১৯শে জুলাই, ২০১৯ ইং ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
পঞ্চগড়ে মাতৃত্বকালীন ভাতা উত্তোলনে ভোগান্তি,দেখার কেউ... দাগনভূঞায় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে শোভাযাত্রা ও পোনা... ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে তরুণ প্রজন্ম নেটের বিভিন্ন... আমতলী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন হাজার- হাজার সমর্থকদের... বরগুনায় জব ফেয়ার অনুষ্ঠিত

কর্মচারীর সাথে মাকে আপত্তিকর মুহূর্তে দেখে ফেললো ছেলে, অতঃপর…

 অনলাইন ডেস্ক: সমকাল নিউজ ২৪
কর্মচারীর সাথে মাকে আপত্তিকর মুহূর্তে দেখে ফেললো ছেলে, অতঃপর…

মায়ের সঙ্গে কর্মচারীকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখে হঠাৎ আঁতকে উঠেছিলেন ছেলে। প্রথমে নিজের চোখকে বিশ্বাস করতে চাননি। কিন্তু সেটাই যে সত্যি। মায়ের সঙ্গে তার চেয়ে বয়সে ১৫ বছরের ছোট কর্মচারীর এই আচরণ মেনে নিতে পারেননি ভারতের যাদবপুরের বিজয়গড়ের যুবক সুরজিৎ কোলে। প্রতিবাদ করে উঠেছিলেন। আর সেটাই কাল হলো তার। খুন করা হলো তাকে।
তিনদিন আগে মায়ের সঙ্গে কর্মচারীকে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখে ফেলেন সুরজিত। তারই জেরে বৃহস্পতিবার সুরজিতকে খুন করে পালায় কর্মচারী সন্দীপ সর্দার। ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই এই খুনের কিনারা করে ভারতের যাদবপুর থানার পুলিশ।

শুক্রবার(১৪ জুন) বারাকপুরে বোনের বাড়ি থেকে সন্দীপকে গ্রেফতার করেছে স্থানীয় পুলিশ। তিনি পালানোর সময় সুরজিতের আলমারি থেকে যে টাকা ও গয়না লুট করেছিলেন, সেগুলোও উদ্ধার করা হয়েছে। গোটা ঘটনার কথা কি সুরজিতের মাও জানতেন? পুলিশকে ওই নারী জানান, যখন সন্দীপ সুরজিতকে খুন করছে, তখন তিনি পাশের ঘরে ঘুমাচ্ছিলেন। তার সঙ্গে যে সন্দীপের অবৈধ সম্পর্ক ছিল, তা তিনি স্বীকার করেন।

কিন্তু তার দাবি, তিনি খুনের বিষয়ে কিছু জানতেন না। যদিও এই তথ্য পুলিশ যাচাই করছে। জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে ওই নারীকে। সন্দীপের মোবাইল থেকে ওই নারীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অবস্থার বেশ কিছু ছবি পুলিশ উদ্ধার করেছে।

বৃহস্পতিবার নিজের বাড়িতে খুন হন ওই যুবক। একটি বঁটি দিয়ে তাকে আঘাত করে খুন করা হয়। পুলিশ তদন্ত শুরু করে জানতে পারে, সুরজিতের মোমোর দোকান আছে। সেখানে কাজ করে দক্ষিণ ২৪ পরগনার জীবনতলার বাসিন্দা সন্দীপ। খুনের পর থেকে তিনি নিখোঁজ। তাকে গ্রেফতার করার পর তিনি স্বীকার করেন যে, সুরজিতের সঙ্গে তার গোলমাল হয়। সুরজিতের বাবা তার মাকে ছেড়ে দিয়ে চলে যান। এরপরই সন্দীপের সঙ্গে ওই নারীর অবৈধ সম্পর্ক তৈরি হয়। ছেলে জেনে যাওয়ার পরই শুরু হয় সমস্যা। বাধা পেয়েই তিনি মালকিনের ছেলেকে খুন করেছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে