২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং ৬ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
চাঁদপুরে ইলিশের আমদানী বাড়লেও দাম না কমায় হতাশ ক্রেতারা আত্রাইয়ে পানিতে ডুবে মাদ্রাসা ছাত্রীর মৃ’ত্যু; ১৯... পাইকগাছায় ভুয়া ঠিকানা দিয়ে বিয়ে করে দুই লক্ষ টাকা... বাল্যবিবাহ-ই’ভটিজিং-স’ন্ত্রাস ও মা’দক প্রতিরোধে... বরগুনায় ৬ষ্ট শ্রেনীর মাদরাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টার ...

ট্রাক উল্টে ১৩ ঘুমন্ত শ্রমিক নিহত।

 বারী উদ্দিন আহমেদ বাবর, কুমিল্লা প্রতিনিধি। সমকালনিউজ২৪

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে কয়লাবাহী একটি ট্রাক উল্টে ১৩ জন ঘুমন্ত শ্রমিক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও দুইজন। কাজী অ্যান্ড কোং নামের একটি ইটভাটার মেসে ওই ট্রাকটি উল্টে পড়লে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে। শুক্রবার (২৫ জানুয়ারি) সকাল ৬টার দিকে উপজেলার ঘোলপাশা ইউনিয়নের নারায়ণপুর গ্রামে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

 

নিহতরা হলেন- নীলফামারির জলঢাকা উপজেলার শিমুল বাড়ীর মৃনাল চন্দ্র রায় (২১) ও মনোরঞ্জন চন্দ্র রায় (১৯), নিজপাড়ার সুরেশ চন্দ্র রায়ের ছেলে রঞ্জিত চন্দ্র রায় (৩০), জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে মোহাম্মদ সেলিম (২৮), সুনীল চন্দ্র রায় ছেলে তরুণ চন্দ্র রায় (২৫), কুড়াপাড়ের অমল চন্দ্র রায়ের ছেলে দীপু চন্দ্র রায় (১৯), একই গ্রামের রাম প্রসাদের ছেলে বিপ্লব (১৯), কৃশব চন্দ্র রায়ের ছেলে শঙ্কর রায় (২২), কামিক্ষার ছেলে অমৃত চন্দ্র রায় (২০), রাজবাড়ীর দিয়া বাড়ীর বিকাশ চন্দ্র রায়(২৮), একই গ্রামের ধলু চন্দ্র রায়ের ছেলে কনক চন্দ্র রায় (৩৫), পাঠানপাড়ার ফজলুল করিমের ছেলে মাসুম মিয়া (১৮) ও পাঠানপাড়ার নূর আলমের ছেলে মোহাম্মদ মোরসালিন (১৮)। নিহত ও আহতরা সবাই স্থানীয় কাজী অ্যান্ড কোং নামে একটি ইট ভাটার শ্রমিক বলে জানিয়েছে পুলিশ।

 

খবর পেয়ে চৌদ্দগ্রাম ফায়ার সার্ভিস ও থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ১২ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে আরও ৩ শ্রমিককে জীবিত উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সেখানে নেয়ার পর আরো একজনকে মৃত ঘোষনা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

 

কুমিল্লার জেলা প্রশাসক (ডিসি) আবুল ফজল মীর, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল্লা আল মামুন ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শহিদুল ইসলামসহ প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর লোকজন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

 

চৌদ্দগ্রাম থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শুভরঞ্জন চাকমা মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, উপজেলার নারায়ণপুর গ্রামে কয়লা বোঝাই একটি ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশে ইটভাটার শ্রমিকদের থাকার ঘরের উপর উল্টে পড়ে যায়। এসময় শ্রমিকরা ঘুমিয়ে ছিল। এ ঘটনায় ১২ শ্রমিক ঘটনাস্থলে মারা যান। গুরুতর আহত অবস্থায় আরও তিনজনকে হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক একজনকে মৃত ঘোষণা করেন।

 

এ বিষয়ে কুমিল্লার জেলা প্রশাসক (ডিসি) আবুল ফজল মীর বলেন, নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্রাক উল্টে ১৩ জন শ্রমিক নিহত হয়েছেন। নিহতরা সবাই পুরুষ। নিহতদের গ্রামের বাড়ি নীলফামারির জলঢাকায় বলে শুনেছি। এ ঘটনায় আমরা মর্মাহত। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে শোক প্রকাশ করছি। নিহত ১৩ শ্রমিকের প্রত্যেক পরিবারকে ২০ হাজার টাকা করে নগদ সহায়তা ও আহতদের উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে বলেও জানান তিনি।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
কুমিল্লা বিভাগের সর্বশেষ
কুমিল্লা বিভাগের আলোচিত
ওপরে