২৭শে জুন, ২০১৯ ইং ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
রিফাত হত্যার ঘটনায় মর্মাহত হাইকোর্ট জানতে চান কি... স্বামীর খুনীর সঙ্গে স্ত্রীর ফুল হাতে ছবি ভাইরাল! বরগুনায় রিফাত হত্যা মামলায় গ্রেফতার – ১ কলারোয়া থানা পুলিশের অভিযানে ছয় ব্যক্তি আটক। মনোহরগঞ্জে বসত বাড়িতে সশস্ত্র হামলা ভাঙচুর ও লুটপাট

প্রেমিকার আত্মহত্যা, কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে প্রেমিকেরও মৃত্যু!

 অনলাইন ডেস্কঃ সমকাল নিউজ ২৪
প্রেমিকার আত্মহত্যা, কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে প্রেমিকেরও মৃত্যু!

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে প্রেমিকার আত্মহত্যার খবর শুনে এক প্রেমিক বিষ পানে আত্মহত্যা করেছে। তার নাম- নোমান ওরফে রুমন (২২)।

সে উপজেলার শুভপুর ইউনিয়নের চাঁন্দপুর পশ্চিম পাড়া মুন্সী বাড়ীর আব্দুল হাকিমের ছেলে। রবিবার দিবাগত রাত আনুমানিক ৩টার দিকে কুমিল্লার কোটবাড়ির এক ছাত্রাবাসে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রবিবার বিকাল চারটায় রুমনের প্রেমিকা চৌদ্দগ্রাম উপজেলার শুভপুর ইউনিয়নের পাশাকোট গ্রামের নুরুল ইসলামের মেয়ে রুমা আক্তার (১৮) নিজ ঘরে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। এ খবর শুনে রাতের কোন এক সময় ছাত্রবাসে রুমনও বিষ পান করে।

সোমবার (২৫ মার্চ) সকালে ঘুম থেকে উঠছেনা দেখে ছাত্রাবাসের অন্য ছাত্ররা তাকে ডাকাডাকি করেও সাড়া না পেয়ে রুমে গেলে তাকে অজ্ঞান অবস্থায় দেখতে পায়। এরপর তাকে দ্রুত স্থানীয় একটি বেসরকারী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষনা করে। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

এর আগে রবিবার (২৪ মার্চ) দুপুরে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে রুমা। বিকাল চারটার দিকে ঝুলন্ত অবস্থায় রুমাকে দেখতে পেয়ে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে দ্রুত স্থানীয় মুন্সীরহাট নেছারিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

রুমার সাথে রুমনের দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। রুমার পরিবার জানায়, প্রেমঘটিত কারণেই রুমা আত্মহত্যা করেছে।

এ বিষয়ে রুমার মা বলেন, রুমন আমার মেয়ের সাথে প্রায়ই মোবাইলে কল দিয়ে কথা বলত। আট মাস আগে আমার মেয়ের সাথে রাগ করে রুমন বিষও খেয়েছিল। এখন আমার মেয়েই মারা গেল। আমার মেয়ের মৃত্যুর জন্য রুমনই দায়ী।

এ বিষয়ে চৌদ্দগ্রাম থানার ওসি (তদন্ত) শুভরঞ্জন চাকমা বলেন, প্রাথমিকভাবে দুটি ঘটনাই প্রেমঘটিত আত্মহত্যা বলে ধারণা করা হচ্ছে। খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি। রুমার পরিবারের অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, রুমা এবং রুমন পাশ্ববর্তী মুন্সীরহাট প্রকৌশলী ওয়াহিদুর রহমান ডিগ্রী কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে