১৬ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং ১লা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
ঝালকাঠিতে ৫ম শ্রেনীর ছাত্রীকে যৌ’ন নিপড়ন, দিনে থানায়... স্ত্রীর মর্যাদা না পেয়ে স্বামীর বাড়িতে কাবিননামা... জয়নগর ইউনিয়ন আওয়ামিলীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিলের... নওগাঁয় হাসপাতাল থেকে চুরি যাওয়া শিশু ১১দিন পর উ’দ্ধার আবরার হ’ত্যার ন্যয়বিচারের দাবীতে চাঁদপুরে মানববন্ধন...

বাগমারা উপজেলা পরিষদ চত্তরে বখাটের উৎপাতে অতিষ্ঠ জনজীবন

  সমকালনিউজ২৪

মাহফুজুর রহমান প্রিন্স, বাগমারা থেকে:
রাজশাহীর বাগমারা উপজেলা পরিষদ চত্তরে বখাটেদের মিলন মেলা বসেছে। এই বখাটের অধিকাংশই স্কুল কলেজগামী শিক্ষার্থী। এছাড়া অছাত্র বখাটেও রয়েছে। এসব বখাটেরা দিনের বেল স্কুল কলেজ ফাঁকি দিয়ে তাদের প্রেমিকা নামধারী নষ্ঠা মেয়েদের ক্যাম্পাসে এনে ঘন্টার পর ঘন্টা আড্ডা দেয়। কখনও কখনও ওই সব মেয়েদের সাথে নিয়ে ক্যাম্পাসের আনাচে কানাচে গিয়ে বিভিন্ন নেশা দ্রব্য গ্রহন করে অসামাজিক কর্মকান্ডে লিপ্ত হয়। এসব আড্ডাবাজ প্রেমিকরুপি বখাটেরা প্রায়ই উপজেলা ক্যাম্পাসের ভিতরে খুব দ্রুত গতিতে মটরসাইকেল চালিয়ে বিভিন্ন অঙ্গভঙ্গিমা করে। তাদের এমন বেপরোয়া গতির গাড়ি চালনায় প্রায় ক্যাম্পাসে দূর্ঘটনায় ক্যাম্পাসের শিশৃু কিশোররা আহত হয়। তাদের অত্যাচারে ক্যাম্পাসের বসবাসকারী নারী পুরুষরাও সকাল বিকেলে হাঁটাহাঁটি ও স্বাভাবিক চলাচল করতে বিড়ম্বনায় পড়েন। খোদ উপজেলা প্রশাসনের নাকের ডগায় এমন উশৃঙ্খল কর্মকান্ড চলায় হতাশ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ক্যাম্পাসে বসবাসকারী কর্মকর্তা কর্মচারীগন। উপজেলা পরিষদ কোয়ার্টারে বসবাসকারী কয়েকজন কর্মকর্তা কর্মচারী ও অভিভাবক সূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি এই ক্যাম্পাসে অবৈধঅনুপ্রবেশকারী বহিরাগত কথিপয় বখাটের অত্যাচর এতই বেড়ে গেছে যে দিনের বেলায় তাদের অত্যাচারে ক্যাম্পাসে চলাচল দূরহ হয়ে পড়ে। তারা এতই বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল চালায় যে ক্যাম্পাসের রাস্তা দিয়ে সাধারন লোকজন চলাচল করতে ভয় পায়। ভুক্তভোগি ৪/৫জন অভিভাবকরা জানান, গত ২৬ শে মার্চ কয়েকজন বখাটে পাল্লা দিয়ে মোটরসাইকেল চালানো শুরু করে। এ সময় তাদের মোটরসাইকেলের বেপরোয়া গতির কারণে ক্যাম্পাসে বসবসকারী নৈশ প্রহরী সাকলাইনের শিশু সন্তান বাইসাইকেল চালানোর সময় ওই মোটরসাইকেলের সাথে ধাক্কা লাগে। এতে সাকলইেনের ছেলে সাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে মারাত্বক আহত হয়। এ সময় স্থানীয় পথচারী তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় ক্লিনিকে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়। বেপরোয়া মটরসাইকেলে শিশু আহত করে ওই বখাটে তার সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে দ্রুত ক্যাম্পাস থেকে সটকে পড়ে। একই ভাবে তার আগের দিন কাম্পাস সংলগ্ন