২২শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং ৭ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
বরগুনায় আদালতের নির্দেশে সন্তানের ম’রদেহ ফিরে পেলেন... ভারতে যাচ্ছেন চার জেলার ডিসি-এডিসিরা পতীতলায় ইউএনও সাথে গ্রাম পুলিশদের মতবিনিময় সভা সীমান্তে বিএসএফের গু’লিতে ঠাকুরগাঁওয়ের যুবক নি’হত  আলমপুুর ইউনিয়ন  বিএনপির ২১ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি...

নড়াইলে সরস্বতী পূজা উপলক্ষে বিভিন্ন স্থানে বিষাল প্রতিমার হাট।

  সমকালনিউজ২৪

আজ (৮,ফ্রেব্রুয়ারী)সরস্বতী পূজা উপলক্ষে নড়াইল জেলার বিভিন্ন স্থানে বসেছে প্রতিমার হাট আগামী ৯ ও ১০ ফ্রেব্রুয়ারী হিন্দুধর্মাবলম্বীদের বিদ্যার দেবী সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হবে।

এ উপলক্ষে জেলার বিভিন্ন স্থানে বসেছে প্রতিমার হাট। এসব হাটে প্রতিমা বেচা-বিক্রি চলবে পূজা শুরু হওয়া পর্যন্ত। আমাদের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায় জানান, জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে মূর্তি নির্মাদের (পাল) সরস্বতী মূর্তি বিক্রি জন্য শহরের কালিবাড়ীতে বসে বিদ্যার দেবী সরস্বতী মূর্তির হাট। এটি জেলার সবচেয়ে বড় মূর্তির হাট। এই হাটে পাঁচশত টাকা থেকে ছয় হাজার টাকা পর্যন্ত সরস্বতী প্রতিমা বেচাকেনা হচ্ছে। যে যার সাধ্যমত কিনে নিচ্ছেন দেবীর মূর্তি।

এছাড়া জেলার ৩টি উপজেলায় প্রায় ৪০টি স্থানে হাট বসে। এসব হাটে শুধু প্রতিমাই নয় বিক্রি হচ্ছে পূজার বিভিন্ন সরঞ্জাম। একই স্থান থেকে সব কিছুই কিনতে পারছেন ক্রেতারা। হিন্দুধর্ম মতে বিদ্যার দেবী সরস্বতী। হিন্দু শিক্ষার্থীরা দেবীর আশির্বাদ লাভের আশায় প্রতিবছর পঞ্জিকা মতে মাঘ মাসের পঞ্চমী তিথিতে সরস্বতী দেবীর পূজা করে থাকেন।

এ পূজা উপলক্ষে হিন্দুধর্মবালম্বীদের বাড়ীতে বাড়ীতে নির্মান করা হয়েছে অস্থায়ী মন্দির।

এছাড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পূজা উদযাপনের লক্ষ্যে শিক্ষার্থীদের মাঝে চলছে বিপুল উৎসাহ উদ্দিপনা। জেলা শহরের বিষাল রায় বলেন, মূর্তির দাম বেশী। গত বছর যে মূর্তি ৫শ’ টাকায় কিনেছি সেই মাপের মূর্তি এবছর দেড় হাজার টাকায় কিনতে হচ্ছে। বিদ্যার দেবী এই বিশ্বাসে আমরা পূঁজা করি। তাই অনেকটা বাধ্য হয়ে বেশী দামে কিনতে হচ্ছে।

শহরের কালিবাড়ি বাজারে আসা প্রতিমা শিল্পী বিমল চন্দ্র পাল (৬০), অংস পাল (৫০), ও তাপস পাল (২৬) সমকাল নিউজ ২৪ ডট কম নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায়কে জানান , মূতি তৈরী উপকরন বাঁশ, কাঠ, ছন ও রং এর দাম বেড়ে গেছে। এ বছর প্রতিমা তৈরীর জিনিসপত্রের দাম বেশী হওয়ায় প্রতিমা বেশী দামে বিক্রি করতে হচ্ছে। এর উপরই আমাদের সংসার চলে। জিনিস পত্রের দাম বেশী তাই আমরা একটু বেশী না নিয়ে পারছিনা। তবে ক্রেতারা দামে ফিরছেন না। যা এনেছি তা বিক্রি হয়ে যাচ্ছে।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
নড়াইল বিভাগের সর্বশেষ
নড়াইল বিভাগের আলোচিত
ওপরে