২৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং ১৭ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
ভারতে মুসলিম হ’ত্যা ও অ’গ্নিসংযোগের প্রতিবাদে দ.... বেনাপোলে ৪৭ বোতল ভারতীয় ফে’ন্সিডিল উ’দ্ধার:আসামী... ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বিদ্যালয় মাঠ দখল মুক্ত শিকলে বন্দি দিন কাটছে মানসিক প্রতিবন্ধি মেধাবী... জাতীয় পর্যায়ে স্বাধীনতা পুরষ্কার পাচ্ছেন টাঙ্গাইলের...

পোলিং এজেন্টদের তাড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ মঞ্জুর

 অনলাইন ডেস্কঃ সমকালনিউজ২৪

খুলনার ছয়টি আসনে ভোটগ্রহণ চলছে। কোনো প্রকার সংঘর্ষের খবর না পেলেও অভিযোগ উঠেছে মুখ চিনে কেন্দ্রে যাওয়ার অনুমতি দেয়া হচ্ছে ভোটারদের। ফলে ভোটারদের মধ্যে একদিকে যেমন উৎসবের আমেজ রয়েছে অন্যদিকে রয়েছে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা।

 

এদিকে ভোট চলাকালে সকাল সাড়ে ৯টায় ধানের শীষের প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু অভিযোগ করে বলেন, কোনো কেন্দ্রেই তার পোলিং এজেন্টদের প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি। হুমকি ধামকি দিয়ে তাদের বিদায় করে দিয়েছে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। খুলনা বিভাগের সর্বত্রই এই অবস্থা চলছে বলেও দাবি করেন তিনি।

 

রোববার সকল ৮টা থেকে শুরু হওয়া এ ভোট চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

 

খুলনা মহানগরীর কয়েকটি কেন্দ্র ঘুরে দেখা গেছে, ভোটকেন্দ্রের সামনে ভোটারের চেয়ে সাংবাদিক ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সংখ্যাই বেশি।

 

খুলনার কলেজিয়েট, জাহাননগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, টুটপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, রূপসা উচ্চ বিদ্যালয়, পিটিআই কেন্দ্রে ও বিকে ইউনিয়ন ইনস্টিটিউশন কেন্দ্রের বেশ কয়েকজন ভোটার অভিযোগ করে বলেন, কেন্দ্রের গেটের সামনে জড়ো হয়ে থাকা লোকজন ভোটারদের মুখ না চিনলে কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দিচ্ছে না। যাদেরকে তারা চিনছেন তারাই শুধু কেন্দ্রে যেতে পারছেন।

 

এদিকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে খুলনার ৬টি সংসদীয় আসনে ১০টি রাজনৈতিক দলের মোট ৩৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ৩৫ জন প্রার্থীর মধ্যে নারী প্রার্থী মাত্র ২ জন। এ নির্বাচনে ছয়টি আসনের ৭৮৬ ভোট কেন্দ্রের ৩ হাজার ৮৫৭টি ভোটকক্ষে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

 

এবার মোট ভোটার সংখ্যা ১৮ লাখ ৯৮৯ জন ভোটার। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৯ লাখ ২ হাজার ৯৫০ জন এবং নারী ভোটার ৮ লাখ ৯৮ হাজার ৩৯ জন। ছয়টি আসনের মধ্যে খুলনা-২ আসনের ১৫৭টি ভোটকেন্দ্রের ৭২০টি ভোটকক্ষে ইভিএমের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হচ্ছে।

 

এছাড়া খুলনার ছয় আসনে নিরাপত্তায় রয়েছেন আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রায় ১৬ হাজার সদস্য। ৬টি আসনে স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে সেনাবাহিনীর ৯ প্লাটুন, বিজিবি ২০ প্লাটুন ও কোস্ট গার্ডের ১০ প্লাটুন সদস্য রয়েছেন। এছাড়া র্যাবের ২১টি টহল গাড়ি ও ৬টি জিপ নির্বাচনী এলাকায় নিরাপত্তায় দায়িত্ব পালন করছে। ভোটের মাঠে ৪৩ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করছেন।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
খুলনা বিভাগের সর্বশেষ
খুলনা বিভাগের আলোচিত
ওপরে