২৩শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং ১০ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
সেফুদার বিরুদ্ধে ভিয়েনার আদালতে মামলা শ্রীলঙ্কা হামলার ‘মাস্টার মাইন্ড’ মাওলানা জাহরান... বগুড়ায় মদসহ তিন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার বগুড়ায় ছিনতাইচক্রের মূল হোতা আটক প্রেম বাড়াতে আসছে ‘ইনজেকশন’

ইমরান খানের সমর্থনে বিপাকে মোদি

 আন্তর্জাতিক ডেস্ক সমকাল নিউজ ২৪

নির্বাচন শুরুর একদিন আগে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের একটি মন্তব্যে বিতর্ক শুরু হয়েছে ভারতের রাজনৈতিক অঙ্গনে। ইমরানের মন্তব্যে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে একহাত নিয়েছেন তার বিরোধীরা।

বুধবার একদল বিদেশি সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ইমরান খান বলেছেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিজেপি ক্ষমতায় এলে নয়াদিল্লির সঙ্গে শান্তি আলোচনা শুরু করার ভালো সুযোগ তৈরি হবে।

নির্বানের ঠিক আগমুহূর্তে ইমরানের এ কথায় উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে ভারতের রাজনৈতিক অঙ্গন। কথায় কথায় বিরোধীদের ‘পাকিস্তানি’ বলে আক্রমণ করা মোদি এবার বিরোধীদের তোপের মুখে পড়েছেন।

কংগ্রেস থেকে শুরু করে আম আদমি পার্টি এবং কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহ ও মেহবুবা মুফতি সবাই মোদিকে আক্রমণ করেছেন।

কংগ্রেসের মুখপাত্র রন্দীপ সিং সুরুজওয়ালা টুইটারে বলেন, পাকিস্তান এখন সরকারিভাবে মোদির সঙ্গে জোট করেছে। মোদিকে ভোট দেয়া মানে পাকিস্তানকে ভোট দেয়া। সুরজওয়ালা আরও বলেন, প্রথমে নওয়াজ শরীফ মোদির বন্ধু ছিলেন। এখন ইমরান তার বন্ধু হয়েছেন। এই সত্যটা পৃথিবী জেনে গেল।

আম আদমি পার্টির প্রধান ও দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল বলেন, ইমরান খানের এ বক্তব্যের পর এখন সবাই এ বিষয়ে প্রশ্ন তুলছেন। মোদিজি দয়া করে বলুন কেন ইমরান খান আপনাকে প্রধানমন্ত্রী পদে দেখতে চাইছেন, আপনার সঙ্গে পাকিস্তানের কী সম্পর্ক, তাও জানান।

কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহ জানান, প্রধানমন্ত্রী সবসময় বলেন বিজেপিকে যারা হারাতে চায়, তারা পাকিস্তানের পক্ষে। অথচ এখন ইমরান খান সরাসরি মোদির দলের জয় চেয়ে বসলেন।

কাশ্মীরের আরেক সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি বলেন, মোদিভক্তরা এখন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে শুভেচ্ছা জানাবেন কি না বুঝতে পারছেন না!

একদল বিদেশি সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ক্রিকেটার থেকে প্রধানমন্ত্রী বনে যাওয়া ইমরান খান বলেছেন, যদি ভারতের আগামী সরকার কংগ্রেসের নেতৃত্বে গঠিত হয়, তবে কাশ্মীর নিয়ে ভারতের সঙ্গে একটি সমঝোতায় পৌঁছানো নিয়ে আতঙ্ক থেকে যাবে। কারণ তখন উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের কাছ থেকে বিরূপ প্রতিক্রিয়া আসার ভয় থাকবে। কিন্তু যদি ডানপন্থী বিজেপি বিজয়ী হয়, তবে কাশ্মীর নিয়ে কিছুটা সমঝোতায় পৌঁছানো সম্ভব হবে।

মোদির ভারতে কাশ্মীরসহ অন্য মুসলমানরা ব্যাপক নির্যাতনের ভেতর দিয়ে গেলেও কাশ্মীর নিয়ে আশার আলো দেখতে পাচ্ছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

‘ভারতে এখন যা ঘটছে, তা কখনোই আমার কল্পনায় ছিল না। সেখানে মুসলমানিত্ব আজ হামলার মুখে’- বললেন ইমরান।

তিনি বলেন, আমি জানতাম, কয়েক বছর আগেও ভারতীয় মুসলমানরা বেশ সুখী ছিলেন। কিন্তু উগ্র হিন্দুত্ববাদের বাড়বাড়ন্তের মধ্যে তারা এখন আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন। ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর মতোই মোদি আতঙ্ক ও জাতীয়তাবাদী অনুভূতির জিগির তুলে নির্বাচনে জিততে চাচ্ছেন।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
আন্তর্জাতিক বিভাগের আলোচিত
ওপরে