১৭ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং ২রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
বাংলাদেশ সফরে যাচ্ছেন নিউইয়র্কের ৫ জন ষ্টেট সিনেটর ফরাশী ভাষায় নির্মিত তথ্য চিত্র প্রদর্শনী, উদীয়মান... রি’ফাত হ’ত্যা মা’মলার প্রধান আ’সামির জা’মিন... স্পেনে টাইগার মাদ্রিদের নতুন জার্সি উন্মোচন ও... দ্বিতীয় বারের মত শুভসন্ধ্যা সৈকতে হতে যাচ্ছে জোছনা উৎসব

জৈন্তাপুরে ধ’র্ষন মা’মলার আসামী মারুফ গ্রে’ফতার

 শোয়েব উদ্দিন,জৈন্তাপুর, সমকালনিউজ২৪

সিলেটের জৈন্তাপুরে তরুণীকে জোর পূর্বক সিএনজি অটোরিক্সায় তুলে নিয়ে কয়েক দফা ধ’র্ষন করা সেই অভিযুক্ত ধ’র্ষককে গ্রে’ফতার করেছে জৈন্তাপুর মডেল থানা পুলিশ। সিলেট জেলার নাইওরপুল এলাকায় একক অ’ভিযান পরিচালনা করে ধ’র্ষককে গ্রে’ফতার করা হয়েছে। ওই ধ’র্ষকের বাড়ী উপজেলার দরবস্ত ইউনিয়নের ছাতারখাই গ্রামে।সে মৃ’ত আলাউর রহমানের ছেলে মারুফ আহমদ (২০)।

জৈন্তাপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শ্যামল বনিক গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারেন ধ’র্ষক মারুফ আহমদ সিলেট শহরের নাইওরপুল এলাকায় অবস্থান করছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শ্যামল বনিক এসএমপি পুলিশের সহায়তায় (১৫ সেপ্টেম্বর) রোববার রাত সাড়ে ৮টায় অপারেশন একদল পুলিশ নিয়ে অ’ভিযান চালিয়ে ধ’র্ষক মারুফ আহমদকে গ্রে’ফতার করেন। ওই অভিযুক্ত ধ’র্ষককে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, উপজেলা দরবস্ত ইউনিয়নের ছাতারখাই গ্রামের হতদরিদ্র কৃষক পরিবারের মেয়ে। তার বসত বাড়ীর আঙ্গীনায় রোদ্রে শুকানো কাপড় আনতে গেলে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী উৎ পেতে থাকে নারী লোভী মারুফ আহমদ। ঐ তরুণীকে ঝাপটে ধরে মুখ বেঁধে নাম্বর বিহীন সিএনজি গাড়ীতে তুলে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে তরুণীকে কয়েক দফা ধ’র্ষন করে।

এদিকে বাড়ীর লোকজন তরুণী মেয়েকে না পেয়ে সম্ভাব্য সকল স্থানে খোঁজে থাকেন। খুজাখুজির একপর্যায় মধ্যে গভীর রাতে মুখ বাঁধা অবস্থায় বাড়ীর নিকটবর্তী রাস্তার মধ্যে পুনরায় সিএনজি যোগে এনে ফেলে যায় মারুফ আহমদ। ঘটনাটি জৈন্তাপুর মডেল থানায় অবহিত করলে পুলিশ হেফাজতে তরুণীকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওসিসিতে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় মেয়ের পিতা বাদী হয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানায় অ’ভিযোগ দিলে পুলিশ অ’ভিযোগটি নারী ও শিশু নি’র্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী/০৩) এর ৭/৯(১) ধারায় মা’মলা হিসাবে রেকর্ড করে (যাহার নং-১০)।

ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শ্যামল বনিক জানান, ইতোমধ্যে পর পর আমার থানা এলাকায় একটি অ’পহরন এবং দুটি ধ’র্ষন মামলা হয়। থানা পুলিশে অ’ভিযান পরিচালনা করে আসামী আ’টক করে ভিকটিম উ’দ্ধার করে। গোপন সংবাদে ভিত্তিত্বে আমি ধ’র্ষকের অবস্থান যানতে পেরে সিএমপি’র সহায়তায় থাকে আ’টক করি। ১৬ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টায় আদালতে প্রেরণ করি। ভিকটিম ওসিসিতে ভর্তি রয়েছে।

 

‘বিদ্রঃ সমকালনিউজ২৪.কম একটি স্বাধীন অনলাইন পত্রিকা। সমকালনিউজ২৪.কম এর সাথে দৈনিক সমকাল এর কোন সম্পর্ক নেই।’

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
সিলেট বিভাগের আলোচিত
ওপরে