২৬শে মে, ২০১৯ ইং ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
সদরঘাট জিম্মি ‘খলিফা বাহিনী’র হাতে কৃষকের ঘরে বিয়ের ১১ বছর পর এক সঙ্গে চার সন্তান বাংলাদেশীদের পদচারণায় জমজমাট কলকাতার ঈদ বাজার! স্বামী সন্তানের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের... হঠাৎ কোটিপতি হয়ে যাওয়া এক নেতা

বিরামপুরে সাবেক বর্তমানের টানাপোড়ানে জনমনে শঙ্কা।

 মোঃ সামিউল আলম / বিরামপুর (দিনাজপুর) সংবাদদাতা। সমকাল নিউজ ২৪

আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলায় সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক খাইরুল আলম রাজু এবং বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ’লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক পারভেজ কবীরের নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দীতায় জনমনে ব্যাপক সংশয়ের সৃষ্টি হয়েছে।

উপজেলা নির্বাচনে তারা উভয়েই ছিলেন আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। গত ৯ ফেব্রুয়ারী পারভেজ কবীরকে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রদান করা হয়। কিন্তু মাত্র ২ দিনের ব্যবধানে সেটি রদবদল হয়ে চলে যায় আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশী খাইরুল আলম রাজুর হাতে। পরবর্তীতে আবারো ১৫ ফেব্রুয়ারী দলীয় চুড়ান্ত মনোনয়ন হাতে নিয়ে নির্বাচনী এলাকায় ফিরে আসেন পারভেজ কবীর। এবং নৌকার প্রার্থী হিসেবে শুরু করেন গণসংযোগ।

সর্বশেষ গত ১৮ ফেব্রুয়ারী, সোমবার মনোনয়ন জমাদানের শেষ দিনে পারভেজ কবীর আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতিকে এবং খাইরুল আলম রাজু সতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন ফরম জমা দেন।

এ নিয়ে সাধারণ ভোটারদের মাঝে নানা রকমের গুঞ্জন শুরু হয়েছে। একাধিকবার মনোনয়ন পরিবর্তন এবং সতন্ত্র হিসেবে রাজুর মনোনয়ন জমা দেওয়ায় জনগণের মধ্যে ব্যাপক আলোচনা সমালোচনার ঝড় উঠেছে। তবে এখন পর্যন্ত নৌকা প্রকৃত পক্ষে কার হবে তা নিয়েও জনমনে এক ধরনের প্রশ্ন বিরাজ করছে। এমনকি দলীয় নেতা-কর্মীদের অবস্থান কার পক্ষে হবে তা নিয়ে স্থানীয় তৃণমূল নেতা-কর্মীদের মাঝে সংশয় দেখা দিয়েছে।

কাটলা ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ইউনুস আলী জানান, “তৃণমূল থেকে নেতা-কর্মীদের ভোটের মাধ্যমে খাইরুল আলম রাজু প্রথম হওয়ায় আমরা কেন্দ্রের পরবর্তী কোন নির্দেশ না পাওয়া পর্যন্ত তার পক্ষেই অটল রয়েছি”।

এবিষয়ে বিরামপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান মন্ডলের সাথে কথা বললে তিনি মনোনয়ন প্রত্যাহার এবং প্রতীক বরাদ্দের আগে কোন রকম মন্তব্য করতে রাজি হননি।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
দিনাজপুর বিভাগের সর্বশেষ
দিনাজপুর বিভাগের আলোচিত
ওপরে