১৭ই জুন, ২০১৯ ইং ৩রা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
বগুড়ায় বিএনপি ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মীদের সংঘর্ষ,... মাতালের কাছে রেহাই পেল না গর্ভবতী ছাগলও! তালতলী উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ইসি কর্তৃক বাতিল হওয়ার ৪৮... কাউখালীতে আইন শৃঙ্খলা সভা অনুষ্ঠিত আদালতে সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম

ছোট ভাইকে মারার প্রতিবাদ করায় বড় ভাইকে কুপিয়ে রক্তাক্ত যখম।

 মোঃ সাইদুল ইসলাম,রাজাপুর প্রতিনিধি, ঝালকাঠি। সমকাল নিউজ ২৪

ঝালকাঠির রাজাপুরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে অসুস্থ্য থাকা ছোট ভাইকে মারার বিষয়ে জানতে চাইলে বড় ভাইকে কুপিয়ে রক্তাক্ত যখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। রবিবার রাত ৮ টার দিকে উপজেলার সদরের সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসের উত্তর পাসে এ ঘটনা ঘটে। এতে উপজেলার চর ইন্দ্রপাশা গ্রামের মোঃ গোলাম ফারুকের ছেলে ফরিদুল ইসলাম রাজু (৩০) রক্তাক্ত যখম হয়। আহত ফরিদুল ইসলাম বর্তমানে রাজাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। ফরিদুল ইসলাম জানান, উপজেলার পুর্ব ইন্দ্রপাশা গ্রামের ইসাহাক ফরাজীর ছেলে ও রাজাপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরিক্ষার্থী গফুর রবিবার দুপুরের দিকে ফরিদুল ইসলামের ছোট ভাই একই বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর ছাত্র (দীর্ঘদিন অসুস্থ্য থাকা) মোঃ সাব্বির হোসেনকে মারধর করে। এ ঘটনা ফরিদুল ইসলাম শোনার পরে বিকেলে গফুরের কাছে মারধর করার ঘটনা জানতে চাইলে গফুর ফরিদুল ইসলাম এর উপড় ক্ষিপ্ত হয়ে পকেটে থাকা একটি চাকু বের করেই ফরিদুল ইসলামকে আঘাত করে পরে ডাকচিৎকারে স্থানীয় লোকজন আসলেই গফুর পালিয়ে যায়। এরপর আবার রাতে ফরিদুল ইসলাম থানার সামনে থেকে বাসায় যাওয়ার পথে হঠাৎ পিছন থেকে মোটর সাইকেলে এসে গফুর ও তার সাথে থাকা পুর্ব ইন্দ্রপাশা গ্রামের মোদারেচ এর ছেলে মারুফ এবং কামরুল হোসেন এর ছেলে সাব্বির হামলা চালায়। এতে ফরিদের হাত ও পায়ে কোপসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত যখম হয়। পরে স্থানীয়রা আহত ফরিদুল ইসলামকে উদ্ধার করে রাজাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায়।

স্থানীয়রা জানান, গফুর ওরফে মাস্তান গফুর লেখাপড়া করে নামে মাত্র, ও নিজেকে ছাত্রলীগের নেতা দাবী করে দীর্ঘদিন উগ্র হয়ে মারামারি কাটাকাটি সহ সদরের গালর্স স্কুলের সামনে বসে বিভিন্ন মেয়েদের উত্তাক্ত করে থাকে। এমনকি ওর নামে থানায় মারামারির মামলা সহ কয়েকটি অভিযোগ আছে।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত গফুরের মতামত জানতে চাইলে তার ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বারটিতে (০১৭৫২৫৪৫৭৯৮) একাদিক বার কল দিলেও বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে রাজাপুর থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ জাহিদ হোসেন জানান, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে