১৬ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং ১লা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
ঝালকাঠিতে পাওনা টাকাকে কেন্দ্র করে হা’মলায় আহত... অ’পহরণের ৫ দিন পর ঠাকুরগাঁও থেকে তরুণীকে উ’দ্ধার বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট... র‌্যাবের অ’ভিযানে ২৫৬০ পিস ই’য়াবাসহ ব্যবসায়ী... দুর্গাপুরে হা-ডু-ডু প্রতিযোগিতা

ঠাকুরগাঁওয়ে গৃহবধূর ন’গ্ন ছবি ভাইরালের ভয় দেখিয়ে চাঁদা দাবি

 মোঃ ইলিয়াস আলী,ঠাকুরগাঁও, সমকালনিউজ২৪

ঘরে আ’টকে রেখে গৃহবধূর ন’গ্ন ছবি ধারণ করে চাঁদা দাবি ও অনৈতিক প্রস্তাব দেওয়ার অ’ভিযোগে এক ইউপি সদস্যকে আ’টক করেছে ঠাকুরগাঁও সদর থানা পুলিশ।

গৃহবধূর লিখিত অ’ভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) ভোর রাতে অ’ভিযুক্তকে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার আউলিয়াপুর ইউনিয়নের শাসলাপিয়ালা গ্রাম থেকে আ’টক করা হয়।

আ’টককৃতের নাম অশ্বিনী কুমার বর্মণ (৩২)। সে ওই ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও প্রয়াত বিজয় কুমার বর্মণের ছেলে।

আ’টকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আশিকুর রহমান।

গৃহবধূর লিখিত অ’ভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ২০ দিন পূর্বে আউলিয়াপুর ইউনিয়নের নারায়ণ চন্দ্র বর্মণের ছেলে জীবন চন্দ্র বর্মণ (২৬) ওই গৃহবধূকে ভুল বুঝিয়ে শহরে তার এক বাড়িতে নিয়ে আসে। সেখানে একটি ঘরে তাকে আ’টকে রেখে জীবন ও অশ্বিনী কুমার তার গলায় ছুরি ঠেকিয়ে ইচ্ছার বি’রুদ্ধে পরিধেয় কাপড় খুলে ন’গ্ন করে ছবি ধারণ করে এবং গৃহবধূর শরীরের বিভিন্ন স্থানে হাত দিয়ে শ্লী’লতাহানির চেষ্টা করে।

এ সময় বাড়ি পাহারা দেয় একই এলাকার বিলাতু (৪০) ও রাজেন্দ্র (৪০) নামে দুই ব্যক্তি। এক সময় জীবন ও অশ্বিনী গৃহবধূকে ধ’র্ষণের জন্য উদ্যত হলে গৃহবধূর চিৎকারে তারা ব্য’র্থ হয়।

পরে জীবন ও অশ্বিনী মোটরসাইকেলযোগে গৃহবধূকে তার স্বামীর বাড়ির পাশে নামিয়ে দিয়ে বলে, তোমার স্বামীর কাছ থেকে আমাদের এক লক্ষ টাকা না দিলে তোমার এই ভিডিও আমরা ইন্টারনেটে ছেড়ে দিব। এ দিকে লোকলজ্জার ভয়ে ওই গৃহবধূ তার স্বামীকেও এ ঘটনা জানান নি।

কিন্তু গত ২৫ আগস্ট বিকালে গৃহবধূর স্বামীর অনুপস্থিতিতে তার বাসায় প্রবেশ করে ইউপি সদস্য অশ্বিনী কুমার আবারও তার কাছে অ’শ্লীল ছবির বিনিময়ে এক লক্ষ টাকা দাবি করেন। এ সময় সেই গৃহবধূ ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে তাৎক্ষণিক সেই ইউপি সদস্য অশ্বিনী কুমারকে তার স্বামীর গচ্ছিত ২০ হাজার টাকা দিয়ে দেন। এ সময় অশ্বিনী আগামী দুই দিনের মধ্যে বাকি আশি হাজার টাকা না দিলে এবং তার সাথে দৈহিক সম্পর্ক না করলে অশ্লীল ভিডিওগুলো ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দেয়।

এ ঘটনায় বিচলিত হয়ে ওই গৃহবধূ সমস্ত ঘটনা তার স্বামীকে জানান। পরে তার স্বামী বিষয়টি এলাকার চেয়ারম্যান-মেম্বারদের জানালে একটি সালিশ বৈঠক হয়। সেখানে অ’ভিযুক্তরা তাদের অপকর্মের কথা স্বীকার করে আবারও হুমকি দিয়ে বলে আমরা এটা ইন্টারনেটে ছেড়ে দিব, তোমাদের কিছু করার থাকলে করো।

পরে উপায় না পেয়ে ওই গৃহবধূ ন্যায় বিচারের আশায় চারজনের নাম উল্লেখ করে ঠাকুরগাঁও সদর থানায় একটি লিখিত অ’ভিযোগ দেয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সদর থানার ওসি আশিকুর রহমান জানান, গৃহবধূর লিখিত অ’ভিযোগের প্রেক্ষিতে অশ্বিনী নামে একজনকে আ’টক করা হয়েছে। বিষয়টি ত’দন্তাধীন রয়েছে। ত’দন্তে অ’ভিযুক্ত ব্যক্তি দোষী সাব্যস্ত হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

‘বিদ্রঃ সমকালনিউজ২৪.কম একটি স্বাধীন অনলাইন পত্রিকা। সমকালনিউজ২৪.কম এর সাথে দৈনিক সমকাল এর কোন সম্পর্ক নেই।’

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ঠাকুরগাঁও বিভাগের সর্বশেষ
ঠাকুরগাঁও বিভাগের আলোচিত
ওপরে