১৫ই জুলাই, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ ৩১শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
পানির পরিবর্তে গ্যাস পেলেন এক কৃষক স্পেনে কমিউনিটি নেতা আবুল খায়ের বিদায়ী সংবর্ধনা... দুর্গাপুরে লোকালয়ে অজগর, জনতার হাতে মৃ’ত্যু পীরগঞ্জে আম ব্যবসায়ী হ’ত্যা ঘটনায় ৩ যুবক আটক বরগুনায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনায় ৮১কেজি নিষিদ্ধ কারেন্ট...

বগুড়ায় বন্ধুকে দিয়ে স্ত্রীকে ধ’র্ষণের ঘটনায় স্বামী রফিকুল গ্রে’ফতার

  সমকালনিউজ২৪

জিএম মিজান,বগুড়া ::

পরকীয়া সম্পর্কে বাধা দেওয়ায় বন্ধুকে দিয়ে স্ত্রীকে ধ’র্ষণ করানোর পর আগুনে পুড়িয়ে হ’ত্যার চেষ্টার ঘটনায় সেই স্বামী রফিকুল ইসলামকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে।

রোববার দুপুরে শহরের ঠনঠনিয়া কোচ টার্মিনাল থেকে গ্রে’ফতার করে। এদিকে এ ঘটনায় ওই গৃহবধুর বাবা আলম মন্ডল বাদী হয়ে শাজাহানপুর থানায় মা’মলা দায়ের করেছেন। অভিযোগটি তদন্ত শেষে রোববার সকালে তা এজাহার হিসেবে রেকর্ড করা হয়। মা’মলায় রফিকুল ইসলামকে প্রধান আসামী করা হয়। আর অজ্ঞাত দেখানো হয় ওই ধ’র্ষককে।

মা’মলায় আলম মন্ডল উলে­খ করেন,বিয়ের পর থেকে রফিকুল ইসলাম তার মেয়েকে অহেতুক নি’র্যাতন করে আসছিল এবং অন্য মেয়ের সঙ্গে পরকিয়া সর্ম্পক করে আসছিল রফিকুল। নি’র্যাতন সইতে না পেরে ২০১৮ সালে তার মেয়ে রফিকুল ইসলামের বি’রুদ্ধে নারী নি’র্যাতন আইনে মা’মলা দায়ের করেন। এ মা’মলা তুলে নিতে মাঝে মধ্যেই তার মেয়েকে নি’র্যাতন করতো। এরই এক পর্যায়ে শনিবার দুপুরে শহরের চকলোমান এলাকায় ওই ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা অ’গ্নিদগ্ধ ওই নারীকে উ’দ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করে। ঘটনার পর থেকে রফিকুল ইসলাম পলাতক ছিল।

জেলার গাবতলী এলাকার বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম ‘হানিফ পরিবহনের’ সুপারভাইজার হিসেবে কর্মরত। রফিকুল গত ২৪ জানুয়ারি স্ত্রী ও ৭ বছর বয়সী এক কন্যাকে নিয়ে শহরের চকলোকমান এলাকায় তার ভাইয়ের বাসা ভাড়া নেন।

স্থানীয়রা আরও বলেন, রফিকুল ইসলাম কয়েকদিন পর পর বাসায় আসতেন। তার সঙ্গে একাধিক নারীর পরকীয়া সম্পর্ক রয়েছে বলে তার স্ত্রী ইতিপূর্বে তাদের কাছে অভিযোগ করেছেন। এ নিয়ে দু’জনের মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া বিবাদও হতো। শনিবার দুপুর ১২টার দিকে রফিকুল ইসলামের স্ত্রী হঠাৎ চিৎকার দিয়ে বাড়ির বাইরে আসে। এ সময় তার জামায় আগুন জ্বলছিল এবং দু’হাত বাঁধা ছিল। এ দৃশ্য দেখার পর স্থানীয় এক ব্যক্তি আগুন নিভিয়ে তাকে উ’দ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই নারী সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেছেন, তার স্বামী রফিকুল ইসলাম সকালে তার এক বন্ধুকে নিয়ে বাসায় প্রবেশ করে। এক পর্যায়ে তারা দু’জনে মিলে তার হাত ও মুখ বেঁধে ফেলে। এরপর একটি ঘরে তুলে স্বামী তার বন্ধুকে ওই ঘরে ঢুকিয়ে দিয়ে তাকে ধ’র্ষণের নির্দেশ দিয়ে বাইরে দাঁড়িয়ে থাকে।

ধ’র্ষণের পর তাকে মারপিটের পর মাথার বেশ কিছু চুল কেটে ফেলা হয়। এক পর্যায়ে তার শরীরে আগুন ধরিয়ে দিয়ে বাড়ির বাইরে চলে যায়।

বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজীউর রহমান বলেন, ঘটনার পর থেকেই পুলিশ অভিযুক্ত রফিকুলকে গ্রে’ফতারে অভিযান শুরু করে। এরই মাঝে ঘটনাস্থল থেকে আলামত হিসেবে আগুনে পোড়া কাপড় ও কাটা চুল সংগ্রহ করা হয়। সেই সঙ্গে তাঁর ডাক্তারি পরীক্ষাও সম্পন্ন হয়েছে।

রাতেই নি’র্যাতিতা গৃহবধূর বাবা বাদি হয়ে শাজাহানপুর থানায় মা’মলা দায়ের করেন।

শাজাহানপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আজিম উদ্দিন এ প্রতিবেদক-কে বলেন, রবিবার দুপুরে শহরের ঠনঠনিয়া বাসস্ট্যাণ্ড এলাকা থেকে প্রধান আসামী রফিকুলকে গ্রে’ফতার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে