২৬শে মে, ২০১৯ ইং ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
সদরঘাট জিম্মি ‘খলিফা বাহিনী’র হাতে কৃষকের ঘরে বিয়ের ১১ বছর পর এক সঙ্গে চার সন্তান বাংলাদেশীদের পদচারণায় জমজমাট কলকাতার ঈদ বাজার! স্বামী সন্তানের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের... হঠাৎ কোটিপতি হয়ে যাওয়া এক নেতা

বাগমারায় বিয়ে বাড়িতে মোবাইলে ভিডিও ধারণ করায় হাতাহাতি

  সমকাল নিউজ ২৪

বাগমারা (রাজশাহী) প্রতিনিধি:
বিয়েতে যে কতো রকম আনন্দ তা সেখানে না গেলে বোঝা দায়। নাচ গান আর হাসি খুশির মধ্যে দিয়ে পার হয় বিয়ে বাড়ির অনুষ্ঠান। বর্তমানে বিয়েতে নতুন মাত্রা যোগ করেছে মোবাইলে ভিডিও ধারণ। মোবাইলে ভিডিও ধারণই যে কাল হয়ে ধরা পড়লো পূজার বিয়েতে। গত দু’দিন থেকে মহা সমারহের মধ্যে দিয়ে চলছিল বিয়ের সব আয়োজন। বৃহস্পতিবার রাতের লগ্ন মেনে সম্পন্ন হলো বিয়ের কাজ। সব কিছু শেষে হলেও বাঁকি ছিলো বিদায়ের আগে বরযাত্রী সহ আত্মীয় স্বজনের দুপুরের খাবার। খাবার আগে শেষ বারের মতো বিয়ে বাড়ির স্মৃতি স্মরণীয় করে রাখতে বরযাত্রীদের মধ্যে থেকে একটি ছেলে মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করছিলেন। সে সময় মোবাইল ফোনে ধারণ করা ভিডিওতে কনে পক্ষের মেয়েদেরকে ধরা হয়। এ সময় কনে পক্ষ এবং বর পক্ষের লোকজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি বাধে মোবাইল ফোনে কেন ভিডিও ধারণ করা হলো। বিষয়টি নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি বাঁধে। এক পর্যায়ে মারামারি শুরু হয়। ঘটনাটি ঘটেছে রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার মচমইলে। মচমইলে বসবাসরত ক্ষুদ্র ও নৃ-গোষ্ঠি সম্প্রদায়ের আকালুর মেয়ে পূজা রানীর সাথে তানোর উপজেলার আজিজপুর গ্রামের বিমল সিং এর ছেলে পরিমল সিং এর বিয়ের অনুষ্ঠানে এই সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। বরপক্ষের লোকজনের সাথে কনে পক্ষের লোকজনের এমন আচরনের কারনে দুপুরে না খেয়েই বাড়ি চলে যেতে লাগে বরযাত্রী। এমন সময় ওই রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন শুভডাঙ্গা ইউনিয়ন আ’লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আজাহার আলী। তিনি সেখানে দাঁড়িয়ে উভয় পক্ষের লোকজনের কথা শুনে এবং তাদের মধ্যে বিবাদমান ঘটনার সমঝোতা করে দেন। সেই সাথে সকল দ্বিধাদ্বন্দ্ব ভুলে বিয়ের খাওয়া দাওয়ার ব্যবস্থা করে দেন।#

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
রাজশাহী বিভাগ বিভাগের সর্বশেষ
ওপরে