শেখপাড়া মহল্লার এক শিশু উপজেলা শিশু পার্কে খেলা করার সময় বখাটের বেপরোয়া গতির মটরসাইকেলের সাথে ধাক্কা খেয়ে মাথায় ও পায়ে গুরুতর আঘাত প্রাপ্ত হয়। অভিযোগ রয়েছে, এসব বখাটেরা স্কুল কলেজের সময় স্কুল কলেজে না গিয়ে তারা ক্যাম্পাসে মোবাইল ফোন ও মটরসাইকেল নিয়ে আড্ডায় মেতে ওঠে। তারা ক্যাম্পাসের আকাচে কানাচে নেশা দ্রব্যও পান করে থাকে। অনেক বখাটে তাদের প্রেমিকা নামধারী কথিপয় নষ্টা মেয়েদের ক্যাম্পাসে এসে তাদের সাথে নিয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা আড্ডা দেয় ও অসামাজিক কর্মকান্ডে লিপ্ত হয়। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সিদ্দিকুর রহমান অভিযোগ করে বলেন, ক্যাম্পাস এখন বখাটের দখলে চলে গেছে। এখানে নিরাপদ বসবাস করা দুস্কর হয়ে পড়েছে। তার মতে এখানে বহিরাগত বখাটেরা এতই বেপরোয়া গতিতে মটরসাইকেল চালায় যে তাদের কারণে ক্যাম্পপাসর রাস্তা দিয়ে চলাচল করা কঠিন হয়ে পড়ে। তিনি আরো অভিযোগ করে বলেন, ক্যাম্পসে বখাটের এমন বেপরোয়া গতিবিধির বিষয়টি গত উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় তুলে ধরা হয়েছে। তার পরও প্রশাসনের পক্ষ থেকে এর কোন প্রতিকার পাওয়া যায়নি। একই অভিযোগ করে উপজেলা পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের সমন্বয়ক আজাহার আলী জানান, উপজেলা পরিষদের শিশুপার্ক এলাকায় বখাটেরা এতই আধিপত্য বিস্তার করে চলেছে তাদের কারণে শিশুপার্কে কোন ভদ্রলোকজন শিশুপার্কে প্রবেশ করতে বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। তাদের কোন চক্ষুলজ্জা নেই। তারা সেথানে মেয়ে মানুষ ও মোবাইল ফোন নিয়ে অতটাই অশালীন ভাবে আড্ডায় মেতে ওঠে সেদিক দিয়ে যাতাযাত করা দুস্কর হয়ে পড়ে। উপজেলায় কর্মরত এক এমএলএসএস(পিয়ন) নাম প্রকাশ না করে জানান, আমরা নিম্ন পদে চাকুরী করি। এসব অভিযোগ কার কাছে জানাব। স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী লোকের ছেলে মেরেরা লেখা পড়া দিয়ে তারা স্কুল কলেজ ফাঁকি দিয়ে এখানে এসে যেসব অশ্লীল কর্মকান্ডে লিপ্ত হয় তা ভাষায় প্রকাশ করার মত নয়। স্থানীয় কয়েকজন অভিভাবকরা জানান, উপজেলা ক্যাম্পাস একটি নিরাপদ ও সংরক্ষিত স্থান। সেখানে এমন বেহায়য়াপনা কর্মকান্ড চলায় আমরা হতাশ হয়ে পড়েছি। তারা অচিরেই এসব কর্মকান্ড বন্ধ করে উপজেলা পরিষদ চত্তরের নিরাপত্তা ও পবিত্রতা ফিরিয়ে আনার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আইনী পদক্ষেপ নেওয়ার দাবী জানিয়েছেন। এসব বিষয়ে জানতে চাইলে বাগমারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকিউল ইসলাম ক্যাম্পাসের এমন বেহাল দশার অভিযোগ স্বীকার করে বলেন, উপজেলা ক্যাম্পাসকে শান্তি ,নিরাপদ ও সুন্দর ক্যাম্পাসে পরিনত করার কাজ হাতে নেওয়া হয়েছে। এছাড়া বখাটের উৎপাতসহ অন্যান্য যে সব ছোটখাট সমস্যা রয়েছে আমরা অচিরেই সেগুলোর সমাধান করে একটি মডেল ক্যাম্পাস গড়ে তোলা হবে।#

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে