২২শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং ৭ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
বরগুনায় আদালতের নির্দেশে সন্তানের ম’রদেহ ফিরে পেলেন... ভারতে যাচ্ছেন চার জেলার ডিসি-এডিসিরা পতীতলায় ইউএনও সাথে গ্রাম পুলিশদের মতবিনিময় সভা সীমান্তে বিএসএফের গু’লিতে ঠাকুরগাঁওয়ের যুবক নি’হত  আলমপুুর ইউনিয়ন  বিএনপির ২১ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি...

কৌশলে স্বামীকে ঘর থেকে বের করে গৃহবধূকে ধর্ষণ

 নিজস্ব প্রতিবেদক সমকালনিউজ২৪

সিলেটের গোলাপগঞ্জের পল্লীতে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে সফাই মিয়া (৩২) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় আরো দুই আসামী পালাতক রয়েছেন বলে জানা যায়। পলাতক আসামীরা হলেন- আমুড়া নয়াটুল গ্রামের সুপার (২৭) ও একই উপজেলার

ইসলামটুল গ্রামের আত্তর আলীর ছেলে এমাদ (৩৫)। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার রাতে উপজেলার ঢাকাদক্ষিণ ইউপির ইসলামটুল গ্রামে। এ ব্যাপারে ধর্ষিতা বাদী হয়ে ৩ জনকে আসামী করে গোলাপগঞ্জ মডেল থানায় মামলা নং ৯ দায়ের করেছেন।জানা যায়, উপজেলার

ঢাকাদক্ষিণ ইউপির ইসলামটুল গ্রামের ধর্ষিতার স্বামী দেলওয়ার হোসেনের সাথে আটক সফাই মিয়া, একই এলাকার এমাদ ও আমুড়া নয়াটুল গ্রামের সুপার এর সাথে সু-সম্পর্ক থাকায় প্রায়ই তারা দেলওয়ার হোসেনের বাড়িতে যাতায়াত করতেন এবং কৌশলে তার স্ত্রীর মোবাইল নাম্বার সংগ্রহ করে নোংরা ভাষা ব্যবহারসহ নানাভাবে বিরক্ত করতেন।গত মঙ্গলবার রাত অনুমান ১১ টার দিকে সফাই মিয়া,
সুপার ও এমাদ সংঘবদ্ধ হয়ে ইসলামটুল এলাকায় যান এবং সুপার ও এমাদ দুইজন মিলে দেলওয়ার হোসেনকে কৌশলে বাড়ি থেকে বের করে এনে গল্প গুজব করে সময় কাটাতে থাকেন। ওই সুযোগে সফাই মিয়া গৃহবধুকে ঘরে প্রবেশ করে জোরপূর্বক ধর্ষণ করলে তার
চিৎকার শুনে পাশ্ববর্তী ঘরের লোকজন আসলে সফাই মিয়া পালিয়ে যায়।এ ব্যপারে ধর্ষিতা বাদী হয়ে গোলাপগঞ্জ মডেল থানায় সফাই মিয়াকে প্রধান আসামী করে মামলা নং ৯ দায়ের করেন। মামলার অন্যান্য আসামীরা হলেন- সুপার ও এমাদ। পুলিশ ধর্ষিতাকে মেডিকেল রিপোটের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।আটক সফাই মিয়ার বাড়ি একই উপজেলার ইসলামটুল গ্রামে। সে আখল মিয়ার ছেলে। পুলিশ রাতেই ধর্ষককে আটক করেছে বলে জানা যায়।এ ব্যাপারে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ দিলীপ কান্ত নাথের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনার স্বত্যতা স্বীকার করে এ প্রতিবেদককে জানান, ধর্ষক সফাইকে আটক করা হয়েছে। তাকে বৃহস্পতিবার বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হবে।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
সিলেট বিভাগ বিভাগের সর্বশেষ
ওপরে