৬ই জুন, ২০২০ ইং ২৩শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
চলতি মাসেই পোশাক শ্রমিক ছাঁটাই হবে : রুবানা হক বগুড়ায় সাংবাদিক অধ্যাপক মোজাম্মেল হকে’র মৃ’ত্যু সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রীর জন্য দোয়া চেয়েছেন মোহনপুর... ভারত সীমান্তে পারমাণবিক অ’স্ত্রের সমাবেশ চীনের! এমপি ফজলে করিমের ভাইয়ের মৃ’ত্যুতে তথ্যমন্ত্রীর শোক!

জাতীয় পর্যায়ে স্বাধীনতা পুরষ্কার পাচ্ছেন টাঙ্গাইলের মির্জাপুরের ভারতেশ্বরী হোমস কুমুদিনীতে বইছে উৎসবের আমেজ।

  সমকালনিউজ২৪

মোহাম্মদ মোজাম্মেল হক,টাঙ্গাইল ::

দানবীর রণদা প্রসাদ সাহা (রায় বাহাদুর) প্রতিষ্ঠিত নারী বান্ধব শিক্ষা ভারতেশ^রী হোমস জাতীয় পর্যায়ে এ বছর স্বাধীনতা পুরষ্কার পাচ্ছেন। মহান মুক্তিযুদ্ধে বিশেষ অবদান, নারী শিক্ষা, নারী জাগরণ, নারী উন্নয়ন ও সমাজ গঠনে অগ্রনী ভুমিকা রাখায় এ বছর নারী বান্ধব ব্যাতিক্রমধর্মী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভারতেশ্বরী হোমসকে সরকার স্বাধীনতা পুরষ্কার দিচ্ছেন । গতকাল বৃহস্পতিবার মন্ত্রী পরিষদ বিভাগ স্বাধীনতা পুরষ্কারের জন্য টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার ভারতেশ্বরী হোমসের নাম ঘোষনা করেছেন। পুরষ্কার ঘোষনার পর থেকেই কুমুদিনী কমপ্লেক্সে ছড়িয়ে পরেছে উৎসবের আমেজ।

ভারতেশ^রী হোমস একটি ব্যতিক্রমধর্মী নারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। উপ মহাদেশের প্রখ্যাত দানবীর ও কুমুদিনী ওয়েল ফেয়ার ট্রাষ্ট্র অব বেঙ্গল (বিডি) লি. এর প্রতিষ্ঠাতা মহান ব্যক্তি রণদা প্রসাদ সাহা (রায় বাহাদুর) লৌহজং নদীর কুল ঘেষে মনোরম পরিবেশে বিশাল এলাকা নিয়ে ১৯৪৫ সালে ভারতেশ্বরী হোমস প্রতিষ্ঠা করেন। কুমুদিনী কমপ্লেক্সেরর ভিতরে সম্পুর্ন আবাসিক এই নারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৫ জন ছাত্রী নিয়ে এর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়েছিল। এখন এর ছাত্রী সংখ্যা প্রায় ৮০০শ। এখানে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী, ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মোখার্জি, সাবেক প্রধান মন্ত্রী জিয়াউর রহমান, এ এইচ এম এরশাদ, বেগম খালেদা জিয়া ও সর্বশেষ ২০১৯ সালের ১৪ মার্চ প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার ছোট শেখ রেহানা ভারতেশ্বরী হোমসের একটি পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এসেছিলেন।

ভারতেশ্বরী হোমসের সাবেক ছাত্রী ও উপাধাক্ষ এবং বর্তমানে উপদেষ্টা মিস উলফাতুন নেছা জানান, দানবীর রণদা প্রসাদ সাহা সেবার ব্রত নিয়ে ভারতেশ্বরী হোমস প্রতিষ্ঠান করেছিলেন। তার মুল উদ্যেশ্য ও লক্ষ ছিল সমাজের অসহায় নারীদের শিক্ষিত করে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দেওয়া। শিক্ষার পাশাপাশি এখানে ছাত্রীদের আদর্শ ও সু-নাগরিক হিসেবে গড়ে তোলা হয়। নার্সারী থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত ছাত্রীরা এখানে শিক্ষার সুযোগ পেলে আসছে। রয়েছে দক্ষ পরিচালনা পরিষদ এবং শিক্ষক। ৫ম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত সম্পুর্ন আবাসিক নারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভারতেশ্বরী হোমসের ছাত্রীরা শিক্ষার সুযোগ পেয়ে আসছে। কঠোর নিয়ম শৃঙ্খলা ও নিয়মানুবর্তিতার মধ্যে ছাত্রীদের আদর্শ হিসেবে গড়ে তোলা হয়। শিক্ষার পাশাপাশি এখানে খেলাধুলা, সাংস্কৃতিক চর্চাসহ বিভিন্ন বিষয়ে ছাত্রীদের শিক্ষা দেওয়া হয়। জাতীয় পর্যায়ে মনোজ্ঞ ড্রিস প্লে প্রদর্শনহ সরকারের বিভিন্ন গুরুত্বপুর্ন অনুষ্ঠানে হোমসের ছাত্রীরা অংশ নিয়ে আসছে। ১৯৭১ সালে ভারতেশ্বরী হোমসের ছাত্রীরা মহান মুক্তিযুদ্ধে অগ্রণী ভুমিকা পালন করেছিলেন। তাদের মধ্যে অন্যতম হলেন, মিসেস জয়া, বিজয়া ও মিস প্রতিভা মুৎসুদ্দি।

