২২শে জুলাই, ২০১৯ ইং ৭ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
যশোরের শার্শায় প্রসূতি নারীর তিন পুত্র সন্তানের জন্ম চাঁদপুরে স্কুল শিক্ষিকার গলাকেটে হত্যা বগুড়ায় ছেলে ধরা সন্দেহে এক ব্যক্তিকে পুলিশে সোপর্দ বরগুনায় বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা... কোটচাঁদপুরে অবৈধ গর্ভপাতের মূলহোতা রিনা পারভিন আটক

অবশেষে শ্বশুরকে সমর্থন জানিয়ে সরে দাঁড়ালেন জামাই

 নিজস্ব প্রতিনিধিঃ সমকাল নিউজ ২৪

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল ও আশুগঞ্জ) আসনে মনোনয়ন নিয়ে জামাই রেজাউল ইসলাম ভূইয়ার সঙ্গে শ্বশুর জিয়াউল হক মৃধার দ্বন্দ্বের অবশেষে অবসান ঘটেছে।

শুক্রবার বিকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ভবনে সংবাদ সম্মেলন করে শ্বশুরকে সমর্থন জানিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন জামাই রেজাউল।

 

সংবাদ সম্মেলনে রেজাউল বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে সরাইল-আশুগঞ্জে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা এবং আগ্রহ ছিল ভোটারদের মধ্যে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ আমাকে এ আসন থেকে মহাজোটের পক্ষ থেকে লাঙ্গল প্রতীকে মনোনয়ন দিয়েছিলেন। এলাকায় অপশক্তি ঠেকানোর জন্য, শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য আমি জিয়াউল হক মৃধার সমর্থনে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালাম।

 

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৬টি আসনের মধ্যে ৫টি আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে মনোনয়ন দেয়া হলেও ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল ও আশুগঞ্জ) আসনটি মহাজোটের শরীক জাতীয় পার্টির জন্য ছেড়ে দেয়া হয়। পরে জাপা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের যুববিষয়ক উপদেষ্টা রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়াকে মনোনয়ন দেয়া হয়। কিন্তু দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে তারই শ্বশুর বর্তমান এমপি জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান জিয়াউল হক মৃধা স্বতন্ত্র হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দেন। প্রতীক বরাদ্দের সময় জাতীয় পার্টি মহাসচিবের আরেকটি সংশোধনী চিটির ভিত্তিতে দুজনই দলীয় লাঙ্গল প্রতীক বরাদ্দ চান। এ নিয়ে সৃষ্ট দ্বন্দ্বে তাদের প্রতীক বরাদ্দ কিছুু সময় স্থগিত রাখা হয়। পরে নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা অনুযাায়ী রেজাউলকে লাঙ্গল ও জিয়াউলকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সিংহ প্রতীক দেয়া হয়।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ব্রাহ্মনবাড়িয়া বিভাগের সর্বশেষ
ওপরে