২০শে মে, ২০১৯ ইং ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
যশোরের বেনাপোলে নারীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার বান্দরবানে সন্ত্রাসীদের গুলিতে আ’লীগ নেতা নিহত ! বরগুনা সদর রোডে ময়লা স্তুপ রেখেই রাস্তার কার্পেটিং এর... ৬০কিলোমিটার বেগে ঝড় আসছে , নদী বন্দরে সতর্ক সংকেত জারি! বানারীপাড়ায় ইয়াবা সহ মাদকসেবী আটক

আমতলী পরীক্ষার কক্ষে উত্তরপত্র না দেখানোর কারনে মারধর

 হায়াতুজ্জামান মিরাজ,আমতলী প্রতিনিধি। সমকাল নিউজ ২৪

বরগুনার আমতলী এমইউ বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভোকেশনাল পরীক্ষার কেন্দ্রে উত্তরপত্র না দেখানোর কারনে লিমন নামের এক পরীক্ষার্থীকে মারধর করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত ওই ছাত্রকে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনা ঘটেছে মঙ্গলবার সন্ধ্যায়। এ ঘটনায় ওই পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা দেয়া অনিশ্চিত হয়ে পরেেেছ।

জানাগেছে, উপজেলার এমইউ বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে মঙ্গলবার ভোকেশনাল ট্রেড-ওয়ান পরীক্ষা চলছিল। ওই কেন্দ্রের ৩ নং কক্ষে কড়াইবাড়িয়া টেকনিক্যাল স্কুল ও আমতলী একে সরকারী পাইটল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষা দিচ্ছিল। পরীক্ষা চলাকালিন সময়ে কড়াইবাড়িয়া টেকনিক্যাল স্কুলের পরীক্ষার্থী লিমনের কাছে উত্তরপত্র চায় একে স্কুলের পরীক্ষার্থী রাসেল। লিমন এ উত্তরপত্র দিতে রাজি না হওয়ায় ক্ষিপ্ত হয় রাসেল। পরীক্ষার কক্ষে বসেই শাসিয়ে দেয় লিমনকে রাসেল। পরীক্ষা শেষে কেন্দ্র থেকে বের হওয়া মাত্রই রাসেল ও তার ৭/৮ জন সহযোগী লিমনকে বেধরক মারধর করে। পরে লিমন আমতলী থানায় এ ঘটনায় সাধারণ ডায়েরী করে। সাধারণ ডায়েরীর খবর পেয়ে ওই দিন সন্ধ্যায় লিমনকে পৌর শহরের শাকিব প্লাজার সামনে পেয়ে রাসেল ও তার সহযোগীরা লিমনকে পুনরায় লোহার পাইপ দিয়ে পিটিয়ে মাথা ফাটিয়ে দেয়। স্থানীয় লোকজন লিমনকে উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। ঘটনার খবর পেয়ে আমতলী থানার ওসি মোঃ আলাউদ্দিন মিলন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে ওই পরীক্ষার্থীকে দেখে আছেন।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার গৌরাঙ্গ হাজড়া বলেন, ওই পরীক্ষার্থীর মাথা আঘাতে ফেটে গেছে।

আহত লিমন জানান, পরীক্ষার কেন্দ্রে রাসেল আমার মুল উত্তরপত্র চায়। আমি উত্তরপত্র দিতে রাজি না হওয়ায় রাসেল আমাকে মারধর করেছে। ওই ছাত্র আরো জানান, থানার অভিযোগ দেয়ার খবর পেয়ে আমাকে লোহার পাইপ দিয়ে পিটিয়ে মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে।

আহত লিমনের বাবা জলিল মিয়া জানান, আমার ছেলেকে মারধর করায় সামনের পরীক্ষার অনিশ্চিত হয়ে পরেছে।
আমতলী থানার ওসি মোঃ আলাউদ্দিন মিলন বলেন, আহত পরীক্ষার্থীকে হাসপাতালে দেখে এসেছি। যারা এ ঘটনার সাথে জড়িত তাদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
বরগুনা বিভাগের সর্বশেষ
বরগুনা বিভাগের আলোচিত
ওপরে