ভারতেশ্বরী হোমসের সাবেক অধ্যক্ষ ও শিক্ষা পরিচালক মিস প্রতিভা মুৎসুদ্দি বলেন, কুমুদিনী কমপ্লেক্স সেবাধর্মী প্রতিষ্ঠান। এখানে কুমুদিনী হাসপাতাল, কুমুদিনী নার্সিং স্কুল ও কলেজ, রণদা প্রসাদ সাহা বিশ্ববিদ্যালয়, কুমদিনী ফার্মা, কুমুদিনী উইমেন্স মেডিকেল কলেজসহ নারীদের উন্নয়ন ও শিক্ষার জন্য বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান রয়েছে। তাদের মধ্যে ভারতেশ্বরী হোমস অন্যতম। ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় কুমুদিনী ওয়েল ফেয়ার ট্রাষ্ট্র অব বেঙ্গল (বিডি) লি. এর প্রতিষ্ঠাতা ও আমাদের জেঠামুণি রণদা প্রসাদ সাহা ও তার একমাত্র কর্মক্ষম পুত্র ভবানী প্রসাদ সাহা রবিকে পাকিস্থানী হানাদার বাহিনী ও এদেমেল কিছু রাজাকার আল বদর বাহিনী ধরে নিয়ে যায়। আজও তাদের কোন খোঁজ মিলেনি। অনেক চড়াই উৎরাই পেরিয়ে জেঠামণীর উত্তরসুরী ও পৌত্র রাজিব প্রসাদ সাহা এবং তার মা শ্রী মতি সাহাসহ কুমুদিনী পরিবারের সকল সদস্যগন অক্লান্ত পরিশ্রম করে ভারতেশ্বরী হোমসসহ প্রতিটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান টিকিয়ে রেখেছেন। চিকিৎসা, সমাজ সেবা, নারী শিক্ষাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য সরকার ১৯৯৪ সালে কুমুদিনী ওয়েল ফেয়ার ট্রাষ্ট্র অব বেঙ্গল (বিডি) লিমিটেডকে স্বাধীনতা পদক দিয়েছিলেন। একই প্রতিষ্ঠানের কর্নধার মিস প্রতিভা মুৎসুদ্দিকে ২০০২ সালে একুশে প্রদক প্রদান ও শ্রী মতি সাহাকে ২০০৫ সালে রোকেয়া পদকে ভুষিত করেন সরকার। ২০২০ সালের সালের জন্য ভারতেশ্বরী হোমসকে স্বাধীনতা পদকে ভুষিত করায় বর্তমান সরকার ও মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর নিকট চির কৃতজ্ঞতার কথা জানিয়েছেন কুমুদিনী পরিবারের সদস্যগন।

এ ব্যাপারে কুমুদিনী হাসপাতালের পরিচালক ডা. প্রদীপ কুমার রায় ও ভারতেশ্বরী হোমসের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মি. অমলেন্দু সাহা বলেন, ২০ ফেব্রুয়ারি মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের পক্ষে অতিরিক্তি সচিব মোসাম্মৎ নাসিমা বেগম প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিশেষ অবদানের জন্য ৯ জন ব্যক্তি ও একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম স্বাধীনতা পদকের জন্য ঘোষনা করেছেন। ভারতেশ্বরী হোমস পদক প্রাপ্তিতে আমরা আনন্দিত হয়েছি। এ বছর যারা স্বাধীনতা পদক পাচ্ছেন তারা হলেন- স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধে অবদানের জন্য গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক) এমপি, মরহুম কমান্ডার (অব.) আব্দুর রউফ, মরহুম মুহাম্মদ আনোয়ার পাশা ও মরহুম আজিজুর রহমান। চিকিৎসায় অধ্যাপক ডা. মো. উবায়দুল কীব চৌধুরী ও ডা. এ. কে. এম. এ. মুকতাদির। সাহিত্যে এস এম রউজ উদ্দিন আহমেদ। সংস্কৃতিতে কালীপদ দাস ও ফেরদৌসী মজুমদার। শিক্ষায় নারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভারতেশ্বরী হোমস। আগামী ২৫ মার্চ ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে মাননীয় প্রধান জননেত্রী শেখ হাসিনা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে পুরষ্কার প্রাপ্তদের মধ্যে পুরষ্কার তুলে দেবেন বলে হোমসের সিনিয়র শিক্ষিকা কবি ও সাহিত্যিক হেনা সুলতানা জানিয়েছেন।।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
টাঙ্গাইল বিভাগের সর্বশেষ
টাঙ্গাইল বিভাগের আলোচিত
ওপরে