১৭ই জুন, ২০১৯ ইং ৩রা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
সকলে ঐক্যবদ্ধভাবে সংগ্রাম করে গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে... বিদ্যালয়েে দেহব্যবসা চালাচ্ছেন দপ্তরি-নৈশপ্রহরী, শুনে... আমতলী উপজেলা পরিষদের উদ্যোগে বিদায়ী ও নবাগত নির্বাহী... রাজাপুরে ওয়ারেন্ডভুক্ত আসামী গ্রেফতার বগুড়ায় অবৈধভাবে বালু উত্তোলন নিয়ে সংঘর্ষ একজনকে...

ঘাটাইলে শীলাবৃষ্টিতে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

 এস এন খান রানা,ঘাটাইল সমকাল নিউজ ২৪

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে শীলাবৃষ্টিতে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে৷ উপজেলার রসুলপুর ও ধলাপাড়া ইউনিয়নের মেধার বিল ও চাপড়া বিল সহ বেশ কয়েকটি বড় বড় বিলের এবং পার্শবর্তী সখীপুর উপজেলার ইন্দ্রাজানি ইউনিয়নের হাজার হাজার একর জমির ধান তলিয়ে গেছে৷

কৃষি প্রধান দেশে কৃষকদের যখন একমাত্র ভরসা ধান সেখানে এসব অঞ্চলে বোরো ধান তলিয়ে যাওয়ায় স্থানীয় কৃষকদের শেষ সম্বলটুকুও আর ঘরে ফিরলো না৷ গত কয়েক দিনের পর পর দুই দফা শীলাবৃষ্টিতে যেমন নিম্নাঞ্চলের ধান তলিয়ে গেছে ঠিক তেমনি উচু অঞ্চলের ধানের শীষ গুলো বের হওয়ার আগেই শীলাবৃষ্টির আক্রমনে ছিন্নভিন্ন৷

কৃষকরা চৈত্রমাসকে যেমন খড়ার জন্য হাহাকার করতো এবার তার বিপরীত আকার ধারন করেছে প্রকৃতি সামান্য বৃষ্টিতেই নিম্নাঞ্চলের সব ধান পানির নিচে৷

এসব এলাকায় সরোজমিনে গিয়ে স্থানীয়দের সাথে কথা বললে তারা জানান, ঘাটাইলের রসুলপুর ইউনিয়নের নেদার বিল থেকে একটি খাল প্রবাহিত হয়ে ধলাপাড়ার চাপড়া বিল দিয়ে সখিপুর উপজেলায় পতিত হয়েছে৷ কিন্তু কিছু প্রভাবশালী অসাধু লোকজন খালটি ভরাট করে ফেলেছে৷ যার ফলে এসব এলাকার নিম্নাঞ্চলের পানি নিষ্কাশনের মাত্রা কমে গেছে বা বিঘ্নিত হচ্ছে৷ যার জন্য অল্প বৃষ্টিতে পানি জমে ফসলের জমি তলিয়ে যাচ্ছে৷

ভুক্তভোগী হাসেম মিয়া জানান, তিনি একজন সাধারন কৃষক। তার সম্বল বলতে বিলের রোরো ধান তবে তলিয়ে যাওয়ায় তার সম্বলটুকু আর রইলো না৷ প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষন করে এর জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য আকুল আবেদন করেন৷

কাঠালিয়া আটা গ্রামের রফিক মাস্টার জানান, খালটি কিছু অসাধু লোকেরা ভরাট করায় পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা নাই বললেই চলে। তাই পানি জমার ফলে স্বল্প বৃৃষ্টিতেই বিলের জমির ধান তলিয়ে যায়৷

স্থানীয়দের দাবী প্রশাসন যেন দ্রুত প্রদক্ষেপ গ্রহন করে খালটি খননের মাধ্যমে পানির প্রবাহ গতিশীল করে। যেন আগামী বোরো ফসল ভালোভাবে কৃষক ঘরে তুলতে পারেন৷

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
টাঙ্গাইল বিভাগের সর্বশেষ
টাঙ্গাইল বিভাগের আলোচিত
ওপরে