৭ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং ২২শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
চিলমারী ভাসমান তেল ডিপোটি পুটিমারী এলাকায়... বরগুনা রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির নির্বাাচনে সহ-সভাপতি... সিলেট জেলা আ.লীগের সভাপতি লুৎফুর, সম্পাদক নাসির বাড়াবাড়ির একটা সীমা আছে : প্রধান বিচারপতি গণমাধ্যম কর্মি শংকর দত্তের বাবার মৃ’ত্যুতে এমপি...

ফেনী পুরাতন মুন্সীর হাটের গুরু মাংশ ব্যবসায়ী শিপন’র গ্রাহক প্রতারনা

 মোঃ ইউনুছ ভূঞাঁ সুজন,ফেনী সমকালনিউজ২৪

গ্রাহক প্রতারনা সেরা,ওজনে কম, ফ্রেশ গরু মাংশ না দিয়ে কেজি প্রতি(৬০০ টাকা) নিয়ে চর্বি ও হাড় দিয়ে মাংশ সাথে মিশিয়ে গ্রাহক ঠকানো হচ্ছে।

এ বিষয়ে ফুলগাজী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সাইফুল ইসলাম সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, পবিত্র মাহে রমজান সাম্নে রেখে ভোগক্তভোগী ক্রেতাসাধারন, ভোক্তা অধিকার, দ্রব্যেরগুণা, দ্রব্যমল্যের সহনীয় রাখা, দ্রব্যের ভেজাল মুক্ত সহ অতিরিক্ত মুনাফা পাওয়ার লক্ষে যারা ওজনে কম, অসদাচরণ, ক্রেতাসাধারণ কে ঠকানো বিষয় মাথায় রেখে উপজেলা প্রশাসন প্রয়োজনীয় প্রদক্ষেপ গ্রহন করবেন বলে তিনি জানান।

অপরদিকে পুরাতন মুন্সির হাট বাজার সমীতির সভাপতি ও চেয়ারম্যান মোঃ নিজাম উদ্দিন মজুমদার’র কাছে এ বিষয়ে ফোনে জানতে চাইলে তিনি জানান, ক্রেতাসাধারণ’র কাছ থেকে গুরু মাংশ কেজি প্রতি ৬০০ টাকা হারে নিয়ে ফ্রেশ মাংশ না দিয়ে ওজনে কম, চর্বি,হাড মিশিয়ে মাংশ বিক্রি করার কোন সুযোগ নেই। এটা অপরাধ তাকে ডাকা হবে চেয়ারম্যান কার্যালয়ে। তিনি আরো জানান ইতি পূর্বে কেউ এমন প্রতিবাদ না করায় উক্ত প্রতিবেদ কে তিনি ধন্যবাদ জানান। তিনি বিষয়টি গুরুত্বের সহিত দেখবেন বলে জানান। এবং ভবিষ্যৎ এমন যাতে না হয় সকল ক্রেতা এবং বিক্রেতাদের প্রতি আহবান জানান।

এ ব্যাপারে তাৎক্ষনিক ফুলগাজী প্রেসক্লাবের একাংশের সভাপতি মোঃ মোর্শেদ’র সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ওজনে কম, ফ্রেশ গরুর মাংশ কেজি প্রতি ৬০০ টাকা হারে নিয়ে মাংশের সাথে হাড, চর্বি দিয়ে বিক্রি করা ঠিক না বলে তিনি জানান। তিনি আরো বলেন, ক্রেতা ও জনসাধারনের সাথে কোন রুকম খারাপ দূরব্যবহার কাম্য হতে পারেনা।

মাংশ ব্যবসায়ী শিপন’র কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন ৬০০ টাকা হারে কেজি প্রতি মাংশ চর্বি,হাড, এ্যানালগ পদ্ধতিতে দাড়ি পাল্লার মাপ সব মিলিয়ে নিতে হবে, না হলে কিছু করার নেই বলে বাজে ভাবে ক্রেতাকে দমক দিয়ে স্থান ত্যাগ করতে বলেন।

নাম প্রকাশে অনুচ্ছুক পাশের একাদিক ক্রেতা ও ব্যবসায়ী অভিযোগ করে বলেন, তাঁর আচার-ব্যবহার নোংরা,খুব বাজে ভাবে মানুষের সাথে ব্যহার করার কারনে অনেক ক্রেতা তাঁর কাছ থেকে মাংশ ক্রয় করতে যায় না।

জানা যায়, গুরু মাংশ হাডসহ কেজি প্রতি ৫৫০ টাকা, এবং হাড় ছাড়া ৬৫০টাকা হারে দাম চাচ্ছেন গুরু মাংশ ব্যবসায়ী শিপন।
তার পাশের দোকানে হাড়সহ ৫০০টাকা এবং হাড় ছাড়া ৬০০ বিক্রি হলেও তিনি অরিক্ত ৫০টাকা চাইতেছেন ক্রেতা সাধারনের কাছে।

ফেনী জেলা, ফুলগাজী বাসীসহ সকল ক্রেতাসাধারণ প্রানের দাবী পবিত্র মাহে রমজান কে’ সাম্নে রেখে জেলা ও উপজেলার সব বাজার গুলো যদি প্রশাসন বিশেষ নজরদারি করেন তবে। সাধারন জনগন প্রতারণার হাত থেকে রক্ষা পাবেন বলে সকলের বিশ্বাস রয়েছে।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ফেনী বিভাগের সর্বশেষ
ফেনী বিভাগের আলোচিত
ওপরে