২৩শে আগস্ট, ২০১৯ ইং ৮ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
বগুড়ার অ’বৈধ স্থা’পনা উ’চ্ছেদ করলেন ইউএনও ভ্রা’ম্যমান আদালত অ’ভিযান চালিয়ে দু’টি... ছাত্র-ছাত্রীদের ভোটের মাধ্যমে সেরা শিক্ষক নির্বাচিত স্কুল শিক্ষিকা জয়ন্তী রানী’র হ’ত্যাকারীদের ফা’সির... ভূরুঙ্গামারীতে কিশোরীকে ধ’র্ষণ শেষে হ’ত্যার...

বালিয়াডাঙ্গীর ভানোর ইউনিয়নে অতিরিক্ত জন্মনিবন্ধনের ফি নেওয়ার অভিযোগ

 ইলিয়াস আলী,ঠাকুরগাঁও, সমকাল নিউজ ২৪

ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ৬ নং ভানোর ইউনিয়ন পরিষদে ২০০ টাকা বা তারও বেশি জন্মনিবন্ধনের ফি নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে৷

ভানোর ইউনিয়নের ইউডিসি নবাব আলীর বিরুদ্ধে জন্মনিবন্ধন ফি ২০০ টাকা বা তারও বেশি নেওয়ার অভিযোগ দিয়েছেন আমাদের প্রতিনিধিকে৷

মোহাম্মদ আলী রুবেল অভিযোগ দিয়ে বলেন, আমি বিদেশ ছিলাম সেখান থেকে দেশের বাড়ি আসার সময় মলম পার্টি আমার সকল কাগজপত্র নিয়ে যায়৷তাই বাড়ি এসে আমি আমাদের ইউনিয়ন পরিষদে জন্মনিবন্ধন তুলতে যায় ৷পরিষদে গিয়ে ইউডিসি নবাব আলীকে জন্মনিবন্ধন তুলতে হবে বলি এবং কত টাকা ফি জানতে চাই? তখন সে বলে ২০০ টাকা ৷ আমি সরকারি ফি কত টাকা জানতে চাইলেও একই উত্তর দেয় এবং ১৮০ টাকা আমার কাছ থেকে নিয়ে জন্মনিবন্ধন টা হাতে ধরিয়ে দেয় ৷

একই ইউনিয়নের রফিকুল ইসলাম অভিযোগ দিয়ে বলেন, আমি জন্মনিবন্ধন তুলতে গেলে আমার কাছে ১৮০ টাকা চায়, আমি টাকা কম দিতে চাইলে আমার সামনে জন্মনিবন্ধনের কপিটা ছিড়ে ফেলে দেয়৷

কয়েকজন ইউনিয়নবাসী বলেন, ২০০ থেকে শুরু করে সুযোগ পেলে তারও বেশি নিচ্ছেন একটা জন্মনিবন্ধনের কাগজ তুলতে আর গ্রামের অনেক মানুষ মূর্খ হওয়ায় বাধ্য হচ্ছেন টাকা দিতে ৷

আমাদের প্রতিনিধি জন্মনিবন্ধন তুলতে গেলে তার কাছেও ২০০ টাকা চায়, তিনি সরকারী ফি কত টাকা জানতে চাইলে ইউডিসি নবাব বলেন, ২০০ টাকা ৷

ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মহসিন আলী বলেন, এমন অভিযোগ আমিও পেয়েছি, তাই চেয়ারম্যান সাহেব কে বলে সরকারি ফি মোতাবেক একটা চার্ট লাগানোর ব্যবস্থা করবো যাতে বেশি চাকা না নিতে পারে৷

ইউনিয়নের সচিব দবিরুল ইসলামের কাছে আমাদের প্রতিনিধি জানতে চাইলে বলেন, ১-৫ বছরের জন্য সরকারি ফি ২৫ টাকা+প্রিন্ট ফি ২০ টাকা আর ৫ বছরের উর্ধ্বে সরকারি ফি ৫০ টাকা+প্রিন্ট ফি ২০ টাকা৷
টাকা বেশি নেওয়ার কথা জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন এ বিষয়ে আমি কিছু জানিনা৷ আমার কাছে স্বাক্ষর নিতে আসলে আমি দিয়ে দেয় ৷কার কাছে কত নেয় সেটা জানিনা ৷

অত্র ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াহাব সরকারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ও তো বেতন পায়না তাই একটু বেশি নেয়৷আমি ওকে বলে দিব আর বেশি নিবেনা৷

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ভারপ্রাপ্ত ইউএনও আব্দুল্লাহ্ আল মামুন এর কাছে আমাদের প্রতিনিধি জানতে চাইলে তিনি বলেন,বিষয়টি আমি জানিনা কারণ আমি কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি ৷ তবে এখন যেহেতু জানলাম বিষয়টি আমি তদন্ত করে দেখবো৷

জন্মনিবন্ধন ফি সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, সরকারি ফি মোতাবেক নিতে বলা হয়েছে তবে কারও আপত্তি না থাকলে ১০০ টাকা পর্যন্ত নিতে বলা হয়েছে ৷

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ঠাকুরগাঁও বিভাগের সর্বশেষ
ঠাকুরগাঁও বিভাগের আলোচিত
ওপরে