২৬শে মে, ২০১৯ ইং ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
সদরঘাট জিম্মি ‘খলিফা বাহিনী’র হাতে কৃষকের ঘরে বিয়ের ১১ বছর পর এক সঙ্গে চার সন্তান বাংলাদেশীদের পদচারণায় জমজমাট কলকাতার ঈদ বাজার! স্বামী সন্তানের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের... হঠাৎ কোটিপতি হয়ে যাওয়া এক নেতা

জয়পুরহাটে দু’দিনের শিবরাত্রির উৎসব।

 জয়পুরহাট প্রতিনিধি। সমকাল নিউজ ২৪

হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্যতম বৃহৎ তীর্থস্থান বেলআমলা বারশিবালয় মন্দিরে শুরু হয়েছে দু’দিনব্যাপী শিবরাত্রি উৎসব ও মেলা । দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত হিন্দু ভক্তদের পদভারে এখন মুখরিত বেলআমলার বারশিবালয় প্রাঙ্গন।

৪ মার্চ সোমবার ভোর থেকে শুরু হয়েছে মেলাটি।

জয়পুরহাট জেলা শহর থেকে ৩ কিলোমিটার উত্তরদিকে অবস্থিত বেলআমলা বারশিবালয় মন্দির। যার আধা কিলোমিটারের মধ্যে রয়েছে একশিব মন্দির ও পাঁচশিব মন্দির নামে আরো দুটি মন্দির।

ফাল্গুনের চতুর্দশীতে শিবরাত্রি উপলক্ষে প্রায় তিন শত বছরের পুরনো ঐতিহ্য হিসেবে প্রতিবছরের ন্যায় এবারও ৪ প্রহরব্যাপী পূজার পাশাপাশি মেলার আয়োজন করা হয়েছে দু’দিন ব্যাপী । দুর দুরান্ত থেকে আগত ভক্তদের এখানে থাকা– খাওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। মনের নানা বাসনা পুরণের আশায় পূন্নার্থীরা বারশিবালয়ের উত্তর পাশ ঘেঁসে বয়ে যাওয়া ছোট যমুনা নদীর পানিতে বারুনী শেষে পূজা অর্চনা শুরু করেন।

মেলায় রয়েছে বিভিন্ন রকমের চামুচ, খন্তা, বেরী, দা, বটি, হাসুয়া, পান কাটি, পূজার ঘরের সাজ, বাঁশ–বেতের তৈরি জিনিস পত্র । এ ছাড়াও কাঠের ও লোহার তৈরি বিভিন্ন ধরনের আসবাবপত্র পাওয়া যায়। শিশুদের খেলনা, শাঁখা–সিঁদুরসহ মিষ্টি–মিষ্টান্নও পাওয়া যায় এখানে।

শিবরাত্রি উৎসব হিন্দু, বিশেষ করে মাড়োয়ারি সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব হলেও বারশিবালয় মন্দির প্রাঙ্গন পরিণত হয়েছে হিন্দু–মুসলিমের অসাম্প্রদায়িক মিলন মেলায় ।

৫ মার্চ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জয় মা কালীর অমাবশ্যা পূজার মধ্য দিয়ে পুন্নার্থীদের মিলন মেলা শেষ হবে। সুষ্ঠুভাবে শিবরাত্রি উদযাপনে পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশও মোতায়েন করা হয়েছে। বারটি শিবমন্দির একসঙ্গে থাকায় এর নাম হয় বারশিবালয়। কত বছর আগে এটি নির্মিত তা সঠিকভাবে জানা না গেলেও প্রায় তিন শত বছর আগের তৈরি বলে মনে করেন বারশিবালয় মন্দির কমিটির সদস্যরা।

হিন্দু সম্প্রদায়ের তীর্থস্থান বারশিবালয় মন্দিরে শিবরাত্রি উৎসব ও মেলায় সকল ধর্মের লোকজন অংশগ্রহণ করে থাকেন বলে জানান, বারশিবালয় মন্দির কমিটির সভাপতি তারা চাঁদ বাজলা ।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে