২৩শে জুলাই, ২০১৯ ইং ৮ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
রাজশাহীর চারঘাটে ছেলেধরা সন্দেহে ৫ এনজিও কর্মীকে... এসএমপির ১৬ নারী কনস্টেবলকে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ প্রদান দুর্গাপুরে ছেলেধরা সন্দেহে আটক – ১ কলারোয়ার বাঁটরায় বর্ষা মৌসুমের টমেটো চাষে আগ্রহ বাড়ছে... রিফাত হত্যা : রিশান ফরাজীর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

বগুড়ায় যৌতুকের জন্য জীবন দিল নববধূ

 জিএম মিজান বগুড়া সমকাল নিউজ ২৪

বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলায় মাত্র ২৫ হাজার টাকা যৌতুক না পেয়ে বাল্য বিয়ের শিকার এক নববধূকে স্বামী গলা টিপে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনার পর স্বামী রকি হোসেনসহ তার পরিবারের লোকজন পালিয়ে যায় বলে জানা গেছে।

সোমবার (১৩ মে) সকালে স্বামীর বাড়ির পাশ্ববর্তী বাঁশ ঝাড় থেকে নিহত ফারজানার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

জানা যায়, নন্দীগ্রাম উপজেলার আগাপুর গ্রামের দিনমজুর আবুল কালামের কিশোরী মেয়ে ফারজানার একমাস আগে বিয়ে হয় তারশুন গ্রামের মঞ্জুরুল ইসলামের ছেলে দিনমজুর রকি হোসেনের সঙ্গে।

সোমবার সকালে স্বামীর বাড়ির পাশের বাঁশঝাড়ে ড্রেনের মধ্যে ফারজানার মরদেহ দেখে পুলিশে খবর দেয় প্রতিবেশীরা। পুলিশ ঘটনাস্থলে আসার আগেই স্বামী রকি হোসেন ও তার পরিবারের লোকজন পালিয়ে যায়।

নিহত ফারজানার বাবা আবুল কালাম বলেন, রকি তার প্রথম স্ত্রীকে তালাক দেওয়ার পর ফারজানাকে বিয়ে করে। বিয়ের সময় কথা হয় যৌতুকের ২৫ হাজার টাকা এক বছর সময় নেওয়া হয়। কিন্তু ফারজানা স্বামীর বাড়ি যাওয়ার পর ঈদের আগেই টাকা দাবি করে আসছিল রকি।

তিনি আরও বলেন, যৌতুকের টাকা না পেয়েই ফারজানাকে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে। তবে প্রতিবেশীরা বলেছেন ফারজানা স্বামীর বাড়িতে আসার পর থেকে স্বামীর সঙ্গে কলহ লেগেই থাকতো।

নন্দীগ্রাম থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নুর মোহাম্মদ এ প্রতিবেদক-কে বলেন, নিহতের গলাসহ সারা শরীরে আঘাতের চিহ্ন দেখা গেছে। ধারণা করা হচ্ছে গলা টিপে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হতে পারে। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে তিনি জানান।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে