১৮ই এপ্রিল, ২০১৯ ইং ৫ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
ঠাকুরগাঁওয়ে চিকিৎসকের দেওয়া ভূল ওষুধ খেয়ে গর্ভের... যৌতুক দাবী করায় বরকে ন্যাড়া করে ফেরত পাঠালো কনে পক্ষ খুলনা সার্কিট হাউসে মতবিনিময় সভায় নিমন্ত্রন পেলেন... লাইভে কুরআন ছিড়ে টয়লেটে নিক্ষেপ সেফুদার, ফাঁসি দাবী বরগুনায় মানবিক সহায়তা’১৯ প্রকল্পের শিক্ষণ কর্মশালা...

পড়ে না ট্রেনের সীগনাল-বাজে না ঘন্টা, রেল ষ্টেশন থাকলেও নেই মাষ্টার

 এসএম রায়হান উদ্দীন সমকাল নিউজ ২৪

রেল ষ্টেশন আছে, রেলের যাত্রী আছে কিন্তু নেই ষ্টেশন মাষ্টার । ফলে পড়ে না ট্রেনের সীগনাল-বাজে না রেলের ঘন্টা।এমনই এক ষ্টেশন ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার সাফদারপুর রেল ষ্টেশন। খুলনা-রাজশাহী-ঢাকা রুটে ট্রেন চলাচলকারী জনবহুল এই রেল ষ্টেশনটিতে নেই ষ্টেশনের মাষ্টার। ফলে যাত্রী ভোগান্তী চরমে। ২০১৮ সালের ২২ সেপ্টেম্বর থেকে ষ্টেশনের যাবতীয় কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে।

ফলে প্রতিদিন এই রুটে চলা ট্রেনের শত শত যাত্রীরা পড়ছেন বিপাকে। এমনকি ষ্টেশনের কোন কার্যক্রম ও সীগনাল না থাকায় ষ্টেশনের দু-পাশে থাকা রেলক্রসিং দুটি হয়ে পড়েছে অরক্ষিত। ফলে ঘটছে রেল দূর্ঘটনা, হচ্ছে প্রাণহানী। এরই মধ্যে রেলক্রসিং পার হওয়ার সময় শিশু কন্যাসহ বাবার মৃত্যু হয়েছে। যার ফলে জীবনের ঝুকি নিয়ে পার হতে এই এলাকার হাজারো মানুষের।

দ্রুত এই সমস্যার সমাধান পেতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এই এলাকার হাজারো রেল যাত্রী ও সচেতন মহল।

সরেজমিনে দেখা যায়, সাফদারপুর রেল ষ্টেশনে আন্তঃনগর ট্রেনসহ মেইল ট্রেনে প্রতিদিন শত শত রেল যাত্রী খুলনা-রাজশাহী রুটে চলাচল করে। তারপরও ষ্টেশন মাষ্টারের কক্ষটি তালাবদ্ধ অবস্থায় পড়ে আছে। যাত্রীরা রেলের জন্য অপেক্ষা করলেও ট্রেনের সঠিক সময় জানতে না পারায় পড়ছেন ভোগান্তিতে। এমনকি দীর্ঘদিন যাবৎ বন্ধ থাকায় ১নং লাইনটি হয়ে পড়েছে অকার্যকর।

শুধুমাত্র ষ্টেশন পরিচ্ছন্ন কর্মী (কোটার) ছাড়া রেলের কোন কর্মকর্তা-কর্মচারি এই ষ্টেশনে দেখা মিলবে না।

কোটার জিল্লুর রহমান জানান, গত বছরের ২২ সেপ্টম্বর থেকে এই ষ্টেশনের সমস্ত কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। ষ্টেশন মাষ্টারসহ অন্যান্য সদস্যদের কে সদ্য চালু হওয়া গোপালগঞ্জ রেল ষ্টেশনে নেওয়া হয়েছে। ফলে এই ষ্টেশনটি ক্লোজিং ডাউন অবস্থায় আছে। যে কারনে প্রতিদিন এই এলাকার শত শত রেল যাত্রীদের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

জানাযায়, যাত্রীদের কোলাহলে মুখরিত জনবহুল এই রেলওয়ে ষ্টেশনটির যাত্রী সেবা বাড়ানোর জন্য ২০১৭ সালের ২৫ এপ্রিল সাবেক রেল মন্ত্রী মুজিবুল হক নবনির্মিত প্লাটফরম সেড এবং হাইলেভেল প্লাটফরম এর উদ্বোধন করেন। সেই সাথে আন্তঃনগর সাগরদাড়ী এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রা বিরতী চালু করেন। তারপরও ষ্টেশন মাষ্টার ও ষ্টেশনের কোন প্রকার কার্যক্রম না থাকায় প্রতিদিন যাত্রীদের ভোগান্তী পোহাতে হচ্ছে।

এ বিষয়ে কোটচাঁদপুর রেল ষ্টেশন মাষ্টার গোলাম মোস্তফা এই প্রতিবেদককে জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ মাষ্টার না থাকায় সাফদারপুর রেল ষ্টেশনটি অকার্যকর অবস্থায় আছে। পার্শ্ববর্তী রেলওয়ে ষ্টেশন হওয়ার কারনে প্রতিনিয়ত আমাদের পড়তে হয় বিপাকে। কারন, ট্রেনের ক্রসিং ও যোগাযোগ না হওয়ায় দূরবর্তী ষ্টেশনে আমাদের যোগাযোগ করতে হয়। তিনি বলেন, কবে নাগাদ এই সমস্য থেকে মুক্তি মিলবে তা রেল কর্তৃপক্ষ-ই জানেন।

এ বিষয়ে পশ্চিমাঞ্চল রেলের উর্ধ্বতণ কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে কাইকে পাওয়া যায়নি।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ঝিনাইদহ বিভাগের আলোচিত
ওপরে