১৯শে মে, ২০১৯ ইং ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
আখাউড়ায় ফাঁসিতে ঝুলন্ত অবস্থায় যুবকের লাশ উদ্ধার। জৈন্তাপুরে পূর্ব বিরোধের জের ধরে চাচা ভাতিজার সংঘর্ষে... নওগাঁয় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বাড়িঘর ভাঙচুর ও নারীর... খাগড়াছড়িতে বজ্রপাতে মা-ছেলের মৃত্যু ! বখাটে যুবকদের মোটরসাইকেলে পুলিশি হর্ণ -আতঙ্কে পথচারীরা!

‘তোর বোনকে জবাই করলাম, চলে যাচ্ছি ছেলে-মেয়ে নিয়ে’

 অনলাইন ডেস্ক: সমকাল নিউজ ২৪
‘তোর বোনকে জবাই করলাম, চলে যাচ্ছি ছেলে-মেয়ে নিয়ে’

তোর বোনকে জবাই করে মেরেছি। বাড়িতে গিয়ে দ্যাাখ। আমি আমার ছেলে-মেয়ে নিয়ে চলে গেলাম’। স্ত্রী লাকি বেগমকে নৃশংসভাবে হত্যার পর পালিয়ে যাবার সময় বৃহস্পতিবার(৯ মে) ভোর সাড়ে ৪টার দিকে তার ভাইকে এভাবেই মোবাইল ফোনে জানায় ঘাতক স্বামী নুরুল আমিন হাওলাদার (৩৫)। নৃশংস এ হত্যাকাণ্ডটি ঘটেছে বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার আমড়াগাছিয়া বাজারসংলগ্ন সাতঘর এলাকায়।
পুলিশ সকাল ৬টার দিকে নিজ ঘরের মেঝেতে পড়ে থাকা লাকী বেগমের (২৮) গলা কাটা রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় থানায় হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে। পারিবারিক কলহে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে বলে পুলিশ ধারণা করছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, প্রায় আট বছর আগে উপজেলার রায়েন্দা ইউনিয়নের দক্ষিণ রাজাপুর গ্রামের আবদুল হক হাওলাদারের ছেলে নুরুল আমিনের সাথে ধানসাগর ইউনিয়নের আমড়াগাছিয়া কালিবাড়ি গ্রামের খলিল হাওলাদারের মেয়ে লাকির বিয়ে হয়। বিয়ের পর শ্বশুর তার ভারতের কেরেলায় ভাঙ্গারির ব্যবসায় সহযোগিতার জন্য জামাইকে সেখানে নিয়ে যান। মাঝে-মধ্যে নুরুল আমিন দেশে আসলেও স্ত্রী লাকির সঙ্গে বনিবনা হতো না। ঝগড়াঝাটি লগেই থাকত।

ঘটনার আগের দিন বুধবার শ্বশুর খলিল হাওলাদার বুঝিয়ে দেশে পাঠিয়ে দেন জামাইকে। এর পর বাড়ি এসে স্বামী-স্ত্রী একঘরে থাকলেও ভোররাতের দিকে হত্যাকাণ্ড ঘটিয়ে জিহাদ (৭) ও জেরিন (২) নামের দুই ছেলে-মেয়েকে নিয়ে পালিয়ে যায় নুরুল আমিন।

এ ব্যাপারে শরণখোলা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মফিজুর রহমান শেখ জানান, ঘাতক নিজেই হত্যার খবর তার স্ত্রীর ভাইকে মোবাইল ফোনে জানায়। এ ঘটনায় নিহতের ভাই নুরুল ইসলাম হাওলাদার বাদী হয়ে একজনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। আসামিকে গ্রেফারের অভিযান চলছে।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
বাগেরহাট বিভাগের সর্বশেষ
বাগেরহাট বিভাগের আলোচিত
ওপরে