১৪ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং ২৯শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
বরগুনায় আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস পালিত... বরগুনায় বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশে পুলিশের লাঠিচার্জ॥... আমতলীতে সময় মেডিকেয়ার এন্ড হসপিস এর ক্লিনিক্যাল... ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা আ’লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে... সনাতন ধর্মালম্বিদের আজ কোজাগরী লক্ষ্মীপূজা

বানারীপাড়ায় ১২০ বছরের বৃদ্ধ’র দায়িত্ব নিলেন এএসআই জাহিদ

 মো. সুজন মোল্লা,বানারীপাড়া সমকালনিউজ২৪

জেলার বানারীপাড়া উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের উত্তর বাইশারী গ্রামের আ. কাদের হাওলাদার (১২০) বর্তমানে বয়সের ভারে ঠিকমতো চলাফেরা করতে পারছেন না তিনি। এই বয়সেও তার ঠাঁই হয়নি নিজ ঘরে। দুই ছেলে ও তিন মেয়ে তার। বড় ছেলে সুলতান হাওলাদার (৬০) ও ছোট ছেলে জামাল হাওলাদার (৫০)। ছেলেরা পিতার দেখভাল করাতো দুরের কথা কোন প্রকার খোঁজ খবরও রাখেন না তার। শেষ পর্যন্ত তার দায়িত্ব নিলেন বানারীপাড়া থানার এএসআই মো. জাহিদ হোসেন।

জানা গেছে কয়েক বছর পূর্বে বৃদ্ধ আ. কাদের তার নিজ নামে রেকর্ডিয় কিছু পরিমান সম্পত্তি বিক্রি করতে চাইলে তার তিন মেয়ে মিলে সেই সম্পত্তি ক্রয় করেন। পরে তার নামের অন্য সম্পত্তি দুই ছেলে ও তিন মেয়ের মধ্যে ভাগভাটোয়ারা করে দিতে চাইলে বাধ সাজে ছেলেরা। এর পর থেকেই ছেলেদের কাছে পিতা হয়ে যান বড় এক বোঝা। মাথা গোঁজার ঠাঁই হারিয়ে ফেলেন ছেলেদের কাছ থেকে। অর্ধাহারে অনাহারে চলতে থাকে বৃদ্ধ’র দিনের পর দিন। পরবর্তীতে মেয়েদের কাছে ঠিকানা খুঁজে পান শেষ বয়সে ঠিকানা হারিয়ে অসহায় হয়ে পড়া বৃদ্ধ আ. কাদের হাওলাদার।

এরই মধ্যে ভাইয়েরা বোনদের বিরুদ্ধে বানারীপাড়া থানায় সম্পত্তি নিয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। বোনেরাও উপায়অন্ত না পেয়ে ভাইদের বিরুদ্বে পাল্টা একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

তদন্তভার পান বানারীপাড়া থানায় দায়িত্বরত এএসআই মো. জাহিদ হোসেন। তিনি জানান উভয়ের অভিযোগে বোনদের তেমনকোন ত্রæটি নেই। পরে সরেজমিনে গিয়ে যা দেখলাম তা রিতিমতো শিউরে ওঠার মতো। ১২০ বছরের বৃদ্ব আ. কাদের’র অবস্থা অনেক দূর্বল ও দূর্বিসহ। চলাফেরা ও খাওয়া দাওয়া একে বারেই করতে পারছেন না তিনি। প্রয়োজন উন্নত চিকিৎসার। মেয়েদের তেমন কোন সম্বলও নেই যে, পিতাকে বড় ধরণের কোন হাসপাতালে ভর্তি করিয়ে ভালভাবে চিকিৎসা করাবেন। যথাযথো চিকিৎসার অভাবে আ. কাদের হাওলাদারের শরীর বর্তমানে অনেকটা কংকালের মতো হয়ে গেছে।

এএসআই জাহিদ জানান উভয়ের অভিযোগে যাই হোক সেটা পরের বিষয়,এই বৃদ্ব’র চিকিৎসার জন্য প্রতিমাসে ১ হাজার টাকা ও খাওয়া দাওয়ার জন্য তার প্রতি মাসের সম্পূর্ণ রেশন তাকে দান করবেন।

২৭ মার্চ বুধবার সকালে এএসআই জাহিদ হোসেন বৃদ্ধ আ. কাদেরকে নগদ ১ হাজার টাকা ও তার এক মাসের রেশন দান করেছেন।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
বরিশাল বিভাগের সর্বশেষ
বরিশাল বিভাগের আলোচিত
ওপরে