২৩শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং ১০ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
সেফুদার বিরুদ্ধে ভিয়েনার আদালতে মামলা শ্রীলঙ্কা হামলার ‘মাস্টার মাইন্ড’ মাওলানা জাহরান... বগুড়ায় মদসহ তিন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার বগুড়ায় ছিনতাইচক্রের মূল হোতা আটক প্রেম বাড়াতে আসছে ‘ইনজেকশন’

বাগমারায় গলা কেটে যুবককে হত্যা,আটক ১

  সমকাল নিউজ ২৪

নাজিম হাসান,রাজশাহী প্রতিনিধি:
রাজশাহীর বাগমারা উপজেলায় কামরুল ইসলাম (৩০) নামে এক যুবককে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। সে উপজেলার বড়বিহানালী ইউনিয়নের মুরালীপাড়ার আমবাড়িয়া চান মিয়ার ছেলে। এঘটনায় রঞ্জু ইসলাম (৪৫) নামের এক দাদন ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। নিহত কামরুল ইসলাম এলাকায় সুদের ব্যবসা করতেন। বিষয়টি নিশ্চিত করে বাগমারা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আতাউর রহমান জানান, মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) বিকেলে কামরুল ইসলাম তার চাচাতো ভাইয়ের ১০০ সিসি’র হিরো হোন্ডা মটরসাইকেল নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। সে রাতে আর বাড়িতে ফিরে না আসায় তার পরিবারের লোকজন বিভিন্ন যায়গায় খুঁজাখুজি শুরু করেন। এবং তাকে না পেয়ে পরিবারের লোকজন রাতে বাড়ি ফিরে যায়। গতকাল বুধবার (১৯ এপ্রিল) সকাল সোয়া ৮ দিকে এলাকার লোকজন উপজেলার বড়বিহানালী ইউনিয়নের বিলসুতি বিলের রাস্তায় মটরসাইকেলটি পড়ে থাকতে দেখেন। এবং স্থানীয় লোকজনের মধ্যে সন্ধহের সৃষ্টি হলে তারা মটরসাইকেলের কাছে গিয়ে কামরুল ইসলামের জবাই করা লাশটি দেখতে পায়। এবং লোকজনের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে ছুটে এসে নিহত কামরুলের লাশটি দেখতে পায়। এবং পরে বিষয়টি বাগমারা থানা পুলিশকে অবহিত করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায় এবং নিহত কামরুল ইসলামের লাশের সুরুতহাল রিপোর্ট ঘটনাস্থলে তৈরী করে লাশটি ময়না তদন্তের জন্য লাশ উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। এঘটনার সাথে জড়িত থাকা সন্দেহে রঞ্জু নামের এক দাদন ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করে। এলাকার লোকজন জানান, মঙ্গলবার রাতে কোন এক সময়ে কামরুজ্জামনকে কে-বা কারা জবাই করে হত্যা করে বিলের ভেতর ফেলে রেখে তারা পালিয়ে যায়। নিহত কামরুল ইসলাম দীর্ঘদিন থেকে এলাকায় দাদন ব্যবসা চালিয়ে আসছে। দাদন ব্যবসাকে কেন্দ্র করে হত্যার ঘটনা ঘটতে পারে বলে অনেকই ধারনা করছেন। ওসি আতাউর রহমান আরো জানান, কামরুল ইসলামকে ধারালো চাকু দিয়ে জবাই করে হত্যা করা হয়েছে। এছাড়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকতা।#

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে