১৬ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং ১লা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
ঝালকাঠিতে ৫ম শ্রেনীর ছাত্রীকে যৌ’ন নিপড়ন, দিনে থানায়... স্ত্রীর মর্যাদা না পেয়ে স্বামীর বাড়িতে কাবিননামা... জয়নগর ইউনিয়ন আওয়ামিলীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিলের... নওগাঁয় হাসপাতাল থেকে চুরি যাওয়া শিশু ১১দিন পর উ’দ্ধার আবরার হ’ত্যার ন্যয়বিচারের দাবীতে চাঁদপুরে মানববন্ধন...

তাহেরপুরে শিশু ধর্ষণের ঘটনায় এলাকাবাসীর মানববন্ধন

  সমকালনিউজ২৪

নাজিম হাসান,রাজশাহী সংবাদদাতা:
রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার তাহেরপুর পৌরসভায় (৮)বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের ঘটনায় মানববন্ধন করেছে পৌরবাসী। মঙ্গলবার বিকেল ৫ টার দিকে তাহেরপুর বাজারের হরিতলায় ধর্ষকের ফাঁসির দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন থেকে দ্রুত ধর্ষকের ফাঁসির দাবি জানানো হয়। সেই সাথে এমন ন্যাককার জনক ঘটনা যেন কেউ ঘটাতে না পারে সে বিষয়ে সকলকে সজাগ থাকার আহ্বান জানানো হয়। মানববন্ধনে তাহেরপুর এলাকাসহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকার রাজনৈতিক ব্যক্তি, ব্যবসায়ী, সাধারণ মানুষসহ আপামর জনগণ অংশ গ্রহণ নেয়। এই ঘটনায় ধর্ষিত শিশুর পিতা মিলন বাদী হয়ে বাগমারা থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ ধর্ষক আল আমীন (২০) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে দুপুরে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে। এবং এঘটনায় মঙ্গলবার বিকেলে একই এলাকার আফজাল হোসেনের ছেলে মনি (২২) কে তাহরেপুর বাজার থেকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশ ও স্থানীয়দের সুত্রে জানা গেছে, ধর্ষণের শিকার শিশুটি উপজেলার তাহেরপুর পৌরসভার তাহেরপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী। এর আগে সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে তাহেরপুর পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড় হরিফলা গ্রামের আজিজুল হকের বখাটে ছেলে আল আমিন শিশুটিকে কৌশলে বাড়ির নিকটে একটি পরিত্যক্ত ঘরে নিয়ে যায়। সেখানে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুটি বাড়িতে এসে পরিবারের সদস্যদের ধর্ষণের কথা জানায়। পরে পরিবারের সদস্যরা শিশুটিকে স্থানীয় একজন চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর অবস্থার আরও অবনতি হওয়ায় তাকে রাত ১২টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে স্থানান্তর করা হয়। বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয়রা তৎক্ষণিক আল আমিনকে ধরে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। এদিকে শিশুটির পিতা এই ঘটনার জন্য আল আমিনকে দায়ী করে বলেন, তার শিশুটির অবস্থা ভালো না। লম্পট আল আমিনেরর ফাঁসির দাবি জানিয়েছেন তিনি। এ ব্যাপারে বাগমারা থানায় অফিসার ইনচার্জ আতাউর রহমান বলেন, ঘটনার খবর পেয়ে দ্রুত সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়। পুলিশ গিয়ে অভিযুক্ত আল আমিনকে স্থানীয়দের সহায়তায় রাতেই গ্রেফতার করে থানায় নিয়েছে। ধর্ষণের শিকার শিশুর পিতা বাদি হয়ে মামলা করেছেন। তার বিরুদ্ধে আইগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে। এছাড়াও এই ঘটনায় মনি নামের আরো এক বখাটে গ্রেফতার করা হয়েছে বলেও তিনি জানান।#

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
রাজশাহী বিভাগ বিভাগের সর্বশেষ
ওপরে