২১শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং ৮ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
আমি চাইলে নিশ্চয় দোষের হবে না বিমানের টয়লেটে মিলল ১৪ কেজি সোনা পিরোজপুরের নাজিরপুরে শেখ হাসিনা সেতুর উদ্বোধন করলেন... রাজাপুর ভিজিডি কার্ড বিতরণে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ স্কুলছাত্রী নিপাকে কৃত্রিম পা লাগাতে নেয়া হবে বিদেশে

বামনায় যুবকের গলায় ফাঁস দিয়ে আত্বহত্যা

 মিজানুর রহমান সুমন,বামনা সমকাল নিউজ ২৪

বরগুনার বামনা উপজেলার কলাগাছিয়া গ্রামের মোঃ আইউব আলীর একমাত্র ছেলে মোঃ আলআমীন (২৪) ঘড়ের পাশে কাঠাল গাছের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্বহত্যা করেছে বলে জানাযায়।

ঘটনা সুত্রে জানাযায় পারিবারিক কলহের জের ধরে এমন ঘটনা ঘটিয়েছে আলামীন।

তবে আলামীনের বাবা মোঃ আইউব আলী জানান আমার ছেলে নির্দোষ আমার পুত্রবধুর অত্যাচার সইতে নাপেরে সে এমন কাজ করেছে এর বেশি আমি আর কিছু বলতে পারিনা। রাতে পুত্রবধু ১২টার দিকে ডাকদিয়ে বলে আপনার ছেলে কাঠাল গাছে ঝুলছে আমি সাথে সাথে গাছে উঠে আমার বাবার পা দুটো জাগিয়ে ধরি তখন দেখি তার শরীর শক্ত হয়ে গেছে আমার বুজতে আর বাকী নাই বাবা আর বেচে নেই । এলাকার লোকজনের কথায় আমি আর লাশ নামাইনি সারারাত বাবা আমার ঝুলন্ত ছিল সকালে পুলিশ এসে লাশ নামিয়েছে।

এদিকে আলামীনের মা জানান আমি কিছুই যানিনা বেশ কিছুদিন ধরে তাদের মধ্যে সম্পর্ক ভালো যাচ্ছিলোনা এটা নিয়ে এলাকার চেয়াম্যান মেম্বর ও থানা পর্যন্ত গড়িয়েছে । তবুও আমরা চেয়েছি আমার একমাত্র ছেলে নিজে পছন্দ করে বিয়ে করেছে তারপরে আবার তাদের ঘড়ে একটি পুত্র সন্তান হয়েছে তার বয়স ও প্রায় ৫ মাস ওরা যেভাবে ভালো থাকে আমরা তাতেই খুশি । কিন্ত গতকাল রাত ১২টার দিকে আমার পুত্রবধু আমাকে ডেকে বলে মা আপনার ছেলে কাঠাল গাছে গলায় ফাঁস দিয়েছে শুনেই আমি হতবাক হয়ে যাই কোন কিছু বুজে ওঠার আগেই বাহিরে নেমে দেখি আমার বাবা গাছে ঝুলছে আপনারা আমার ছেলেকে আমার বুকে ফিরিয়ে দেন আমি আর কিছু চাইনা।

আলামীনের স্ত্রী জানায় আমার স্বামী নেশা করতো গতকালও আমি দেখেছি ইয়াবা সেবন করে তখন রাত আনুমানিক ৮.৩০ মিনিট হবে এর পরে সে বাহিরে গেছে আমার ঘড়ের দরজা খোলা ছিল অনেক রাত হয়েছে এখনো ঘড়ে ফিরেনা বিধায় আমি জানালা দিয়ে বাহিরে তাকিয়ে দেখি ঘড়ের পাশে কাঠাল গাছের সাথে সে ঝুলছে তখন আমি আমার শশুর শাশুরীকে ডাক দেই তাদের ও আমার ডাক চিৎকারে এলাকার লোকজন জরো হয় এরপরে থানায় খবর দেয়া হলে সকালে পুলিশ আসে ।

বামনা থানার অফিসার ইনচার্জ জানান আমরা একটি অপমৃত্যুর খবর পেয়েছি সকালে আমার পুলিশ গিয়ে লাশ নিয়ে এসেছে ময়না তদন্তের জন্য বরগুনা পাঠানো হয়েছে তবে সঠিক ঘটনা উদঘাটন করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে এর আগে একটি অপমৃত্যুর মামলার প্রস্ততি চলছে।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
বরগুনা বিভাগের আলোচিত
ওপরে