১৮ই এপ্রিল, ২০১৯ ইং ৫ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
যৌতুক দাবী করায় বরকে ন্যাড়া করে ফেরত পাঠালো কনে পক্ষ খুলনা সার্কিট হাউসে মতবিনিময় সভায় নিমন্ত্রন পেলেন... লাইভে কুরআন ছিড়ে টয়লেটে নিক্ষেপ সেফুদার, ফাঁসি দাবী বরগুনায় মানবিক সহায়তা’১৯ প্রকল্পের শিক্ষণ কর্মশালা... অনগ্রসর শিক্ষার্থীদের মাঝে স্কুল ব্যাগ ও খেলার সামগ্রী...

কালাইয়ে শিক্ষানুরাগী প্রধান শিক্ষকের অবসর গ্রহণ

 রনি আকন্দ সমকাল নিউজ ২৪

জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার সমশিরা দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক এ এইচ এম সিদ্দিকুর রহমান অবসর গ্রহন করেন।

১৯৯৩ সালে সমশিরা চৌধুরী পরিবারের এক শিক্ষানুরাগী ব্যক্তির অসিওতের ভিত্তিতে মহিয়সী নারী তার স্বামীর জমিদান অত:পর নিজ দায়িত্বে সমশিরা দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন এবং প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

তিনি শারীরিক,মানষিক সহ দিন-রাত শ্রম দিয়ে বিদ্যালয়কে সুপ্রতিষ্ঠিত করেছেন। প্রচার বিমুখ এই মানুষ শিক্ষা প্রচার ও প্রসারে নিরব বিপ্লবী ছিলেন।

ন্যায়-নীতি,আদর্শবান,অত্যান্ত সহজ-সরল,সাদা মনের মানুষ হিসেবে সুপরিচিত। তার পরও কিছু অসৎ মানুষ তাকে হয়রানি,অত্যাচার-নির্যাতন বিভিন্ন অন্যায় অপবাদ দিয়েছেন। যা তার অগ্রগতিতে দিতে পারেনি। অবসরে যাওয়ার আগ মহুত্ব পর্যন্ত এই বিদ্যালয়ে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

কালাই উপজেলার শিক্ষক পরিবারে একজন সুদক্ষ, সুপরামর্শক,দায়িত্বশীল শিক্ষক হিসেবে সুপরিচিত ব্যক্তি।

কালাই উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক-কর্মচারী সমিতি প্রতিষ্ঠার সময় গঠনতন্ত্র প্রনয়ণ করেন।

২০১১ সাল থেকে কালাই বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নিম্ন মাধ্যমিক ও মাধ্যমিক পাবলিক পরীক্ষা কেন্দ্রের প্রথমে হল সুপার ও পরবর্তীতে সহকারী সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

তিনি বৃহত্তর কালাই,পাচঁবিবি,গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন উচ্চ বিদ্যালয়ে সহকারী ও প্রধান শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন কারী সুনামধন্য ও সুপন্ডিত মরহুম ইনসের আলী মন্ডল (ইনসের মাষ্টার) এর সুযোগ্য সন্তান এ এইচ এম সিদ্দিকুর রহমান।

১৯৫৯ জন্ম সালে কালাই উপজেলার মাত্রাই ইউনিয়নের আশুরাইল গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন।

তিনি ১৯৭৯ সালে জয়পুরহাট সরকারি ডিগ্রি কলেজ হতে বি.এ পাশ করেন। মাত্র ২০ বৎসর বয়সে গ্রাজুয়েশন কমপ্লিট করেন। পরর্বতীতে বগুড়া নটট্টাম কলেজ থেকে বি.এড পাশ করেন।

১৯৮০ সালে পাঠানপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে (ক্ষেতলাল উপজেলা) ইংরেজি শিক্ষক হিসেবে যোগদান।

১৯৮২ সালে কাটাহার রাওফিয়া দাখিল মাদ্রাসা (কালাই উপজেলা) যোগদান করে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠায় মূখ্য ভূমিকা পালন করেন। তার হাতের লেখা ও আদর্শ প্রায় ছাত্র ই অনুকরণ করতেন।

এছাড়া কালাই, ক্ষেতলাল উপজেলার বড়তারা উচ্চ বিদ্যালয়, জামুড়া-বাসুড়া উচ্চ বিদ্যালয়, পুনট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, রাঘবপুর উচ্চ বিদ্যালয় সহ অসংখ্য বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত,এমপিও করনে মেধা ও শ্রম দিয়ে সুপ্রতিষ্ঠিত করতে অগ্রনী ভূমিকা পালন করেন।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
জয়পুরহাট বিভাগের সর্বশেষ
ওপরে