২১শে মে, ২০১৯ ইং ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
যাকাত দিলে সম্পদ বাড়ে ! ব্রীজ মেরামতে সময় ক্ষেপন তালতলী উপজেলা সদরের সাথে সারা... জামালপুরের দেওয়ারগঞ্জ পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে মামলার... বগুড়ায় গ্যাস ট্যাবলেট সেবনে কাকি ভাতিজা আত্মহত্যা ! বরগুনায় বশতঘর নির্মানে বাধা” ৩ লক্ষ্য টাকা চাদাঁদাবীর...

বগুড়া জেলা বিএনপির নতুন আহবায়ক কমিটি

 জিএম মিজান,বগুড়া/ সমকাল নিউজ ২৪

বগুড়া জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। সাবেক সংসদ সদস্য গোলাম মোহাম্মদ সিরাজকে আহবায়ক এবং অ্যাডভোকেট সাইফুল ইসলাম ও ফজলুল বারী তালুকদার বেলালকে যুগ্ম আহবায়ক করে ৩১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি প্রকাশ করা হয়।

বুধবার (১৫ মে) সকালে এই কমিটির কথা জানানো হয়। এর আগে মঙ্গলবার (১৪ মে) রাতে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটি এটি অনুমোদন দেয়।

তবে এই কমিটিতে জেলা বিএনপির পাল্টাপাল্টি দুইটি আহবায়ক কমিটির আহবায়কদের স্থান দেওয়া হয়নি। নতুন এই কমিটির খবর প্রচার হওয়ার পর থেকেই বগুড়ায় দলটির নেতাকর্মীদের মধ্যে চলছে নানা আলোচনা। তবে এই আহবায়ক কমিটিতে স্থান না পাওয়া জেলা বিএনপির সাবেক কোনো নেতাই নতুন কমিটি নিয়ে মুখ খুলছেন না।

তবে নতুন কমিটি সংক্রান্ত কোনো চিঠি এখন পর্যন্ত বগুড়ায় আসেনি বলে জানিয়েছেন জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ভিপি সাইফুল ইসলাম।

উল্লেখ্য, গত ২৯ এপ্রিল জেলা বিএনপির কার্যালয়ে সাধারণ সভার মাধ্যমে জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ভিপি সাইফুল ইসলাম আহবায়ক এবং সাবেক সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন চাঁনকে যুগ্ম আহবায়ক করে ৪৫ সদস্যের আহবায়ক কমিটি দেওয়া হয়।

সেদিন সন্ধ্যায় জেলা বিএনপির জ্যেষ্ঠ কিছু নেতা শহরের রিয়াজ কাজী লেনে সাবেক সংসদ সদস্য হেলালুজ্জামান তালুকদার লালুর বাসায় সভা করে পাল্টা আহবায়ক কমিটি দেন।

ওই কমিটিতে বগুড়া পৌরসভার মেয়র অ্যাডভোকেট একেএম মাহবুবর রহমানকে আহবায়ক এবং ফজলুল বারী তালুকদার বেলালকে যুগ্ম আহবায়ক করে ৩১ সদস্যের নাম রাখা হয়।

এরপর উভয় কমিটি অনুমোদনের জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়। এরই মধ্যে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দের সাথে অপ্রীতিকর ঘটনাকে কেন্দ্র করে জেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পরিমল চন্দ্র দাস ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শাহ মেহেদী হাসান হিমুকে দলের সব পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

এ ঘটনায় সাবেক সংসদ সদস্য গোলাম মোহাম্মদ সিরাজের ইন্ধন রয়েছে, অভিযোগ এনে জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে তার কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয় এবং তাকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে