২৬শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং ১৩ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
মিলার স্বামীকে খোলামেলা ছবি পাঠাতেন নওশীন! অবশেষে শপথ নিলেন আমতলী উপজেলা চেয়ারম্যান ফোরকান বরগুনায় নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধে মানববন্ধন মঠবাড়িয়ায় পাঁচ বছরের শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে... মধ্যরাতে বন্ধ হচ্ছে ২২ লাখ ৩০ হাজার সিম

‘ঘনিষ্ঠ’ মেলামেশা, মসজিদের সামনে পাঁচ প্রেমিক যুগলকে প্রকাশ্যে বেত্রাঘাত

 আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সমকাল নিউজ ২৪
‘ঘনিষ্ঠ’ মেলামেশা, মসজিদের সামনে পাঁচ প্রেমিক যুগলকে প্রকাশ্যে বেত্রাঘাত

প্রকাশ্যে পরস্পরকে জড়িয়ে আলিঙ্গন করা, হাত ধরা ও শারীরিক সম্পর্কের দায়ে এবার বেত্রাঘাত করা হলো ইন্দোনেশিয়ার পাঁচ প্রেমিক যুগলকে। গতকাল বুধবার পাঁচ প্রেমিক যুগলকে মসজিদের বাইরে চার থেকে ২২ বার বেত্রাঘাত করা হয়।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য মেইলের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বুধবার বান্ডা আচে শহরের ধার্মিক পুলিশ ওই পাঁচ জুটিকে আলিঙ্গন ও হাত ধরতে দেখে আটক করেন। আচে শহরের ইসলামিক আইন অনুযায়ী, সেখানে বিবাহোত্তর শারীরিক সম্পর্ককে ঘোরতর অপরাধ হিসেবে দেখা হয়।

বুধবার মসজিদের বাইরে তাদেরকে শাস্তি দেওয়ার সময় শিশুসহ শত শত দর্শক উপস্থিত হন এবং পুরো প্রক্রিয়াটি তাদের মুঠোফোনে আবদ্ধ করেন।

শাস্তি দেওয়ার সময় শারিয়া কর্মকর্তা (যিনি বেত্রাঘাত করেন) মুখে মুখোশ পরে নেন এবং অপরাধীদের ব্যথায় জর্জরিত করেন। ব্যথায় বারবার আর্তনাদ করে উঠলেও চলতে থাকে একের পর এক বেতের আঘাত।

এক কর্মকর্তা বলেন, ‘আমরা বিশ্বাস করি ভবিষ্যতে এমন ধরনের ঘটনা আর ঘটবে না। এটা খুবই হতবুদ্ধিকর।’

অঞ্চলটিতে জুয়া, সমকামিতা, অ্যালকোহল সেবনের জন্যও বেত্রাঘাতের বিধান রয়েছে। বিশ্বের সবচেয়ে বেশি সংখ্যক মুসলিম ধর্মাবলম্বীর দেশ ইন্দোনেশিয়ার এই একটি প্রদেশেই ইসলামিক আইন মোতাবেক সবকিছু পরিচালিত হয়। প্রদেশটির রাজধানী বান্দা আচেহের একটি মসজিদের প্রাঙ্গণে এই প্রেমিক জুটিদের বেত দিয়ে পেটানো হয়।

প্রত্যেক অপরাধীর উপর এই বেত্রাঘাত চলে সর্বোচ্চ ২২বার পর্যন্ত। এটুকুই নয়, বেত্রাঘাত করবার পূর্বে এদের প্রত্যেককে কমবেশি ছয়-সাত মাস কারাদণ্ড ভোগ করতে হয়েছিল।

এর আগে গত ডিসেম্বর মাসে দুজন পুরুষকে সমকামী যৌনতার অপরাধে আটক করা হয় এবং শতবার বেত্রাঘাত করা হয়। এছাড়া জনসম্মুখে পরস্পরকে জড়িয়ে আলিঙ্গন করার অপরাধে গত মাসে আচেহ প্রদেশের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক প্রেমিক-প্রেমিকা জুটিকে ১৭ বার বেত্রাঘাত করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
আন্তর্জাতিক বিভাগের আলোচিত
ওপরে