১৬ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং ৪ঠা ফাল্গুন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
স্বামীর লাশ ওয়ারড্রবে রেখে অফিস করলেন স্ত্রী! ঐক্যফ্রন্টকে গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর দাওয়াত চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩৫ করার দাবিতে মানববন্ধন বন্য হাতির আক্রমণে নিহত জাসদ নেতা সাইমুন কনক গুঁড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে ইয়াবা কারবারিদের বাড়িঘর

দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে নিহত-১ আহত-৩০ পুলিশের গুলি ও টিয়ার সেল নিক্ষেপ গ্রেফতার -১২

 এম কিউ হোসাইন বুলবুল / সালথা ফরিদপুর। সমকাল নিউজ ২৪

ফরিদপুরের সালথায় দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে রাসেল শেখ (২৪) নামে এক যুবক নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এ সংঘর্ষে আরো ৩০ ব্যক্তি আহত হয়েছে বলে জানাগেছে। পুলিশ উপস্থিত হয়ে টিয়ার সেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। এ সময় পুলিশ, সংঘর্ষে জড়িত থাকার অভিযোগে ১২ জনকে গ্রেফতার করেছে।

জানাগেছে সালথা উপজেলার রামকান্তপুর ইউনিয়নের বড় বাহিরদিয়া গ্রামের ইউপি সদস্য মঞ্জু মাতুব্বরের সাথে সাবেক ইউপি সদস্য লুৎফর মোল্লার সাথে এলাকার আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছে। এরই জের ধরে রোববার সকাল ৭ টার দিকে মঞ্জু মাতুব্বরের সমর্থক রাসেলসহ কয়েকজন স্থানীয় বাজারে চায়ের দোকানে বসে গল্প করছিলো।

এ সময় লুৎফর মোল্যার সমর্থকেরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। খবর পেয়ে মঞ্জু মাতুব্বরের সমর্থকেরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে পাল্টা হামলা চালালে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। সালথা থানা পুলিশ উপস্থিত হয়ে ১১ রাউন্ড শর্টগানের গুলি ও ২ রাউন্ড টিয়ার সেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে। এ সংঘর্ষে বড় বাহিরদিয়া গ্রামের খালেক শেখের পুত্র রাসেল শেখ প্রতিপক্ষের অস্ত্রের কোপে গুরুতর আহত হয়। আহত অবস্থায় তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যান। তার মৃত্যুর নিশ্চিত করেছেন বড় ভাই জামাল শেখ। এ সময় উভয় পক্ষের কমপক্ষে ৩০ জন আহত হয়।

সালথা থানা অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার হোসেন খান বলেন, বর্তমানে এলাকার পরিবেশ শান্ত রয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। সংঘর্ষে জড়িত থাকার অভিযোগে ঘটনাস্থান থেকে ১২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে