১১ই জুলাই, ২০২০ ইং ২৭শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
বগুড়ায় মা’দকসহ ১১ ব্যবসায়ী গ্রে’ফতার পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় ২৩ জনকে অর্থদ’ণ্ড বরগুনায় জেলা প্রাইভেট মেডিকেল টেকনলজিষ্টদের কর্ম পাপুল কুয়েতের নাগরিক নন: কুয়েত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় নিখোঁজের ৪৪ ঘন্টা বালু শ্রমিকের লা’শ উদ্ধার

ইমরানের কাছে ফের মধ্যস্থতার প্রস্তাব ট্রাম্পের

 অনলাইন ডেস্ক সমকালনিউজ২৪

কাশ্মীর নিয়ে সৃষ্ট উত্তেজনা প্রশমনে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে ফের মধ্যস্থতার প্রস্তাব দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এই নিয়ে তৃতীয়বার তিনি একই ধরনের প্রস্তাব দিলেন তিনি যা নিয়ে আবারও অস্বস্তিতে পড়েছে নয়াদিল্লি। কেননা কাশ্মীর ইস্যুটিকে নিজেদের আভ্যন্তরীণ সমস্যা বলে দাবি করে থাকে ভারত এবং এ নিয়ে তারা কোনো তৃতীয় পক্ষের মধ্যস্থতা সমর্থন করে না।

সোমবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে পাশে নিয়ে আবারও দু দেশের মধ্যে মধ্যস্থতার প্রস্তাব দেন ট্রাম্প। যদিও মাত্র একদিন আগেই মোদিকে পাশে নিয়ে স’ন্ত্রাসবাদের বি’রুদ্ধে কড়া বক্তব্য রেখেছিলেন তিনি। ভারতীয় সংবাদ মাধ্যগুলোতে এ খবর ফলাও করে প্রচারও করেছে। কিন্তু মাত্র একদিন পরেই ট্রাম্প ভোল পাল্টে কাশ্মীর ইস্যুতে ফের মধ্যস্থতার প্রস্তাবটি তুললেন ইমরান খানের কাছে।

ভারত কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল পর থেকেই জাতিসংঘসহ নানা আন্তর্জাতিক মঞ্চে ভারত বি’রোধী প্রচারণা চালাচ্ছেন ইমরান খানসহ পাকিস্তানের বিভিন্ন নেতারা। কিন্তু রোববার হাউডি সমাবেশে ট্রাম্প ও মোদি যে ভাবে কাশ্মীর নিয়ে সুর চড়িয়েছেন, সন্ত্রাস প্রশ্নে পাকিস্তানকে আক্রমণ করেছেন, তাতে ইমরান আর যুক্তরাষ্ট্রের কাছে পাত্তা পাবে না বলেই দাবি করছিলেন ভারতীয় কূটনীতিকেরা। কিন্তু সোমবার ইমরানের সঙ্গে ট্রাম্পের বৈঠক এবং মার্কিন প্রেসিডেন্টের কথাবার্তা শুনে তারা পুরাই হতাশ। ট্রাম্প যে মাত্র একদিনের ব্যবধানে এভাবে ভোল পাল্টে ফেলবে হয়তো সেটা হয়তো তাদের কল্পনাতেও ছিলো না।

ইমরানের সঙ্গে বৈঠকে ট্রাম্প বলেন, ‘আমি পাকিস্তানের উপরে ভরসা করি। আমি চাই কাশ্মীরের বাসিন্দারা ভালো থাকুক। প্রধানমন্ত্রী মোদি ও প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে আমার সম্পর্ক ভাল। তারা দু’জনেই যদি বলেন যে আমাদের একটা সমস্যা দূর করার আছে, তা হলে আমি সেটা করতে পারি।’ এ সময় ট্রাম্প আরো দাবি করেন, ‘আমি খুব ভালো মধ্যস্থতাকারী।’

এর আগে জুলাই মাসের শেষ দিকে ওয়াশিংটনে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে বৈঠকের সময় প্রথমবারের মতো কাশ্মীর সঙ্কট সামাধানে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে মধ্যস্থতা করার আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন ট্রাম্প।

তখন তিনি আরো দাবি করেন, ‘দু’সপ্তাহ আগে মোদির সঙ্গে আমার দেখা হয়েছিল। তিনি জানতে চান, আমি মধ্যস্থতা করতে রাজি কি না। আমি প্রশ্ন করি, কোন বিষয়ে? তিনি বলেন, কাশ্মীর। কারণ, বিবাদটা অনেক দিন ধরে চলছে। আমি তখন তাকে জানাই, মধ্যস্থতা করতে পারলে আমি খুশিই হব।’

তার প্রস্তাবে সঙ্গে সঙ্গে রাজি হন ইমরান খান। তবে নয়াদিল্লি এতে রাজি হয়নি। উল্টো ট্রাম্পের দাবিকে ‘মিথ্যা’বলে প্রত্যাখ্যান করে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এ নিয়ে দুই দেশের মধ্যে ব্যাপক ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয়। যদিও ট্রাম্পের দাবি নিয়ে মুখ খুলেননি মোদি। তবে এ ঘটনার মাত্র দিন কয়েক পরেই কাশ্মীরের ওপর থেকে ৩৭০ ধারাটি বাতিল বলে ঘোষণা করে ভারত।

কিন্তু তারপরও নিবৃত হননি ট্রাম্প, এরপর তিনি আরো একবার একই প্রস্তাব করেন।

এদিকে গত ৫ আগস্ট বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর থেকে কাশ্মীরে অচলাবস্থা বিরাজ করছে। অনেক এলাকায় এখনও বলবৎ আছে কারফিউ। আ’টক করা হয়েছে হাজার হাজার রাজনৈতিক নেতাদের। বিচ্ছিন্ন রয়েছে টেলিফোন ও ইন্টারনেট যোগাযোগ। বিদেশি তো দূরের কথা, ভারতের অন্য রাজ্য থেকেও কোনো সাংবাদিক, মানবাধিকার কর্মী বা বি’রোধী দলীয় নেতাদের সেখানে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। কেবল ক্ষতাসীন দল বিজেপির নেতা কর্মীদের সেখানে যেতে দেয়া হচ্ছে, যারা কাশ্মীরে স্বাভাবিক অবস্থা বিরাজ করার কথা জানিয়ে সেখানে নানা পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করছেন। এ অবস্থায় দিন কয়েক আগে কাশ্মীরের নিরীহ গ্রামবাসীদের ভারতীয় সেনাদের ওপর নির্মম নি’র্যাতনের খবর ছাপা হয়েছে খোদ ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমগুলোতেই।

 

 

‘বিদ্রঃ সমকালনিউজ২৪.কম একটি স্বাধীন অনলাইন পত্রিকা। সমকালনিউজ২৪.কম এর সাথে দৈনিক সমকাল এর কোন সম্পর্ক নেই।’

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বশেষ
আন্তর্জাতিক বিভাগের আলোচিত
ওপরে