২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং ৬ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
চাঁদপুরে ইলিশের আমদানী বাড়লেও দাম না কমায় হতাশ ক্রেতারা আত্রাইয়ে পানিতে ডুবে মাদ্রাসা ছাত্রীর মৃ’ত্যু; ১৯... পাইকগাছায় ভুয়া ঠিকানা দিয়ে বিয়ে করে দুই লক্ষ টাকা... বাল্যবিবাহ-ই’ভটিজিং-স’ন্ত্রাস ও মা’দক প্রতিরোধে... বরগুনায় ৬ষ্ট শ্রেনীর মাদরাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টার ...

বরগুনার বামনায় হত্যা মামলার আসামীর মারধরে সাংবাদিক আহত।

 মোঃআসাদুজ্জামান/ বরগুনা অফিস। সমকালনিউজ২৪

বরগুনার বামনায় হত্যা মামলার আসামীর মারধরে আহত হয়েছেন দৈনিক আমাদের সময় পত্রিকার বামনা উপজেলা প্রতিনিধি ও দৈনিক মানবজমিনের বরগুনা জেলা প্রতিনিধি মো. মিজানুর রহমান টিপু। গুরুতর অবস্থায় তাকে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গুরুতর আহত সাংবাদিক মিজানুর রহমান টিপু জানিয়েছেন, গত ২০১৪ সালে বরগুনা ডিসি অফিসের স্পীডবোট চালক মো. জব্বার খানকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এই ঘটনার সংবাদ দৈনিক আমাদের সময় পত্রিকাসহ বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ায় প্রচার হয়। পরে ওই হত্যাকান্ডের মামলাটি ডিবিতে তদন্ত করে। তাদের তদন্তে আরো ১২ জনের নাম আসে। পুলিশ ওই ১২জনের নাম চার্জশীটে অন্তর্ভূক্ত করেন। চার্জশীটিভূক্ত ওই ১২ আসামীর মধ্যে জেলা ছাত্রলীগ সহ-সভাপতি হেমায়েত হোসেন মোল্লা ৮নম্বর আসামী ছিলো। চার্জশীটের পরে সকল আসামী গা ঢাকা দেয়। ২০১৭ সালের ১৬ জুন গ্রেফতারী পরোয়ানা থাকা স্বত্তেও হেমায়েত হোসেন মোল্লা স্থানীয় সংসদ সদস্যের সাথে বামনা আসমাতুন্নেসা বালিকা বিদ্যালয় ও পাথরঘাটায় উপজেলা আওয়ামীলীগের ইফতার পার্টিতে অংশগ্রহন করেন। এই ঘটনায় পরের দিন দৈনিক আমাদের সময়ে প্রথম পাতায় “খুনের আসামীকে নিয়ে সাংসদের ইফতার” শিরোনামে সংবাদ ছাপা হয়। ওই সংবাদ প্রকাশের জেরে তাকেসহ অনেক সাংবাদিককে দেখিয়ে দেওয়ার হুমকী দেয়।

রবিবার (৩ ফেব্রুয়ারী) দুপুর ১টার দিকে বামনা উপজেলা সদরের হেমায়েত হোসেন মোল্লার ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান থেকে তার নিজ বাসার টাইলস ক্রয় করে। কিন্তু যে পরিমান টাইলস ক্রয় করেছে তার চেয়ে অধিক মূল্য রাখে হেমায়েত মোল্লা। এ বিষয়ে জানার জন্য পুনরায় তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গেলে ওই হত্যা মামলার আসামী তার উপর চড়াও হয়ে কিল-ঘুষি দেয়। একপর্যায়ে বাজার সড়কে ফেলে রড দিয়ে এলোপাথারী পিটিয়ে আহত করে। এসময় পার্শ্ববর্তী অপর এক ব্যবসায়ী মো. শাহিন আকন বাঁধা দিয়েও তাকে রক্ষা করতে পারেনি।

এ ঘটনায় বামনা প্রেসক্লাবের সভাপতি ওবায়দুল কবির আকন্দ দুলাল জানান, এভাবে চলতে থাকলে সাংবাদিকরা কখনো সত্য সংবাদ প্রকাশ করতে পারবেনা। এ ঘটনায় আইন শৃংখলা বাহিনী দ্রুত ব্যবস্থা না নিলে বামনা সাংবাদিকরা কঠোর কর্মসূচি গ্রহন করবে।

বামনা থানার অফিসার ওসি জিএম শাহ-নেওয়াজ বলেন, লিখিত অভিযোগ পেলেই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
বরগুনা বিভাগের সর্বশেষ
বরগুনা বিভাগের আলোচিত
ওপরে