১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
সাংবাদিক জয়নাল এর মৃত্যুতে মিলাদ ও দোয়া  অনুষ্ঠিত বাজারে চাহিদার তুলনায় গরু বেশী শেষ সময়ে পশুর দাম কম দুর্গাপুরে ১০০ বল ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্ভোধন শাহরাস্থিতে এবারও শ্রেষ্ঠ ভূমি কর্মকর্তার সম্মাননা... ছাতকে ভূমিহীন-গৃহহীন ৬৮ পরিবার পেয়েছে প্রধানমন্ত্রীর...

পাকিস্তানে না এলে ভারত জাহান্নামে যাক! কোহলি-রোহিতদের অভিশাপে ভাসিয়ে দিলেন মিয়াঁদাদ

  সমকালনিউজ২৪

পাকিস্তানের মাটিতে এশিয়া কাপ খেলতে যাবে না ভারত। টিম ইন্ডিয়ার এমন অবস্থান স্পষ্ট হয়ে যাওয়ার পর এবার ভারতকে তেড়েফুঁড়ে আক্রমণ করলেন জাভেদ মিয়াঁদাদ।

পাকিস্তানের এক ইভেন্টে সরাসরি প্রাক্তন তারকা বলে দিয়েছেন, “পাকিস্তানে খেলতে না এলে ভারত নরকে যাবে। আমি বরাবর পাকিস্তানকে সমর্থন করেছি। কোনও ইস্যু এলে ভারতকে আক্রমণ করতে অন্তত আমি ভুলি না। আমাদের স্বার্থ সবসময় প্রাধান্য দিতে হবে। নিজেদের সম্মানের জন্য আমাদের লড়ে যেতে হবে।”

“ভারত না এলে আমাদের কিছু যায় আসে না। কারণ আমরাই এবার আয়োজক দেশ। এটা আইসিসির কর্তব্য। আইসিসি যদি এই পরিস্থিতি সামলাতে না পারে, তাহলে গভর্নিং বডি থাকার কি দরকার! সমস্ত দলের ক্ষেত্রে একই নিয়ম হওয়া দরকার। যদি কোনও দল না আসে, তাহলে তাদের পুরোপুরি বাতিল করে দেওয়া উচিত।”

গত সপ্তাহে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের বৈঠকে বিসিসিআই নিজের অবস্থান স্পষ্ট করে জানিয়েছিল সরকারের কাছ থেকে ছাড়পত্র না পাওয়ার জন্য ভারত কোনওভাবেই পাকিস্তানে খেলতে পারবে না। তবে মিয়াঁদাদের বক্তব্য, ভারত হারের ভয়েই পাকিস্তানে খেলতে আসছে না।

ভারতকে কটাক্ষ করে প্রাক্তন তারকা জানাচ্ছেন, “আরে এখানে এসো! কেন আসছে না ওঁরা? ওঁরা যদি এখানে এসে হেরে যায়, তাহলে সেটা বিপত্তির মুখে পড়বে ওঁরা। ভারতীয়রা সেটা মোটেই মেনে নেবে না। সবসময়ই এমনটা হয়ে এসেছে। আমাদের সময়েও ওঁরা হারের ভয়ে খেলত না। ভারত হারলেই ওখানে দাঙ্গা-হাঙ্গামা লেগে যায়। ওখানকার জনগণ খুব খারাপ। ভারত হারলেই ক্রিকেটারদের বাড়ি-ঘর জ্বালিয়ে দেওয়া হয়। আমাদের সঙ্গে খেললেই ওঁদের এই সমস্যার মুখে পড়তে হয়।”

“ভারতীয়রা এমনিতেই হেরো। ওখানকার ক্রিকেট সমর্থকদের ওটা বুঝতে হবে। ক্রিকেট একটা খেলা। যদি ভালো খেলতে না পারো। তাহলে তো হারতে হবে। এসব করে কী হবে! আইসিসিকে আগেই জানিয়েছি, যদি এরকম কাণ্ড বারবার ঘটে, তাহলে আইসিসিকে শক্ত হতে হবে। ভারত হলেও ওঁদের ছাড় দেওয়া কেন হবে? এক দেশ যদি বারবার বিব্রতকর পরিস্থিতি জন্ম দেয়, তাহলে আইসিসিকে ব্যবস্থা নিতেই হবে। এরকম দলকে বাদ দিয়ে সকলকে শিক্ষা দেওয়া দরকার।”

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে