২২শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং ৯ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলায় নিন্দা ও শোক জানিয়েছেন... শবে বরাতের রাতে যে আমলগুলো করলে অধিক ফজিলত বগুড়ায় বিলের আধিপত্য নিয়ে সংঘর্ষে আহত ১৮ সাতক্ষীরা কলারোয়ার ধানদিয়া মিশনে যিশুখৃষ্টের... সুনামগঞ্জে ১১ টি উপজেলায় কৃষকদের ধান কাটায় উৎসাহিত করতে...

দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান।

 মোঃ ইলিয়াস আলী নিজস্ব প্রতিবেদক সমকাল নিউজ ২৪

দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান। বুধবার দুপুরে ঠাকুরগাঁওয়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, উন্নয়ন প্রকল্প দেওয়ার আগে ও পরে ছবি তুলে রিপোর্ট করার পর অর্থ প্রদান করা হয়; অর্থাৎ কাজ না করে অর্থ পাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। তারপরও যদি কেউ সরকারের উন্নয়ন প্রকল্পে অনিয়ম করে তাহলে তার বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে৷

 

এছাড়া সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে নানা অনিয়মের অভিযোগের বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে প্রতিমন্ত্রী বলেন, অভিযোগটি সঠিক নয়; তবে এক সময় ছিল ভুয়া কমিটি, ভুয়া প্রকল্প দাখিল করে টিআর-কাবিখার টাকা লুটপাট করা হতো। কিন্তু গত পাঁচ বছরে এ ধরনের কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। এসব অনিয়মের বিষয়ে আমরা শক্ত অবস্থানে রয়েছি।

 

ডিসি, ইউএনও, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ও স্থানীয় সংসদ সদস্যরা এখন এত বেশি তদারকি করেন যে এখানে আর অনিয়ম করার কোনো সুযোগ নেই, বলেন এনামুর রহমান।

 

ঘর করে দেওয়ার প্রশ্নে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এটাকে আপনারা ডায়ভার্সিফাইড অথবা ইনোভেটিভ প্রকল্প বলতে পারেন। ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের যে টিআরের টাকা আছে সেখান থেকে প্রথম অবস্থায় ২০৮ কোটি ও দ্বিতীয় অবস্থায় ১০৮ কোটি সব মিলিয়ে ৩১৬ কোটি টাকার প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। যাদের জায়গা আছে এবং সে জায়গায় কোনোমতে কুড়ে ঘর, বাথরুম করে আছে এবং বন্যায় যাদের ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে তাদেরকে এসব ঘর করে দেওয়া হবে।

 

এই প্রকল্পের জন্য একটা ডিজাইন করা হয়েছে; দুইটি বেডরুম, একটি রান্না ঘর, একটি স্বাস্থ্যসম্মত টয়লেটসহ করে দেওয়া হবে, বলেন তিনি।

 

আগামী ফেব্রুয়ারি থেকে জুনের মধ্যে ৬৪টি জেলায় ৫শ করে ৩২ হাজার এবং পরবর্তী অর্থবছরে জুলাই থেকে ডিসেম্বরের মধ্যে আরও ৩২ হাজার ঘর করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

 

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এ সভায় অন্যান্যের মধ্যে সাংসদ রমেশ চন্দ্র সেন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব শাহ আলম, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবু সৈয়দ মোহাম্মদ হাশিম, ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক কে এম কামরুজ্জামান সেলিম, পুলিশ সুপার মনিরুজ্জামান মনির, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুহা. সাদেক কুরাইশী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

পরে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার জগন্নাথপুর ইউনিয়নে অসহায় দরিদ্র মানুষদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেন ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ঠাকুরগাঁও বিভাগের সর্বশেষ
ঠাকুরগাঁও বিভাগের আলোচিত
ওপরে