২৬শে মে, ২০১৯ ইং ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
ফেসবুকের কাছে ১৯৫টি অ্যাকাউন্টের তথ্য চেয়েছে সরকার সদরঘাট জিম্মি ‘খলিফা বাহিনী’র হাতে কৃষকের ঘরে বিয়ের ১১ বছর পর এক সঙ্গে চার সন্তান বাংলাদেশীদের পদচারণায় জমজমাট কলকাতার ঈদ বাজার! স্বামী সন্তানের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের...

পাকিস্তানে গিয়ে যা বলেছিলেন ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে হামলাকারী

 আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সমকাল নিউজ ২৪
পাকিস্তানে গিয়ে যা বলেছিলেন ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে হামলাকারী

ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে সন্ত্রাসবাদী হামলার মূল সন্দেহভাজন হিসেবে যাকে চিহ্ণিত করা হচ্ছে, সেই ব্রেন্টন টারান্ট গত বছর পাকিস্তান সফরে গিয়েছিলেন। আর সেই সফরের সময় তিনি পাকিস্তানে মানুষের আতিথেয়তার প্রশংসা করেছিলেন।

পাকিস্তানের উত্তরাঞ্চলের একটি শহরের যে হোটেলে তিনি অবস্থান করেছিলেন, সেই হোটেলের মালিক ব্রেন্টন টারান্টের ছবি দেখে তাকে চিনতে পারেন।

ওশু থাং হোটেলের মালিক সৈয়দ ইসরার হোসেন জানিয়েছেন, ২০১৮ সালের অক্টোবরে ব্রেন্টন টারান্ট তার হোটেলে দুই রাত কাটান। তিনি একাই এসেছিলেন। হোটেলে অবস্থানকালে তিনি চারপাশের এলাকায় পায়ে হেঁটে ঘুরে বেড়ান। অন্য সব পর্যটকের মতই তিনি অনেক ছবি তোলেন।

পাকিস্তানের এই অঞ্চলটি ট্রেকারদের কাছে বেশ জনপ্রিয়।

মিস্টার হোসেনের সোশ্যাল মিডিয়া টাইমলাইনে ব্রেন্টন টারান্টের একটি ছবি ছিল। সেটি তিনি মুছে ফেলেন। গত অক্টোবরে পোস্ট করা ঐ ছবির সঙ্গে ছিল পাকিস্তান সম্পর্কে ব্রেন্টন টারান্টের প্রশংসাসূচক মন্তব্য।

এতে ব্রেন্টন টারান্ট লিখেছিলেন, “পাকিস্তান এক আশ্চর্য জায়গা, বিশ্বের সবচেয়ে দয়ালু এবং অতিথিপরায়ণ মানুষে পরিপূর্ণ একটি দেশ।”

হোটেল মালিক সৈয়দ ইসরার হোসেন জানান, পাকিস্তান সফরের সময় তিনি মিস্টার টারান্টের মধ্যে মুসলিমদের বা ইসলাম সম্পর্কে কোন বিদ্বেষ দেখেননি। তিনি বলেন, ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে ভয়ংকর হামলার ঘটনায় তিনি রীতিমত স্তম্ভিত।

ব্রেন্টন টারান্ট শুধু পাকিস্তান নয়, উত্তর কোরিয়া, তুরস্ক, পোল্যান্ড সহ আরও কিছু দেশ ভ্রমণ করেন সম্প্রতি। তবে এর ফাঁকে ফাঁকে তিনি নিউজিল্যান্ডে লম্বা সময় কাটিয়েছেন।

অস্ট্রেলীয় নাগরিক ব্রেন্টন টারান্ট কীভাবে উগ্র ডানপন্থী এবং শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্ববাদী মতাদর্শে দীক্ষা নেয়, তার তদন্ত চলছে। তবে এর সঙ্গে তার বিভ্ন্নি দেশ ভ্রমণের কোন সম্পর্ক আছে কীনা তা স্পষ্ট নয়।

শুক্রবার নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত হয় ৪৯ জন। এই হামলার ঘটনা ব্রেন্টন টারান্ট তার মাথায় লাগানো ক্যামেরা দিয়ে সরাসরি ফেসবুকে প্রচার করেছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
আন্তর্জাতিক বিভাগের আলোচিত
ওপরে