২০শে আগস্ট, ২০১৯ ইং ৫ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
৩টি প’স্তিল,৬৬ রাউন্ড গু’লি,৩টি ম্যা’গজিন ও ১কেজি... চান্দুরা-আখাউড়া সড়কের বেহাল দশা মাজার জিয়ারত করলেন এমপি আলহাজ্ব মোশারফ হোসেন ছেলেকে বাঁচাতে নদীতে ঝাপ দিয়ে নিখোঁজ বাবা বাল্য বিয়ে বন্ধ করল থানা পুলিশ

ফুলবাড়ীতে জমিজমার জেরে দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি মামলা।

 মেহেদী হাসান উজ্জল, ফুুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি। সমকাল নিউজ ২৪

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে প্রভাবশালী মহলের চাপে উচ্চ আদালতের রায় পেয়েও ক্রয়কৃত জমিতে যেতে পারছেনা সোলায়মান নামে এক হোমিও চিকিৎসক। অপরদিকে মামলা প্রত্যার করার জন্য উল্টো প্রতিপক্ষরা প্রাণনাসের হুমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ ঐ চিকিৎসকের।

 

ঘটনাটি ঘটেছে, ফুলবাড়ী উপজেলার বেতদিঘী ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামে। হোমিও চিকিৎসক সোলায়মান হোসেন বলেন, তিনি উচ্চ আদালতের রায় নিয়ে তার ক্রয়কৃত জমিতে ঘর নির্মান করতে গেলে, তার প্রতিপক্ষ ছমির উদ্দিন ও তার ছেলেরা তার উপর হামলা করে রক্তাত্ত করে এবং তার ঘর নির্মানের ইট, বালু সিমেন্ট লুট করে নিয়ে যায়। এই ঘটনায় সে বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেও কোন সুফল পায়নি। উল্টো একটি প্রভাবশালী মহল ছমির উদ্দিনের পক্ষ নিয়ে মামলা প্রত্যাহার করার জন্য প্রতি ক্ষনে ক্ষনে তাকে হুমকি দিয়ে আসছে। ওই প্রভাবশালী মহলের হুমকিতে এখন তিনি ও তার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

 

হোমিও চিকিৎসক সোলায়মান হোসেন আরো বলেন, সৈয়দপুর মৌজার ১২৮০ দাগের ৬২ শতাংশ জমির মুল মালিক ছিলেন নুটু মন্ডল। নুটু মন্ডরের মৃত্যুর পর, তার দুই ছেলে জহির উদ্দিন মন্ডল ও খাতের মামুদ মন্ডল মালিক হন, তাদের নামে সিএস রেকর্ড জারী হয়। এরপর জহির মৃত্যু বরন করায়, জহির উদ্দিন মন্ডল ও খাতের মামুদ মন্ডল এর দুই ছেলে রহিম উদ্দিন ও আব্দুল আজিজ এর নামে এসএ রেকর্ড হয়। কিন্তু দির্ঘ সময় ওই জমির খাজনা পরিষদ না করায়, ১৯৬৬ সালে জমিটি নীলাম হয়ে যায়। নীলামের মাধ্যমে আব্দুর রহমানের স্ত্রী লতিফন বিবি ওই জমির মালিক হন। এরপর তিনিসহ সকলে লতিফন বিবির নিকট খরিদ করে দখল ভোগ করে আসছেন। লতিফন বিবির মৃত্যুরপর, লতিফন বিবির বাকী অংশ লতিফন বিবির দুই মেয়ের নিকট তিনি ও তার স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা খরিদ করেছেন।

 

হোমিও চিকিসক সোলায়মান হোসেন জানান, এই জমির মালিকানা দাবী করে তার প্রতিপক্ষরা সহকারী কমিশনার ভুমি আদালত ও পরে দিনাজপুর জজ আদালতে মামলা করেন, সেই মামলায় হোমিও চিকিৎসক সোলায়মান ও তার পুর্ব মালিক লতিফন বিবি রায় পায়।

 

এই হোমিও চিকিৎক আরো বলেন, এই জমি তার ও তার পুর্ব মালিকের ১৯৬৬ সাল থেকে ভোগ দখল ছিল, এরপর উচ্চ আদালতের রায় পেয়ে তার জমিতে ঘর নির্মান করার সময় গত ২০১৮ সারের ১২ ডিসেম্বর প্রতিপক্ষ ছমির উদ্দিন ও ছমির উদ্দিনের ছেলে মেয়েরা তার উপর হামলা করে। এই ঘটনায় তিনি মামলা দায়ের করার পর একটি প্রভাবশালী মহল ছমির উদ্দিনের পক্ষ নিয়ে তাকে মামলা প্রত্যাহার করার জন্য হুমকি দিয়ে আসছ। এতে করে তিনি ও তার পরিবার এখন নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছেন।

 

এদিকে হোমিও চিকিৎসক সোলায়মানের প্রতিপক্ষ ছমির উদ্দিন এই জমিটি একটি পিরস্থানের জমি বলে দাবী করে তারাও একটি মামলা দায়ের করেন ঐ চিকিৎসকের বিরুদ্ধে।

 

এই বিষয়ে ফুলবাড়ী থানার ওসি শেখ নাসিম হাবিব এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এই ঘটনায় উভায় পক্ষ মামলা দায়ের করেছে, উভায় পক্ষের আসামীরা আদালতের মাধ্যমে জামিনে রয়েছে, এর মধ্যে যে কয়জন এখনো জামিন নিতে পারেনি তাদেরকে আটক করার জন্য পুলিশ অভিযান পরিচালনা করছে।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
দিনাজপুর বিভাগের সর্বশেষ
দিনাজপুর বিভাগের আলোচিত
ওপরে