২৬শে আগস্ট, ২০১৯ ইং ১১ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
না’গঞ্জে গোল্ডেন চেস আন্তজার্তিক রেটিং দাবায় হানিফ... আমতলীতে চো’রাই গরু উ’দ্ধার শার্শা উপজেলার সকল কর্মকর্তাদের সাথে মত বিনিময় করলেন... মতলবে ফলদ বৃক্ষমেলার উদ্বোধন করেন- এমপি নুরুল আমিন দু “বছর পূর্তিতে দাবী নিয়ে রোহিঙ্গাদের বিশাল সমাবেশ

ডিএনসিসি’র উপনির্বাচন : আ. লীগের মনোনয়ন কিনলেন যারা

 নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সমকালনিউজ২৪
ডিএনসিসি’র উপনির্বাচন : আ. লীগের মনোনয়ন কিনলেন যে ৭ জন

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র পদে উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন ব্যবসায়ী আতিকুল ইসলাম, রাসেল আশেকীসহ ৭ জন। বৃহস্পতিবার (২৪ জানুয়ারি) বেলা সাড়ে ৪টা পর্যন্ত ৭ জন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন।

 

নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা অনুযায়ী বুধবার থেকে দলীয় মনোনয়ন বিক্রি শুরু করে আওয়ামী লীগ। আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি হতে যাওয়া এ উপনির্বাচনের জন্য মনোনয়নপত্র বিক্রি গত বুধবার ( ২৩ জানুয়ারি) শুরু করে আওয়ামী লীগ। চলতি মাসের ২৩ জানুয়ারি থেকে ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত মনোনয়ন ফরম বিক্রি করবে আওয়ামী লীগ।

 

বুধ ও বৃহস্পতিবার- এই দুই দিনে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে আতিকুল ইসলামের পক্ষে তার চাচাতো ভাই জাহাঙ্গীর হোসেন যুবরাজ মনোনয়ন ফরম কিনেছেন। এ ছাড়া উত্তরের মেয়র পদে মনোনয়ন নিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাবেক সহ সম্পাদক রাসেল আশেকী, ব্যবসায়ী আদম তমিজী হক, ভাসানটেক থানা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ইয়াদ আলী ফকির, নোয়াখালী জেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা কুতুব উদ্দিন নান্নু, বরিশাল আওয়ামী লীগের নেতা মো. আরিফ হোসেন (আরিফিন মোল্লা) এবং বঙ্গবন্ধু পরিষদের কুয়েত শাখার সাবেক প্রচার সম্পাদক শহীদুল্লাহ ওসমানী।

 

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলেন আরিফিন মোল্লা। পটুয়াখালী-৪ আসন থেকে মনোনয়ন ফরম কিনেছিলেন শহীদুল্লাহ ওসমানী।

 

উপনির্বাচনের ফরম নিতে এসে আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক রাসেল আশেকী সাংবাদিকদের বলেন, মনোনয়ন পেলে এবং নির্বাচিত হলে সিটি কর্পোরেশন এলাকার সার্বিক উন্নয়নে কাজ করব। ঢাকা উত্তর সিটিকে শান্তির শহর, সম্প্রীতির শহর, সংস্কৃতির শহর হিসেবে গড়ে তুলবো।

 

আনিসুল হকের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া ঢাকা উত্তরের মেয়র পদে উপনির্বাচন এবং নতুন যুক্ত হওয়া ১৮টি ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর নির্বাচনের জন্য ২০১৮ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি ভোটের দিন রেখে তফসিল দিয়েছিল নির্বাচন কমিশন।

 

ওই তফসিলের বৈধতা চ্যালঞ্জ করে এবং তফসিলের কার্যকারিতার ওপর স্থগিতাদেশ চেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেছিলেন ভাটারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান ও বেরাইদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম। তাদের আবেদনের ওপর শুনানি করে গত বছর ১৭ জানুয়ারি বিচারপতি নাইমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমেদের হাইকোর্ট বেঞ্চ নির্বাচন ৬ মাসের জন্য স্থগিত করে দেয়।

 

ওই নির্বাচনের তফসিল কেন ‘আইনগত কর্তৃত্ব বহির্ভূত’ ঘোষণা করা হবে না- তা জানতে চেয়ে একটি রুলও জারি করা হয়।

 

হাইকোর্টের স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশন আপিল বিভাগে গেলে সেখানে হাইকোর্টের দেয়া রুল ‘দ্রুত নিষ্পত্তির’ আদেশ আসে। পরে স্থগিতাদেশের মেয়াদ আরও ৬ মাস বাড়ানো হয়।

 

এর ধারাবাহিকতায় গত বুধবার বিষয়টি রুল শুনানির জন্য বিচারপতি গোবিন্দ চন্দ্র ঠাকুর ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহর হাইকোর্ট বেঞ্চে ওঠে। কিন্তু রিটকারী বা নির্বাচন কমিশনের পক্ষে কেউ আদালতে না থাকায় আদালত রুল খারিজ করে দেয়ায়, উত্তর সিটি নির্বাচনের পথ খুলে যায়। এর পরেই ২৮ ফেব্রুয়ারি ডিএনসিসির মেয়র পদে ভোটগ্রহণের দিন ধার্য করে তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে