২৩শে আগস্ট, ২০১৯ ইং ৮ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
বগুড়ার অ’বৈধ স্থা’পনা উ’চ্ছেদ করলেন ইউএনও ভ্রা’ম্যমান আদালত অ’ভিযান চালিয়ে দু’টি... ছাত্র-ছাত্রীদের ভোটের মাধ্যমে সেরা শিক্ষক নির্বাচিত স্কুল শিক্ষিকা জয়ন্তী রানী’র হ’ত্যাকারীদের ফা’সির... ভূরুঙ্গামারীতে কিশোরীকে ধ’র্ষণ শেষে হ’ত্যার...

গণমাধ্যম কর্মীকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে কুয়াকাটা মেয়র, লতাচাপলি ইউপি চেয়ারম্যানসহ ১৬ জনের নামে মামলা

 মনিরুল ইসলাম,কুয়াকাটা- প্রতিনিধি সমকাল নিউজ ২৪

কুয়াকাটা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতিকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে কুয়াকাটা পৌর মেয়র, লতাচাপলি ইউপি চেয়ারম্যান সহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। কলাপাড়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট এএইচএম ইমরানুর রহমান’র আদালত বুধবার (১২মে) মামলাটি আমলে নিয়ে ওসি মহিপুরকে তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন। যুগান্তর কুয়াকাটা প্রতিনিধি ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল সাগরকন্যা’র সম্পাদক নাসির উদ্দীন বিপ্লব এ মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, গত ২৭ জানুয়ারী ২০১৯ তারিখে দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার ২য় পৃষ্ঠার ২য় কলামে ’পুলিশের কেনা কোড়াল মাছ কেড়ে নিলেন মেয়র’ শিরোনামে কুয়াকাটা পৌরসভার মেয়র আবদুল বারেক মোল্লা’র বিরুদ্ধে সংবাদ ছাপা হওয়ার পর মেয়র ওই সাংবাদিকের উপর প্রচন্ডভাবে ক্ষিপ্ত হয়। তৎপ্রেক্ষিতে গত এপ্রিল ২০১৯ এ লতাচাপলী ইউনিয়ন পরিষদের এক সভায় মেয়র তার সহোদর ভ্রাতা লতাচাপলি ইউপি চেয়ারম্যান আনছার মোল্লাকে লাউড স্পিকারে সংশ্লিষ্ট সাংবাদিকের নাম উল্লেখ করে তার সাংবাদিকতার পেশা স্তব্দ করার হুকুম দেয়। পরবর্তীতে ১০ জুন রাত অনুমান ৯টার দিকে আলিপুর চৌরাস্তাস্থ দৈনিক যুগান্তর অফিস কক্ষের সামনে মেয়রের মুঠোফোনের নির্দেশনা ও হুকুমে লতাচাপলি ইউপি চেয়ারম্যানের পূর্ব পরিকল্পনায় ও উপস্থিতিতে আসামীরা সাংবাদিক বিপ্লবের পত্রিকা অফিসের সামনে এসে তাকে অশ্লীল ভাষায় ডাক চিৎকার করতে থাকে। এসময় সাংবাদিক বিপ্লব তার অফিস ঘর থেকে সামনে বের হওয়া মাত্র মেয়র পুত্র যুবলীগ নেতা মাসুদ মোল্লার নেতৃত্বে হামলা হয়।

কুয়াকাটা পৌর মেয়র আবদুল বারেক মোল্লা বিপ্লবের উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা অস্বীকার করে জানান, এটি স্থানীয় রাজনৈতিক বিরোধ। এছাড়া ১০ জুন রাতে ইউপি চেয়ারম্যান আনছার মোল্লার উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে।

মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: সাইদুল ইসলাম জানান, বিজ্ঞ আদালতের আদেশের কপি হাতে পেয়ে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
পটুয়াখালী বিভাগের সর্বশেষ
পটুয়াখালী বিভাগের আলোচিত
ওপরে