২১শে মে, ২০১৯ ইং ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
গাড়ি থেকে নেমে কৃষকের ধান কাটতে মাঠে নেমে গেলেন... রাজারহাটে নন এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো ক্রমশ বিলীন... আইসিসির দেওয়া ‘বিশেষ সুযোগ’ নিচ্ছে না বাংলাদেশ! হানিমুন থেকে ফিরেই শ্রাবন্তীর স্বামীর মাথায় হাত ! বহিষ্কার হয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা সেই ছাত্রলীগ নেত্রীর

বাগমারায় ভুমি অফিসের দূর্নীতির বিরুদ্ধে ইউএনও’র অভিযান শুরু

  সমকাল নিউজ ২৪

মাহফুজুর রহমান প্রিন্স:
দূর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করেছেন বাগমারার ইউএনও জাকিউল ইসলাম। অভিযানের অংশ হিসাবে গতকাল সোমবার দিনব্যাপি ইউএনও জাকিউল ইসলাম উপজেলার তিনটি ইউনিয়ন ভুমি অফিসে গণশুনানীর আয়োজন করেন। ইউনিয়ন ভুমি অফিসগুলো হলো বীরকুৎসা, তাহেরপুর ও একডালা ভুমি অফিস।

বাগমারা ইউএনও’র কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বিভিন্ন ভুমি অফিসে সেবা গ্রহীতারা বিভিন্ন সেবা নিতে গিয়ে নানান ভাবে হয়রানীর শিকার হচ্ছে। সেখানকার কতিপয় কর্মকর্তা কর্মচারীদের অসৎ আচরনের কারণে সেবাগ্রহীতাদের দূর্ভোগের বিষয়টি ইউএনও’র নজরে আসে। গত রবিবার বীরকুৎসা ভুমি অফিসের পিয়ন(বর্তমানে বড়বিহানালীতে কর্মরত) রবিউল ইসলামের বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহন ও হয়রানীর বিষয়ে অভিযোগ নিয়ে আসেন তিন ভুক্তভোগি। তারা পিয়ন রবিউল ইসলামকে খাজনার চেক কাটা বাবদ প্রায় ১০ হাজার টাকা প্রদান করেও খাজনার চেক না পাওয়ার বিষয়টি ইউএনও’র কাছে অভিযোগ দাখিল করে। পরে ইউএনও বিষয়টি তদন্ত করে সত্যতা পেয়ে অভিযোগকারিদের টাকা ফেরতের ব্যবস্থা করে দেন। এই ঘটনা ছাড়াও বাগমারার অন্যান্য ভুমি অফিসের নানান দূর্নীতি ও অনিয়মের বিষয়টি ইউএনও’র নজরে আসায় তিনি ওইসব ভুমি অফিসে সরাসরি উপস্থিত হয়ে গণশুনানীর আয়োজন করেন।

গতকাল যোগিপাড়া ইউনিয়নের বীরকুৎসা ভুমি অফিসে অনুষ্ঠিত গণশুনানীতে প্রায় শতাধিক বিভিন্ন শ্রেনিপেশার লোকজন অংশগ্রহন করেন। তারা ইউএনওকে এত কাছে পেয়ে তাদের ভুমি সংক্রান্ত বিভিন্ন সমস্যার কথা তলে ধরেন। এ সময় ইউএনও ধৈর্যসহকারে তাদের কথা শুনেন এবং বিভিন্ন পরামর্শ প্রদান করেন। এ সময় ইউএনও উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা যে কোন সমস্যার বিষয়ে সরাসরি আমাকে মোবাইল করবেন এবং প্রয়োজনে সরাসরি আমার অফিসে চলে আসবেন। যোগিপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান কামাল হোসেন বলেন, তার ইউনেয়নের ভুমি অফিসে এ ধরনের গণশুনানী এই প্রথম । এতে লোকজন ভুমি সংক্রান্ত অনেক বিষয়ে জানতে পারছে এবং তাদের হয়রানীও অনেক লাঘব হচ্ছে। প্রায় একই অভিমত ব্যক্ত করে তাহেরপুর কলেজের অধ্যক্ষ তোফাজ্জল হোসেন বলেন, ভুমি সংক্রান্ত অনেক বিষয়ে সাধারন মানুষের সাথে ইউএনও’র সরাসরি কথা বলার সুযোগ সৃষ্টি হওয়ায় এবং তাদের সমস্যা তুলে ধরায় তারা সহজেই এসবের সমাধান নিতে পারছে। তাহরেপুর ভুমি অফিসের গণশুনাীতেও প্রায় শতাধিক লোকজন উপস্থিত ছিলেন। একই দিন বিকেল একডালা ভুমি অফিসে আরো একটি গণশুনানী অনুষ্ঠিত হয়। এখানেও লোহজন স্বতঃস্ফূর্তভাবে ইউএনওকে কাছে পেয়ে তাদের নানান সমস্যার কথা তুলে ধরেন।

এ বিষয়ে বাগমারার ইউএনও জাকিউল ইসলাম বলেন, দূর্নীতির বিরুদ্ধে সবাইকে সচেতন হতে হবে। সরকারি ভুমি অফিসে সেবা গ্রহনের বিষয়ে সাধারন মানুষ যাতে হয়রানী ও ভোগান্তির শিকার না হয় তার জন্য গণশুনানীর ব্যবস্থা করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সকল ভুমি অফিস ও অন্যান্য সরকারি সেবা প্রতিষ্ঠানে একই ধরনের উদ্যোগে গ্রহন করা হবে।

 

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
রাজশাহী বিভাগ বিভাগের সর্বশেষ
ওপরে