৪ঠা জুন, ২০২০ ইং ২১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
স্টেপ প্রকল্পের দুর্নীতি তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি আগের ঢাকাটাকেই ফেরত পেয়েছি বর্ণবাদের শিকার গেইল, তুললেন ভয়ংকর অভিযোগ বাস ভাড়া কেন বাড়াবেন? সোনার দাম বৃদ্ধির রেকর্ড

বগুড়ায় ডিবির অ’ভিযানে ই’য়াবা ও ফে’ন্সিডিলসহ গ্রে’ফতার – ৩

 জিএম মিজান,বগুড়া, সমকালনিউজ২৪

বগুড়া জেলা গোয়েন্দা শাখার সোমবার রাতে ও মঙ্গলবার দুপরে একই টিমের পরিচালিত দুটি পৃথক মা’দকবি’রোধী অ’ভিযানে শহরের মাটিডালি বিমান মোড় এবং চারমাথা এলাকা থেকে ১ হাজার পিচ ই’য়াবা এবং ৪০ বোতল ফে’ন্সিডিলসহ ৩ জনকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে।

ই’য়াবাসহ গ্রে’ফতারকৃতরা হলেন : –  দিনাজপুরের হাকিমপুর থানার দক্ষিণ বাসুদেবপুর এলাকার আবু কালামের স্ত্রী রাবেয়া বিবি (৩৮) ও পাঁচবিবি থানার দরগাপাড়া এলাকার রুহুল আমিনের ছেলে রাকিবুল ইসলাম ওরফে রাকিব (২৩)।

ডিবির জালে ফে’ন্সিডিলসহ গ্রে’ফতারকৃত অপর আরেক আসামী হলেন বগুড়া শিবগঞ্জের শালদাও পদ্মপুকুর এলাকার মোমিন প্রাং এর ছেলে মোঃ গাজিউল (২৭)।

জানাযায়, জেলার মা’দক বি’রোধী অ’ভিযানে ভূমিকা রাখা চৌকস দুই কর্মকর্তা জেলা গোয়েন্দা শাখার এস.আই নাসিম উদ্দিন এবং ফয়সাল হাসানের নেতৃত্বে মা’দক বিক্রির জন্য অবস্থান করছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শহরের মাটিডালি বিমান মোড় এলাকায় মঙ্গলবার দুপুরে অ’ভিযান চালালে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালানোর সময় হাতেনাতে আসামী রাবেয়া বিবি ও চিহ্নিত আসামী রাকিবকে গ্রে’ফতার করা হয়।

পরে সাক্ষীগণের উপস্থিতিতে তাদের শরীর তল্লাশি করলে সীমান্ত এলাকা থেকে বিক্রির জন্য আনা রাবেয়ার হেফাজত হতে ৮’শ পিচ এবং রাকিবের নিকট হতে ২’শ পিচ সর্বমোট ১ হাজার পিচ ই’য়াবা উ’দ্ধার করে ডিবির ঐ টিম।

অপরদিকে ডিবির উক্ত চৌকস টিমের পৃথক আরেকটি অ’ভিযানে সোমবার রাতে শহরের চারমাথা এলাকাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমদানি নি’ষিদ্ধ ৪০ বোতল ফে’ন্সিডিল সহ একাধিক বিচারাধীন মা’মলার আসামী চিহ্নিত মা’দক ব্যবসায়ী গাজিউল কে গ্রে’ফতার করা হয়।

জেলা গোয়েন্দা শাখার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আছলাম আলী পিপিএম এ প্রতিবেদক-কে বলেন, গ্রে’ফতারকৃতদের বি’রুদ্ধে ইতিমধ্যে বগুড়া সদর থানায় মা’দকদ্রব্য নি’য়ন্ত্রণ আইনে পৃথক দুটি মা’মলা করা হয়েছে। জেলা পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে মা’দকের বি’রুদ্ধে এই অ’ভিযান চলমান থাকবে।

এদিকে মা’দকের বি’রুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষনা করা জেলা পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা বিপিএম (বার) এ প্রতিবেদক-কে বলেন, মা’দকের সাথে জড়িত কাউকে জেলা পুলিশের পক্ষে ছাড় দেওয়া হবেনা। শুধু মা’দক ব্যবসায়ী নয়, এই জগতের সাথে জড়িতদের যারা আশ্রয় বা শক্তি যুগিয়ে থাকে তাদেরকেও আইনের আওতায় আনা হবে। অন্যায়ের সাথে জেলা পুলিশ সর্বদা আপোষহীন মর্মে হুশিয়ারী দিয়ে জেলা পুলিশ সুপার বগুড়াকে মা’দক ও স’ন্ত্রাসমুক্ত জেলা হিসেবে গড়তে সকলকে তথ্য দিয়ে সহযোগিতার আহবান জানান।

 

‘বিদ্রঃ সমকালনিউজ২৪.কম একটি স্বাধীন অনলাইন পত্রিকা। সমকালনিউজ২৪.কম এর সাথে দৈনিক সমকাল এর কোন সম্পর্ক নেই।’

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে