২৩শে আগস্ট, ২০১৯ ইং ৮ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
বগুড়ার অ’বৈধ স্থা’পনা উ’চ্ছেদ করলেন ইউএনও ভ্রা’ম্যমান আদালত অ’ভিযান চালিয়ে দু’টি... ছাত্র-ছাত্রীদের ভোটের মাধ্যমে সেরা শিক্ষক নির্বাচিত স্কুল শিক্ষিকা জয়ন্তী রানী’র হ’ত্যাকারীদের ফা’সির... ভূরুঙ্গামারীতে কিশোরীকে ধ’র্ষণ শেষে হ’ত্যার...

দুর্গাপুরে পা ভেঙে দেয়া সেই এএসআই হাফিজকে ক্লোজ

  সমকাল নিউজ ২৪

রাজশাহী প্রতিনিধি:
রাজশাহী জেলার দুর্গাপুর থানার এএসআই হাফিজকে জেলা পুলিশ লাইনে প্রত্যাহার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে সোমবার ২০ হাজার টাকা ঘুষ দাবির করে না পাওয়ায় দিনমজুর সাইদুল ইসলাম নামে স্থানীয় এক ব্যাক্তির পা ভেঙে দেয়ার অভিযোগের প্রেক্ষিতে বুধবার (১২ জুন) সন্ধ্যায় রাজশাহীর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের আদেশের প্রেক্ষিতে তাকে থানা থেকে পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়। আহত সাইদুল ইসলামের বাড়ি উপজেলার হোজা অনন্তকান্দি গ্রামেতে। ভুক্তভোগী সাইদুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন,তার ছেলের বউ আমিসহ আমার ছেলে আসাদুল ইসলামের বিরুদ্ধে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছিলেন। ওই অভিযোগের কারণে সোমবার রাতে তার ছেলে আসাদুল ইসলামকে বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে থানায় না নিয়ে হোজা অনন্তকান্দি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে নিয়ে যাওয়া হয়। এবং সেখানে ছেলেকে ছাড়াতে যান সাইদুল ইসলাম। এ সময় ২০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করেন এএসআই হাফিজ ছেলেকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য। কিšুÍ আমি ঘুষের টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে সে সময় অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এএসআই হাফিজ। এসময় ৯’শ টাকা পকেট থেকে বের করে এএসআই হাফিজকে দেন সাইদুল ইসলাম। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে অভিযুক্ত এএসআই হাফিজ বাঁশ দিয়ে ছেলের সামনেই তার বাম পায়ে আঘাত করে। এতে সাইদুল ইসলামের বাম হাটু ভেঙ্গে সে মাটিতে লুটে পড়ে যায়। এবং এএসআই হাফিজ তার ছেলেসহ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘঁটনাস্থল থেকে চলেযায়। পরে স্থানীয়রা আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। আর গভীর রাতে ছেলে আসাদুলকে ছেড়ে দেওয়া হয় বলে তিনি জানান। স্বাস্থ্য কমপ্লেঙ্রে চিকিৎসক আসফাক হোসেন বলেন, সাইদুল ইসলামের হাঁটুতে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে হাড় ভেঙে গেছে। তবে এঘটনার খবর বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত হলে বুধবার সন্ধ্যায় রাজশাহীর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের আদেশের প্রেক্ষিতে তাকে থানা থেকে পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়।#

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
রাজশাহী বিভাগ বিভাগের সর্বশেষ
ওপরে