ড ৩০ মিনিট আগে হলে আমিও মারা যেতাম : বিচারক

 অনলাইন ডেস্কঃ সমকালনিউজ২৪
অগ্নিকাণ্ড ৩০ মিনিট আগে হলে আমিও মারা যেতাম : বিচারক

চুড়িহাট্টা অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় ওয়াহেদ ম্যানশনের মালিকের দুই ছেলে সোহেল ওরফে শহীদ ও হাসানের সাত দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। সোমবার ঢাকা মহানগর হাকিম রাজেশ চৌধুরী শুনানি শেষে রিমান্ডের আদেশ দেন।

এদিন আসামিপক্ষের আইনজীবী রিমান্ড বাতিলপূর্বক জামিনের জন্য শুনানি করেন। শুনানির এক পর্যায়ে মহানগর হাকিম রাজেশ চৌধুরী বলেন, ওই দিন ওই ঘটনার ৩০ মিনিট আগে আমি সেখান দিয়ে যাচ্ছিলাম। ঘটনাটি আর ৩০ মিনিট আগে হলে আমিও মারা যেতাম।

বিচারক বলেন, যারা ভবনমালিক তাদের সচেতনতা নেই। তারা না ভেবে অনেক মানুষের জীবন হুমকির মুখে ফেলে দেন।

মামলাটিতে গত ২ এপ্রিল ওই দুই আসামি আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলে আদালত তা নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। আসামিরা আত্মসমর্পণের আগেই গত ৩১ মার্চ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা চকবাজার থানার পুলিশ পরিদর্শক মোরাদুল ইসলাম আসামিদের ১০ দিন করে রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেন। ওই দিন আদালত আসামিদের উপস্থিতিতে সোমবার (৮ এপ্রিল) রিমান্ড শুনানির তারিখ ধার্য করেন।

এদিন আসামিপক্ষের আইনজীবীরা দাবি করেন, অগ্নিকাণ্ডে আসামিরা নিঃস্ব হয়েছেন। তাদের জন্ম ওখানে। অস্তিত্ব মিশে আছে সেখানে। আর অস্তিত্বে কেউ আগুন লাগায় না।

এ সময় তদন্ত কর্মকর্তার কাছে রিমান্ড আবেদনের বিষয়ে জানতে চান বিচারক। কী কারণে রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে তা আদালতকে অবহিত করেন তদন্ত কর্মকর্তা। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক বলেন, আমার মনে হয়, রাষ্ট্র আমার কোর্টের দিকে তাকিয়ে আছে, কী হয় এজন্য।

এর পর তিনি আসামিদের সাত দিন করে রিমান্ডের আদেশ দেন।

প্রসঙ্গত, গত ২০ ফেব্রুয়ারি রাতে পুরান ঢাকার চুড়িহাট্টায় অগ্নিকাণ্ডে ৭১ জন নিহত হন। দগ্ধ ও আহত হন অনেকে। এই ঘটনায় আসিফ নামের স্থানীয় এক বাসিন্দা চকবাজার মডেল থানায় ওই দুই আসামিসহ অজ্ঞাত ১০/১২ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। মামলায় তিনি অভিযোগ করেন, আসামিরা তাদের চারতলা আবাসিক ভবন দাহ্য পদার্থ ব্যবসায়ীদের গোডাইন হিসেবে ভাড়া দেন।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে