২৪শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং ১১ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
ধেয়ে আসছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় প্রেমিকের প্রতারণা, ভিডিও কলে জীবন দিল ইডেন ছাত্রী! রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন, মসজিদসহ ৩০ ঘর ভস্মীভূত রাজশাহীর চারঘাটে মানসম্মত প্রাথমিক শিক্ষা নিশ্চিতকরণে... দুর্গাপুরে কিশোরী ধর্ষিত; ৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বা

ঠাকুরগাঁওয়ের মেলায় চলছে হাউজি খেলা, অনুমতি নেই বললেন-জেলা প্রশাসক কামরুজ্জামান।

 মোঃ ইলিয়াস আলী/ নিজস্ব প্রতিবেদক। সমকাল নিউজ ২৪

মাথায় নষ্ট মামা বাদ দিয়ে এবার শোনা যাচ্ছে“বেলা উঠে যাবে ভাইয়া, সারা রাতে থাকবে হাউজি মোদি ভাইদের জন্য বাম্পার আর মিনি বাম্পার”। ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী বাজারে কানপাতলেই শোনা যাচ্ছে এসব কথা। বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার পাড়িয়া মেলা ও রানীশংকৈল উপজেলার মহারাজা মেলায় চলছে হাউজি বাম্পার।

বৃহস্পতিবার বিকাল থেকে বালিয়াডাঙ্গী চৌরাস্তা এবং আশপাশের বাজারগুলোতে বিকট শব্দে এমন মাইকিং শোনা যাচ্ছে। হাউজি জুয়ার অংশ নিয়ে একদিকে যেমন শেষ হচ্ছে সাধারণ মানুষ অন্যদিকে চরম বিপাকে পড়েছে এসএসসি পরীক্ষার্থীরা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার পাড়িয়া ইউনিয়নের বরমতোল এলাকায় গত ১৫ জানুয়ারী থেকে চলছে আনন্দমেলা। ২৩ জানুয়ারী থেকে ওই মেলায় শুরু হয়েছে র‍্যাফল ড্র’য়ের নামে লটারী। মুক্তিযোদ্ধাদের নাম ভাঙ্গিয়ে মেলার আয়োজক স্থানীয় একদল তরুণ। বৃহস্পতিবার রাতে এখানে হাউজি খেলা শুরু হবে মর্মে মাইকিং শুরু হয়। মেলায় হাউজির জন্য বানানো হয়েছে প্যান্ডেল। অন্যদিকে রানীশংকৈল উপজেলার মহারাজা হাট নামক স্থানে গত দু’দিন ধরে চলছে হাউজি।

পাড়িয়া এলাকার এসএসসি পরীক্ষার্থী শাহ আলম বলেন, যাত্রার অশ্লীল নৃত্য আর মাইকের বিকট শব্দের জন্য বালিয়াডাঙ্গীতে এসে ম্যাচে উঠেছি। এখানেও ঠিকমত পড়াশোনা করা যাচ্ছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রধান শিক্ষক বলেন, মেলার নামে যে অশ্লীল নৃত্য চলছে। এতে করে সকালে ছেলে-মেয়েদের সামনে দাঁড়াতেই নিজেকে খুব ছোট মনে হচ্ছে। জানিনা প্রশাসনের লোকজন কিভাবে বিষয়টিকে নিচ্ছে।

বালিয়াডাঙ্গী থানার ওসি মোসাব্বেরুল হক মুঠোফোনে জানান, হাউজির বিষয়ে আমার কাছে অনুমতির জন্য এসেছিল আমি অনুমতি দেই নি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুদুর রহমান মাসুদের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তিনি ব্যস্ততার কারণে ফোন কেটে দেন।

ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম মুঠোফোনে জানান, হাউজি খেলার জন্য পাড়িয়া মেলার কোন অনুমোদন নেই। স্থানীয় ভাবে পন্য সামগ্রী বিক্রির জন্য যে মেলা বসানোর অনুমোদন দেয়া হয়েছিল তার মেয়াদ আর ৩ দিন রয়েছে। হাউজির কোন অনুমতি নাই। খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থার আশ্বাস দেন তিনি।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ঠাকুরগাঁও বিভাগের সর্বশেষ
ঠাকুরগাঁও বিভাগের আলোচিত
ওপরে