৮ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ২৩শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
৭ই মার্চ উপলক্ষে হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজের ফ্রি... যথাযথ মর্যাদায় রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ এ... ৭ই মার্চ উপলক্ষে বরগুনা জেলা মুজিব অঙ্গনে শ্রদ্ধা... দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ চালক নি’হত; আহত- ৩ ঐতিহাসিক ৭ মার্চ; বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে...

বগুড়ায় তিন পৌর নির্বাচনে বিজয়ী নৌকা-১, ধানের শীষ-১, স্বতন্ত-১

  সমকালনিউজ২৪

জিএম মিজান,বগুড়া প্রতিনিধিঃ

বগুড়ায় শেরপুর, সান্তাহার ও সারিয়াকান্দি পৌর নির্বাচনে ভোট গ্রহন চলে শনিবার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। অবাধ,নিরপেক্ষ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোতায়েন করা হয়েছে। তিন পৌরসভার মধ্যে সারিয়াকন্দি এবং সান্তাহারে ইভিএমে এবং শেরপুরে ব্যালটের মাধ্যমে ভোট গ্রহণ হয়েছে ।

এই তিন পৌরসভার মধ্যে প্রায় দেড়শ’ বছরের প্রাচীণ প্রথম শ্রেণির পৌরসভা শেরপুর পৌরসভা যার আয়তন ১০ দশমিক ৬৯ বর্গ কিলোমিটার। ৫ বছরের ব্যবধানে সেখানে ভোটার বেড়েছে ৩ হাজার ১১৩। ২০১৫ সালে ভোটার ছিলেন ২০ হাজার ৬৪১ জন। বর্তমানে ভোটার রয়েছেন ২৩ হাজার ৭৫৪জন।

শেরপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে চার প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীক নিয়ে বর্তমান মেয়র ও উপজেলা আ’লীগের সভাপতি আব্দুস সাত্তার, বিএনপির ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে সাবেক মেয়র ও উপজেলা বিএনপির সদস্য স্বাধীন কুমার কুন্ড বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী জানে আলম খোকা জগ প্রতীক নিয়ে এবং হাতপাখা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ইমরান কামাল।

২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত আব্দুস সাত্তার ৮ হাজার ৯১১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী বিএনপি মনোনীত স্বাধীন কুমার কুন্ড পেয়েছিলেন ৬ হাজার ১৬৫ ভোট। শেরপুর পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী জানে আলম খোকা (জগ প্রতীক) ৮৭৭৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আওয়ামী লীগের প্রার্থী আব্দুস সাত্তার (নৌকা প্রতিক) ৩ হাজার ৬৮১ ভোট।

বগুড়ার পশ্চিমে আদমদীঘি উপজেলার রেলওয়ে শহর খ্যাত সান্তাহার পৌরসভা গঠিত হয় ১৯৮৮ সালে। প্রথম শ্রেণির এই পৌরসভার আয়তন ১০ দশমিক ৫৪ বর্গ কিলোমিটার। সান্তাহার পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে তিন জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করছেন এবার নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপির বর্তমান মেয়র তোফাজ্জল হোসেন ভুট্টোকে পূণরায় মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপি। ফলে আবারও ধানের শীষ নিয়ে ভোটের লড়াইয়ে নামছেন। এছাড়া নৌকা প্রতীকের আশরাফুল ইসলাম মন্টু, ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মনোনীত প্রার্থী হাতাপাখা প্রতীকের হাজি আব্দুর রাজ্জাক প্রতিদ্বন্দিতা করছেন।

২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে তিনি ৮ হাজার ৮৬৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আওয়ামী লীগ মনোনীত রাশেদুল ইসলাম রাজা পেয়েছিলেন ৮ হাজার ২৮৯ ভোট। পাঁচ বছরের ব্যবধানে এই পৌরসভায় ২ হাজার ৪৯০ ভোটার বেড়েছে মোট ভোটার ২৫ হাজার ৬৬৯জন। সান্তাহার পৌরসভায় ৩য় বারের মত মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি মোট ভোট পেয়েছেন ৭৭৮৮। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি আওয়ামী লীগ মনোনীত (নৌকা প্রতিক) আশরাফুল ইসলাম মন্টু পেয়েছেন ৭৪০২ ভোট। ৩৮৬ ভোটের ব্যাবধানে মেয়র তোফাজ্জল হোসেন ভুট্টু বিজয়ী হয়েছেন।

দুই দশক আগে ১৯৯৯ সালে গঠিত বগুড়ার পূর্বদিকে অবস্থিত সারিয়াকান্দি পৌরসভা যার আয়তন ৩ দশমিক ৫৭ বর্গকিলোমিটার। তৃতীয় শ্রেণির এই পৌরসভায় ৫ বছরের ব্যবধানে মাত্র ৩৯০জন ভোট বেড়েছে মোট ভোটার ১৪ হাজার ১৫৮জন। সারিয়াকান্দি পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে চার প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী মতিয়ার রহমান মতি, বিএনপি থেকে মনোনীত ধানের শীষের প্রার্থী সাবিনা ইয়াসমিন বেবী, সাবেক মেয়র টিপু সুলতানের সহধর্মিণী , আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান মেয়র আলমগীর শাহী সুমন নারিকেল গাছ প্রতীক নিয়ে এবং স্বতন্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা আলী আজগর জগ প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দিতা করছেন।

২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আলমগীর শাহী সুমন ৫ হাজার ৭৭৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছিলেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী বিএনপি মনোনীত প্রয়াত টিপু সুলতান পেয়েছিলেন ২ হাজার ৪৪৭ ভোট। সারিয়াকান্দি পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত মোঃ মতিউর রহমান মতি (নৌকা প্রতিক) ৬ হাজার ৫৭৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আলমগীর শাহী সুমন (নারিকেল গাছ) ২ হাজার ৭৯৬ ভোট।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে