২০শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং ৫ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
ঝালকাঠিতে ইলিশ নিধন অ’পরাধে তিন জেলেকে কা’রাদ’ন্ড বগুড়ায় সাংবাদিক পীর হাবিবের বি’রুদ্ধে অপপ্রচারের... আখাউড়ায় কমিউনিটি পুলিশিং সভা ও মা’দক বি’রোধী সমাবেশ... বানারীপাড়ার মেয়ে মৃত্তিকা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র... জৈন্তাপুরে মা’দক ব্যবসায়ীদের হা’মলায় ৬ পুলিশ...

বালিয়াডাঙ্গীর ভানোর ইউনিয়নে অতিরিক্ত জন্মনিবন্ধনের ফি নেওয়ার অভিযোগ

 ইলিয়াস আলী,ঠাকুরগাঁও, সমকালনিউজ২৪

ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ৬ নং ভানোর ইউনিয়ন পরিষদে ২০০ টাকা বা তারও বেশি জন্মনিবন্ধনের ফি নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে৷

ভানোর ইউনিয়নের ইউডিসি নবাব আলীর বিরুদ্ধে জন্মনিবন্ধন ফি ২০০ টাকা বা তারও বেশি নেওয়ার অভিযোগ দিয়েছেন আমাদের প্রতিনিধিকে৷

মোহাম্মদ আলী রুবেল অভিযোগ দিয়ে বলেন, আমি বিদেশ ছিলাম সেখান থেকে দেশের বাড়ি আসার সময় মলম পার্টি আমার সকল কাগজপত্র নিয়ে যায়৷তাই বাড়ি এসে আমি আমাদের ইউনিয়ন পরিষদে জন্মনিবন্ধন তুলতে যায় ৷পরিষদে গিয়ে ইউডিসি নবাব আলীকে জন্মনিবন্ধন তুলতে হবে বলি এবং কত টাকা ফি জানতে চাই? তখন সে বলে ২০০ টাকা ৷ আমি সরকারি ফি কত টাকা জানতে চাইলেও একই উত্তর দেয় এবং ১৮০ টাকা আমার কাছ থেকে নিয়ে জন্মনিবন্ধন টা হাতে ধরিয়ে দেয় ৷

একই ইউনিয়নের রফিকুল ইসলাম অভিযোগ দিয়ে বলেন, আমি জন্মনিবন্ধন তুলতে গেলে আমার কাছে ১৮০ টাকা চায়, আমি টাকা কম দিতে চাইলে আমার সামনে জন্মনিবন্ধনের কপিটা ছিড়ে ফেলে দেয়৷

কয়েকজন ইউনিয়নবাসী বলেন, ২০০ থেকে শুরু করে সুযোগ পেলে তারও বেশি নিচ্ছেন একটা জন্মনিবন্ধনের কাগজ তুলতে আর গ্রামের অনেক মানুষ মূর্খ হওয়ায় বাধ্য হচ্ছেন টাকা দিতে ৷

আমাদের প্রতিনিধি জন্মনিবন্ধন তুলতে গেলে তার কাছেও ২০০ টাকা চায়, তিনি সরকারী ফি কত টাকা জানতে চাইলে ইউডিসি নবাব বলেন, ২০০ টাকা ৷

ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মহসিন আলী বলেন, এমন অভিযোগ আমিও পেয়েছি, তাই চেয়ারম্যান সাহেব কে বলে সরকারি ফি মোতাবেক একটা চার্ট লাগানোর ব্যবস্থা করবো যাতে বেশি চাকা না নিতে পারে৷

ইউনিয়নের সচিব দবিরুল ইসলামের কাছে আমাদের প্রতিনিধি জানতে চাইলে বলেন, ১-৫ বছরের জন্য সরকারি ফি ২৫ টাকা+প্রিন্ট ফি ২০ টাকা আর ৫ বছরের উর্ধ্বে সরকারি ফি ৫০ টাকা+প্রিন্ট ফি ২০ টাকা৷
টাকা বেশি নেওয়ার কথা জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন এ বিষয়ে আমি কিছু জানিনা৷ আমার কাছে স্বাক্ষর নিতে আসলে আমি দিয়ে দেয় ৷কার কাছে কত নেয় সেটা জানিনা ৷

অত্র ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াহাব সরকারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ও তো বেতন পায়না তাই একটু বেশি নেয়৷আমি ওকে বলে দিব আর বেশি নিবেনা৷

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ভারপ্রাপ্ত ইউএনও আব্দুল্লাহ্ আল মামুন এর কাছে আমাদের প্রতিনিধি জানতে চাইলে তিনি বলেন,বিষয়টি আমি জানিনা কারণ আমি কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি ৷ তবে এখন যেহেতু জানলাম বিষয়টি আমি তদন্ত করে দেখবো৷

জন্মনিবন্ধন ফি সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, সরকারি ফি মোতাবেক নিতে বলা হয়েছে তবে কারও আপত্তি না থাকলে ১০০ টাকা পর্যন্ত নিতে বলা হয়েছে ৷

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ঠাকুরগাঁও বিভাগের সর্বশেষ
ঠাকুরগাঁও বিভাগের আলোচিত
ওপরে